শরণখোলায় ছাত্রলীগ নেতার কাণ্ড!

  শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি ০৭ জুন ২০১৮, ২০:০১ | অনলাইন সংস্করণ

পাঁচ দিন ধরে অবরুদ্ধ পরিবার
পাঁচ দিন ধরে অবরুদ্ধ পরিবার। ছবি: যুগান্তর

শরণখোলার দুবাই প্রবাসী একটি পরিবারকে মারধর করে পাঁচ দিন ধরে অবরুদ্ধ করে রেখেছেন ছাত্রলীগ নেতা আসাদুজ্জামান আসাদ ও স্থানীয় ইউপি সদস্য রহিম হাওলাদার।

ওই জমি দাবি করে বসতঘরটির চারদিকে কাঁটাতার পেরেক মেরে আটকে রেখে পাহারা বসানো হয়েছে। যাতে কেউ ওই ঘর থেকে বের হতে না পারে।

এমনকি কারো সঙ্গে যাতে যোগাযোগ করতে না পারে সে জন্য মোবাইল ফোন ভেঙে গুঁড়িয়ে ফেলা ফেলা হয়েছে। পরবর্তী হামলার আশঙ্কায় দুটি শিশুসন্তান নিয়ে পরিবারটি বর্তমানে আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের অভিযোগে জানা যায়, গত ৩ জুন শরণখোলা ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ ও ইউপি সদস্য মো. আবদুর রহিম উপজেলার রাজৈর এলাকার দুবাই প্রবাসী খলিলুর রহমান তালুকদারের বাড়িতে লোকজন নিয়ে হামলা চালায়। খলিলের বাড়ির মধ্যে তাদের জমি রয়েছে দাবি করে পুরো বাড়িঘর কাঁটাতার দিয়ে ঘিরে ফেলে তারা।

ঘটনাটি খলিলুর রহমানের স্ত্রী ফহিমা বেগম মোবাইল ফোনে তার ভাইকে জানাতে গেলে ছাত্রলীগ নেতা আসাদ মোবাইলটি কেড়ে নিয়ে ভেঙে ফেলে। এ সময় গৃহকর্তা খলিলুর রহমানকে মারধর করে ঘটনা কাউকে না জানানোর জন্য শাসিয়ে যায়।

এরপর থেকে ওই পরিবারটি দুটি শিশুসন্তান নিয়ে অবরুদ্ধ অবস্থায় খেয়ে না খেয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে।

ঘটনার খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে স্থানীয় সাংবাদিকদের একটি টিম ঘটনাস্থলে গেলে আশপাশের লোকজন এ ব্যাপারে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায়নি। এ সময় ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে সাংবাদিকদের কাছে ঘটনার বর্ণনা করে ওই পরিবারটি।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত ইউপি সদস্য রহিম হাওলাদার জমি দখল বা কাঁটাতারের বেড়া দিয়ে অবরুদ্ধ করার ঘটনায় জড়িত নয় বলে তিনি দাবি করেন।

ছাত্রলীগ নেতা আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, খলিলের বাড়ির মধ্যে পাওনা জমি কাঁটাতারের বেড়া দিয়ে দখলে নেয়া হয়েছে। তার জমির ওপর দিয়ে তাদের বের হতে দেয়া হবে না।

সংশ্লিষ্ট খোন্তাকাটা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান জাকির হোসেন খান মহিউদ্দিন বলেন, একটি পরিবারকে অবরুদ্ধ করে রাখা অমানবিক ও বেআইনি। ঘটনায় জড়িতরা যে দলেরই হোক না কেনো তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া উচিত।

উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক হাসান মীর জানান, আসাদ ছাত্রলীগের কোনো কমিটিতে নেই। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে। তার কোনো বিষয়ে ছাত্রলীগ দায়িত্ব নেবে না।

শরণখোলা থানার ওসি কবিরুল ইসলাম জানান, ঘটনা তাকে কেউ জানায়নি। তবে, অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শরণখোলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লিংকন বিশ্বাস জানান, এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য থানা পুলিশকে বলা হয়েছে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter