রাস্তায় গাড়ি নেই, গার্মেন্ট শ্রমিকদের বিক্ষোভ
jugantor
রাস্তায় গাড়ি নেই, গার্মেন্ট শ্রমিকদের বিক্ষোভ

  যুগান্তর প্রতিবেদন, গাজীপুর  

০৬ আগস্ট ২০২২, ২১:১২:৫৭  |  অনলাইন সংস্করণ

হঠাৎ করে জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির খবরে গাজীপুরে গণপরিবহণের সংকট দেখা দেওয়ায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন সাধারণ যাত্রীরা। সবচেয়ে বিড়ম্বনায় পড়েন কারখানার শ্রমিকরা।

শনিবার সকাল থেকেই ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের গাজীপুরের টঙ্গী, বোর্ডবাজার, চেরাগআলী, চান্দনা চৌরাস্তা, সালনা, রাজেন্দ্রপুর, ভবানীপুর, মাস্টারবাড়ী, মাওনা চৌরাস্তা, নয়নপুর, এমসি বাজার ও জৈনাবাজার বাসস্ট্যান্ডে বাসের জন্য যাত্রীদের দাঁড়িয়ে অপক্ষো করতে দেখা গেছে। সড়ক ফাঁকা থাকলেও অনেকক্ষণ অপেক্ষার পরও বাস পাচ্ছেন না তারা। ফলে চরম ভোগান্তিতে পড়েন সাধারণ মানুষ।

গাজীপুরের সালনা এলাকার বাসিন্দা আরিফুর চাকরি করেন শ্রীপুরের ২নং সিএনবি এলাকার একটি পোশাক কারখানায়। তিনি জানান, সকাল সাড়ে ৮টা পর্যন্ত বাসের জন্য দাঁড়িয়ে থেকে ছোট যানবাহনে দেরি করে অফিসে পৌঁছেছেন। ৫টায় অফিস ছুটির পর ফের একই অবস্থা। এ সুযোগে রিকশাওয়ালাও ডাবল ভাড়া আদায় করছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি।

সময়মতো অফিসে যেতে পারেননি মাস্টারবাড়ি ফখরুদ্দীন টেক্সটাইলে কর্মরত কবির খোকন৷ তিনি বলেন, সকালে সড়কে এসে শুনি গাড়ি চলাচল বন্ধ। এটা তো কোনো নিয়মের পর্যায়ে পড়ে না।

এদিকে শুক্রবার মধ্যরাত ১২টার পর থেকে জ্বালানি ও খনিজসম্পদ বিভাগ কর্তৃক তেলের দাম বাড়ার ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গেই পাম্পগুলোর কর্তৃপক্ষ তেল দেওয়া বন্ধ করে দেয়। এ সময় অনেক পাম্প কর্মকর্তাদের সঙ্গে তেল নিতে আসা যানবাহন ও মোটরসাইকেল চালকদের বাগবিতণ্ডায় লিপ্ত হতে দেখা গেছে। পরে রাতে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে অবস্থান নেয় মোটরসাইকেল চালকরা। এ সময় পুলিশ এসে তাদের সরিয়ে দেয়।

ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে ঘুরছিলেন লোকাল বাসচালক রমিজ মিয়া। তিনি বলেন, যাত্রীরা তো হঠাৎ বেশি ভাড়া দেবে না। তেলের দামের সঙ্গে সমন্বয় করে ভাড়া নির্ধারণের পর বাস চালাব।

দূরপাল্লার বাসের মধ্যে ময়মনসিংহের রাজিব পরিবহণের চালক আব্দুল জব্বার জানান, হঠাৎ করে ডিজেলের দাম যে পরিমাণ বেড়েছে, তাতে আগের ভাড়ায় যাত্রী পরিবহণ করা সম্ভব হবে না। তাই আপাতত যাত্রী পরিবহন বন্ধ রাখা হয়েছে।

এ বিষয়ে গাজীপুর জেলা সড়ক পরিবহণ কমচারী শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি সুলতান উদ্দিন যুগান্তরকে বলেন, যেসব পরিবহণে জ্বালালি ভর্তি ছিল না তারা দাম বৃদ্ধির কারণে অনেকে সড়কে গাড়ি নিয়ে বের হয়নি। তাদের সঙ্গে কথা বলে আগামী কয়েক দিনের মধ্যে যান চলাচল স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নেওয়া হবে।

রাস্তায় গাড়ি নেই, গার্মেন্ট শ্রমিকদের বিক্ষোভ

 যুগান্তর প্রতিবেদন, গাজীপুর 
০৬ আগস্ট ২০২২, ০৯:১২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

হঠাৎ করে জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির খবরে গাজীপুরে গণপরিবহণের সংকট দেখা দেওয়ায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন সাধারণ যাত্রীরা। সবচেয়ে বিড়ম্বনায় পড়েন কারখানার শ্রমিকরা।

শনিবার সকাল থেকেই ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের গাজীপুরের টঙ্গী, বোর্ডবাজার, চেরাগআলী, চান্দনা চৌরাস্তা, সালনা, রাজেন্দ্রপুর, ভবানীপুর, মাস্টারবাড়ী, মাওনা চৌরাস্তা, নয়নপুর, এমসি বাজার ও জৈনাবাজার বাসস্ট্যান্ডে বাসের জন্য যাত্রীদের দাঁড়িয়ে অপক্ষো করতে দেখা গেছে। সড়ক ফাঁকা থাকলেও অনেকক্ষণ অপেক্ষার পরও বাস পাচ্ছেন না তারা। ফলে চরম ভোগান্তিতে পড়েন সাধারণ মানুষ।

গাজীপুরের সালনা এলাকার বাসিন্দা আরিফুর চাকরি করেন শ্রীপুরের ২নং সিএনবি এলাকার একটি পোশাক কারখানায়। তিনি জানান, সকাল সাড়ে ৮টা পর্যন্ত বাসের জন্য দাঁড়িয়ে থেকে ছোট যানবাহনে দেরি করে অফিসে পৌঁছেছেন। ৫টায় অফিস ছুটির পর ফের একই অবস্থা। এ সুযোগে রিকশাওয়ালাও ডাবল ভাড়া আদায় করছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি।

সময়মতো অফিসে যেতে পারেননি মাস্টারবাড়ি ফখরুদ্দীন টেক্সটাইলে কর্মরত কবির খোকন৷ তিনি বলেন, সকালে সড়কে এসে শুনি গাড়ি চলাচল বন্ধ। এটা তো কোনো নিয়মের পর্যায়ে পড়ে না। 

এদিকে শুক্রবার মধ্যরাত ১২টার পর থেকে জ্বালানি ও খনিজসম্পদ বিভাগ কর্তৃক তেলের দাম বাড়ার ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গেই পাম্পগুলোর কর্তৃপক্ষ তেল দেওয়া বন্ধ করে দেয়। এ সময় অনেক পাম্প কর্মকর্তাদের সঙ্গে তেল নিতে আসা যানবাহন ও মোটরসাইকেল চালকদের বাগবিতণ্ডায় লিপ্ত হতে দেখা গেছে। পরে রাতে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে অবস্থান নেয় মোটরসাইকেল চালকরা। এ সময় পুলিশ এসে তাদের সরিয়ে দেয়। 

ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে ঘুরছিলেন লোকাল বাসচালক রমিজ  মিয়া। তিনি বলেন, যাত্রীরা তো হঠাৎ বেশি ভাড়া দেবে না। তেলের দামের সঙ্গে সমন্বয় করে ভাড়া নির্ধারণের পর বাস চালাব।

দূরপাল্লার বাসের মধ্যে ময়মনসিংহের রাজিব পরিবহণের চালক আব্দুল জব্বার জানান, হঠাৎ করে ডিজেলের দাম যে পরিমাণ বেড়েছে, তাতে আগের ভাড়ায় যাত্রী পরিবহণ করা সম্ভব হবে না। তাই আপাতত যাত্রী পরিবহন বন্ধ রাখা হয়েছে।

এ বিষয়ে গাজীপুর জেলা সড়ক পরিবহণ কমচারী শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি সুলতান উদ্দিন যুগান্তরকে বলেন, যেসব পরিবহণে জ্বালালি ভর্তি ছিল না তারা দাম বৃদ্ধির কারণে অনেকে সড়কে গাড়ি নিয়ে বের হয়নি। তাদের সঙ্গে কথা বলে আগামী কয়েক দিনের মধ্যে যান চলাচল স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নেওয়া হবে। 
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন