অটোরিকশা জমা দিয়ে নিখোঁজ চালক, ৩ দিন পর লাশ মিলল খালে
jugantor
অটোরিকশা জমা দিয়ে নিখোঁজ চালক, ৩ দিন পর লাশ মিলল খালে

  হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি  

০২ আগস্ট ২০২২, ১৮:২৯:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে মালিকের কাছে সিএনজিচালিত অটোরিকশা জমা দিয়ে নিখোঁজ হন চালক আবুল কাসেম (৩২)। তিন দিন পর তার লাশ মিলল হালদা নদীর সংযোগ খালে।

সোমবার (১ জুলাই) দিবাগত মধ্যরাতে হালদা নদীর সংযোগ কুমারখালী খাল থেকে ওই অটোরিকশাচালকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহত আবুল কাসেম উপজেলার উত্তর মার্দাশা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের রহমত ঘোনা এলাকার ওয়াহিদ টেন্ডারের বাড়ির নূরুল হকের পুত্র।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন ১০নং উত্তর মার্দাশা ইউপি চেয়ারম্যান মো. শাহেদুল আলম জানান, স্থানীয়দের কাছ থেকে জানতে পারেন গত শুক্রবার রাতে আবুল কাসেম তার ভাড়ায়চালিত সিএনজি অটোরিকশাটি মালিককে বুঝিয়ে দেন। এরপর থেকে তার আর কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।

বিষয়টি পরদিন তার পরিবারের পক্ষ থেকে হাটহাজারী থানা পুলিশকে অবহিত করা হয়। এর মধ্যে সোমবার রাত ১০টার দিকে হালদা নদীর সংযোগ কুমারখালি খালের নাপিতের ঘাটা নামক স্থানে তার মরদেহটি স্থানীয়রা দেখতে পেয়ে পুলিশকে জানান স্থানীয়রা।

খবর পেয়ে হাটহাজারী মডেল থানার এসআই মো. বেলাল দ্রুত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে রাত ১২টার দিকে খাল থেকে লাশটি উদ্ধার করেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে হাটহাজারী মডেল থানার ওসি মুহাম্মদ রুহুল আমীন বলেন, অটোরিকশাচালক আবুল কাসেমের মরদেহ খাল থেকে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। কী কারণে তার মৃত্যু হয়েছে বিষয়টি ময়নাতদন্তের পর বিস্তারিত জানা যাবে বলে তিনি জানান।

অটোরিকশা জমা দিয়ে নিখোঁজ চালক, ৩ দিন পর লাশ মিলল খালে

 হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি 
০২ আগস্ট ২০২২, ০৬:২৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে মালিকের কাছে সিএনজিচালিত অটোরিকশা জমা দিয়ে নিখোঁজ হন চালক আবুল কাসেম (৩২)। তিন দিন পর তার লাশ মিলল হালদা নদীর সংযোগ খালে।

সোমবার (১ জুলাই) দিবাগত মধ্যরাতে হালদা নদীর সংযোগ কুমারখালী খাল থেকে ওই অটোরিকশাচালকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহত আবুল কাসেম উপজেলার উত্তর মার্দাশা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের রহমত ঘোনা এলাকার ওয়াহিদ টেন্ডারের বাড়ির নূরুল হকের পুত্র।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন ১০নং উত্তর মার্দাশা ইউপি চেয়ারম্যান মো. শাহেদুল আলম জানান, স্থানীয়দের কাছ থেকে জানতে পারেন গত শুক্রবার রাতে আবুল কাসেম তার ভাড়ায়চালিত সিএনজি অটোরিকশাটি মালিককে বুঝিয়ে দেন। এরপর থেকে তার আর কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।

বিষয়টি পরদিন তার পরিবারের পক্ষ থেকে হাটহাজারী থানা পুলিশকে অবহিত করা হয়। এর মধ্যে সোমবার রাত ১০টার দিকে হালদা নদীর সংযোগ কুমারখালি খালের নাপিতের ঘাটা নামক স্থানে তার মরদেহটি স্থানীয়রা দেখতে পেয়ে পুলিশকে জানান স্থানীয়রা। 

খবর পেয়ে হাটহাজারী মডেল থানার এসআই মো. বেলাল দ্রুত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে রাত ১২টার দিকে খাল থেকে লাশটি উদ্ধার করেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে হাটহাজারী মডেল থানার ওসি মুহাম্মদ রুহুল আমীন বলেন, অটোরিকশাচালক আবুল কাসেমের মরদেহ খাল থেকে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। কী কারণে তার মৃত্যু হয়েছে বিষয়টি ময়নাতদন্তের পর বিস্তারিত জানা যাবে বলে তিনি জানান।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন