মামলা করে বিপাকে ধর্ষণের শিকার নারী
jugantor
মামলা করে বিপাকে ধর্ষণের শিকার নারী

  চরফ্যাশন (ভোলা) প্রতিনিধি  

৩০ জুন ২০২২, ১৬:০০:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

ভোলার চরফ্যাশনের শশীভূষণ থানায় ধর্ষণ মামলা করে বিপাকে পড়েছেন ভুক্তভোগী এক নারী। অভিযুক্ত ধর্ষক রুবেল মামলা তুলে নিতে ভিকটিমকে হুমকি দেওয়াসহ আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর থেকে উচ্ছেদের হুমকি দিয়েছে বলে অভিযোগ করেন ওই নারী।

অভিযোগে জানা গেছে, স্বামীর সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয় ওই নারীর। তিনি আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরে থাকেন। অভিযুক্ত রুবেল জাহানপুর ইউনিয়নের তুলাগাছিয়া বাজারের মুদি ব্যবসায়ী। মুদি কেনাকাটার সুযোগে থাকা ভিকটিমকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন।

গত ১৮ জুন সন্ধ্যায় ভিকটিমের সঙ্গে বিয়ের কথা পাকা করার জন্য কৌশলে একটি বাগানে নিয়ে যান। সেখানে তাকে ধর্ষণ করেন রুবেল। ঘটনাটি স্থানীয়রা দেখে ফেলেন এবং হাতেনাতে ধরে ফেলেন।

স্থানীয়দের ধড়পাকড়ের মুখে রুবেল ভিকটিমকে স্ত্রী বলে দাবি করেন এবং ঘটনাস্থল থেকে সরে গিয়ে গা ঢাকা দেন। নিরুপায় হয়ে ওই নারী গত ২৪ জুন রাতে রুবেলকে আসামি করে শশীভূষণ থানায় মামলা করেন। মামলার পর থেকে রুবেল পলাতক।

ওই নারী অভিযোগ করেছেন, পালিয়ে থেকে আসামি রুবেল বিভিন্ন মোবাইল ফোন ব্যবহার করে মামলা তুলে নিতে ভিকটিমকে হুমকি দিচ্ছেন এ ছাড়া আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর থেকে উচ্ছেদের হুমকি দিচ্ছেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই দীপংকর দাস জানান, মামলার আগে থেকেই আসামি রুবেল গা ঢাকা দিয়ে আছে। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

শশীভূষণ থানার ওসি মিজানুর রহমান পাটওয়ারী জানান, হুমকি-ধমকির বিষয়টি থানাকে আগে জানানো হয়নি। পুলিশের পক্ষ থেকে ভিকটিমের নিরাপত্তার জন্য সব ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং অভিযোগ পেলে হুমকিদাতা সব পক্ষকে আইনের আওতায় আনা হবে।

মামলা করে বিপাকে ধর্ষণের শিকার নারী

 চরফ্যাশন (ভোলা) প্রতিনিধি 
৩০ জুন ২০২২, ০৪:০০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ভোলার চরফ্যাশনের শশীভূষণ থানায় ধর্ষণ মামলা করে বিপাকে পড়েছেন ভুক্তভোগী এক নারী। অভিযুক্ত ধর্ষক রুবেল মামলা তুলে নিতে ভিকটিমকে হুমকি দেওয়াসহ আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর থেকে উচ্ছেদের হুমকি দিয়েছে বলে অভিযোগ করেন ওই নারী। 

অভিযোগে জানা গেছে, স্বামীর সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয় ওই নারীর। তিনি আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরে থাকেন। অভিযুক্ত রুবেল জাহানপুর ইউনিয়নের তুলাগাছিয়া বাজারের মুদি ব্যবসায়ী। মুদি কেনাকাটার সুযোগে থাকা ভিকটিমকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। 

গত ১৮ জুন সন্ধ্যায় ভিকটিমের সঙ্গে বিয়ের কথা পাকা করার জন্য কৌশলে একটি বাগানে নিয়ে যান। সেখানে তাকে ধর্ষণ করেন রুবেল। ঘটনাটি স্থানীয়রা দেখে ফেলেন এবং হাতেনাতে ধরে ফেলেন। 

স্থানীয়দের ধড়পাকড়ের মুখে রুবেল ভিকটিমকে স্ত্রী বলে দাবি করেন এবং ঘটনাস্থল থেকে সরে গিয়ে গা ঢাকা দেন। নিরুপায় হয়ে ওই নারী গত ২৪ জুন রাতে রুবেলকে আসামি করে শশীভূষণ থানায় মামলা করেন। মামলার পর থেকে রুবেল পলাতক। 

ওই নারী অভিযোগ করেছেন, পালিয়ে থেকে আসামি রুবেল বিভিন্ন মোবাইল ফোন ব্যবহার করে মামলা তুলে নিতে ভিকটিমকে হুমকি দিচ্ছেন এ ছাড়া আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর থেকে উচ্ছেদের হুমকি দিচ্ছেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই দীপংকর দাস জানান, মামলার আগে থেকেই আসামি রুবেল গা ঢাকা দিয়ে আছে। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে। 

শশীভূষণ থানার ওসি মিজানুর রহমান পাটওয়ারী জানান, হুমকি-ধমকির বিষয়টি থানাকে আগে জানানো হয়নি। পুলিশের পক্ষ থেকে ভিকটিমের নিরাপত্তার জন্য সব ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং অভিযোগ পেলে হুমকিদাতা সব পক্ষকে আইনের আওতায় আনা হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন