নিখোঁজের দুদিন পর ভেসে উঠল যুবকের লাশ
jugantor
নিখোঁজের দুদিন পর ভেসে উঠল যুবকের লাশ

  রামগতি (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি  

২৫ জুন ২০২২, ২০:৪১:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

লক্ষ্মীপুরের রামগতির মেঘনা নদীতে নৌকাডুবে নিখোঁজের দুদিন পর সাঈদ মাহবুব (৩৫) নামে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার দুপুরে উপজেলার বড়খেরী ইউনিয়নের ওশখালী মেঘনা এলাকা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

এর আগে বৃহস্পতিবার দুপুরে মেঘনায় সাঈদ মাহবুব নিখোঁজ হয়।

সাঈদ মাহবুব নওগাঁ জেলার পোরশা এলাকার জহির উদ্দিনের ছেলে। তিনি নদীর তীররক্ষা বাঁধ নির্মাণ কাজের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের তদারকিকারক (সুপারভাইজার) ছিলেন।

বড়খেরী নৌ-পুলিশ ফাঁড়ি সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার সোনালী গ্রামের উকিলপাড়া এলাকায় মেঘনা নদী নৌকায় উঠতে গিয়ে পন্টুন থেকে সাঈদ মাহবুবসহ ৫ জন নদীতে পড়ে যান। অন্য ৪ জন সাঁতরে কূলে উঠতে পারলেও সাঈদ নদীতে তলিয়ে যায়।

পরদিন সকালে চাঁদপুর থেকে ডুবুরি দল এনে উদ্ধার কার্যক্রম চালানো হয়। কিন্তু কোথাও তার খোঁজ পাওয়া যায়নি। শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বড়খেরী ইউনিয়নের ওশখালী এলাকায় সাঈদের লাশ ভাসতে দেখা যায়। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে।

বড়খেরী নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক (তদন্ত) ফেরদৌস আহম্মদ বলেন, নিখোঁজ ব্যক্তির সন্ধানে আমরা যৌথ কার্যক্রম পরিচালনা করেছি। দুই দিন পর ঘটনাস্থল থেকে ১০ কিলোমিটার দূরে তার লাশ পাওয়া যায়। আইনগত প্রক্রিয়া শেষে নিহতের লাশ তার ভাই ইমামুল হকের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

নিখোঁজের দুদিন পর ভেসে উঠল যুবকের লাশ

 রামগতি (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি 
২৫ জুন ২০২২, ০৮:৪১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

লক্ষ্মীপুরের রামগতির মেঘনা নদীতে নৌকাডুবে নিখোঁজের দুদিন পর সাঈদ মাহবুব (৩৫) নামে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার দুপুরে উপজেলার বড়খেরী ইউনিয়নের ওশখালী মেঘনা এলাকা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। 

এর আগে বৃহস্পতিবার দুপুরে মেঘনায় সাঈদ মাহবুব নিখোঁজ হয়।

সাঈদ মাহবুব নওগাঁ জেলার পোরশা এলাকার জহির উদ্দিনের ছেলে। তিনি নদীর তীররক্ষা বাঁধ নির্মাণ কাজের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের তদারকিকারক (সুপারভাইজার) ছিলেন।

বড়খেরী নৌ-পুলিশ ফাঁড়ি সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার সোনালী গ্রামের উকিলপাড়া এলাকায় মেঘনা নদী নৌকায় উঠতে গিয়ে পন্টুন থেকে সাঈদ মাহবুবসহ ৫ জন নদীতে পড়ে যান। অন্য ৪ জন সাঁতরে কূলে উঠতে পারলেও সাঈদ নদীতে তলিয়ে যায়।

পরদিন সকালে চাঁদপুর থেকে ডুবুরি দল এনে উদ্ধার কার্যক্রম চালানো হয়। কিন্তু কোথাও তার খোঁজ পাওয়া যায়নি। শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বড়খেরী ইউনিয়নের ওশখালী এলাকায় সাঈদের লাশ ভাসতে দেখা যায়। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। 

বড়খেরী নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক (তদন্ত) ফেরদৌস আহম্মদ বলেন, নিখোঁজ ব্যক্তির সন্ধানে আমরা যৌথ কার্যক্রম পরিচালনা করেছি। দুই দিন পর ঘটনাস্থল থেকে ১০ কিলোমিটার দূরে তার লাশ পাওয়া যায়। আইনগত প্রক্রিয়া শেষে নিহতের লাশ তার ভাই ইমামুল হকের কাছে হস্তান্তর করা হয়।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন