কাভার্ড ভ্যানচাপায় নিহত বেড়ে ৫
jugantor
কাভার্ড ভ্যানচাপায় নিহত বেড়ে ৫

  নরসিংদী প্রতিনিধি   

৩০ জুন ২০২২, ১৫:২৫:২৭  |  অনলাইন সংস্করণ

নরসিংদীর রায়পুরায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে কাভার্ডভ্যানের চাপায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৫ জনে দাঁড়িয়েছে। নিহতরা সবাই সবজি বিক্রেতা। এ ঘটনায় অন্তত আরও ছয়জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে রায়পুরা উপজেলার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের মাহমুদাবাদ মেশিনঘর নামক এলাকায় রাস্তার পাশে ফুটপাতের বাজারে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন— রায়পুরা উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের মির্জাপুর গ্রামের ফজর আলীর ছেলে ফারুক মিয়া (৫০), মাহমুদাবাদ মিস্ত্রিবাড়ির তায়েব মিয়ার ছেলে মাসাকিন (৩৫), মাহমুদাবাদ টানপাড়া এলাকার সেন্টু মিয়ার ছেলে মো. রিপন মিয়া (৩০), মাহমুদাবাদ এলাকার পাগলাবাড়ির বাচ্চু মিয়ার ছেলে শাজাহান মিয়া (৫০) ও মাহমুদাবাদ সর্দারবাড়ির জনব আলীর ছেলে বাচ্চু মিয়া (৬৫)।

তাৎক্ষণিক খবর পেয়ে স্থানীয়দের সহায়তায় পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আহতদের উদ্ধার করে আশপাশের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠায়।

ফায়ার সার্ভিস এবং পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জনা গেছে, প্রতিদিনের মতো ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশে সবজির হাট বসে। এ সময় ভৈরব থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী জননী কুরিয়ার সার্ভিসের একটি কাভার্ডভ্যান মাহমুদাবাদ মেশিনঘর এলাকায় পৌঁছলে বিপরীত দিক থেকে আশা আরেকটি কাভার্ডভ্যান ক্রস করার সময় দুটি কাভার্ডভ্যানই নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে।

ফলে একটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মহাসড়কের পাশে মাহমুদাবাদ মেশিনগড় এলাকায় রাস্তার পাশে সবজির হাটে ঢুকে পড়ে। এ সময় বেশ কিছু দোকান ও ইজিবাইককে চাপা দেয় কাভার্ডভ্যানটি। ফলে সেখানে থাকা ৫ জন সবজি বিক্রেতা নিহতসহ বেশ কিছু লোকজন আহত হন।

এ ব্যাপারে ভৈরববাজার ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ইনচার্জ আজিজুল হক বলেন, দুটি কাভার্ডভ্যান নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বিপরীত দিকে চলে যায়। আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থল এসে উদ্ধারকাজ শুরু করি।

কাভার্ড ভ্যানচাপায় নিহত বেড়ে ৫

 নরসিংদী প্রতিনিধি  
৩০ জুন ২০২২, ০৩:২৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নরসিংদীর রায়পুরায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে কাভার্ডভ্যানের চাপায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৫ জনে দাঁড়িয়েছে। নিহতরা সবাই সবজি বিক্রেতা। এ ঘটনায় অন্তত আরও ছয়জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। 

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে রায়পুরা উপজেলার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের মাহমুদাবাদ মেশিনঘর নামক এলাকায় রাস্তার পাশে ফুটপাতের বাজারে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। 

নিহতরা হলেন— রায়পুরা উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের মির্জাপুর গ্রামের ফজর আলীর ছেলে ফারুক মিয়া (৫০), মাহমুদাবাদ মিস্ত্রিবাড়ির তায়েব মিয়ার ছেলে মাসাকিন (৩৫), মাহমুদাবাদ টানপাড়া এলাকার সেন্টু মিয়ার ছেলে মো. রিপন মিয়া (৩০), মাহমুদাবাদ এলাকার পাগলাবাড়ির বাচ্চু মিয়ার ছেলে শাজাহান মিয়া (৫০) ও মাহমুদাবাদ সর্দারবাড়ির জনব আলীর ছেলে বাচ্চু মিয়া (৬৫)।

তাৎক্ষণিক খবর পেয়ে স্থানীয়দের সহায়তায় পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আহতদের উদ্ধার করে আশপাশের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠায়। 

ফায়ার সার্ভিস এবং পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জনা গেছে, প্রতিদিনের মতো ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশে সবজির হাট বসে। এ সময় ভৈরব থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী জননী কুরিয়ার সার্ভিসের একটি কাভার্ডভ্যান মাহমুদাবাদ মেশিনঘর এলাকায় পৌঁছলে বিপরীত দিক থেকে আশা আরেকটি কাভার্ডভ্যান ক্রস করার সময় দুটি কাভার্ডভ্যানই নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে। 

ফলে একটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মহাসড়কের পাশে মাহমুদাবাদ মেশিনগড় এলাকায় রাস্তার পাশে সবজির হাটে ঢুকে পড়ে। এ সময় বেশ কিছু দোকান ও ইজিবাইককে চাপা দেয় কাভার্ডভ্যানটি। ফলে সেখানে থাকা ৫ জন সবজি বিক্রেতা নিহতসহ বেশ কিছু লোকজন আহত হন। 

এ ব্যাপারে ভৈরববাজার ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ইনচার্জ আজিজুল হক বলেন, দুটি কাভার্ডভ্যান নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বিপরীত দিকে চলে যায়। আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থল এসে উদ্ধারকাজ শুরু করি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন