ভিমরুলের হুলে ১৫ মাসের শিশুর মৃত্যু
jugantor
ভিমরুলের হুলে ১৫ মাসের শিশুর মৃত্যু

  নান্দাইল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

০৯ আগস্ট ২০২২, ০০:৩৪:২০  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার জাহাঙ্গীরপুর ইউপির তারা পাশা গ্রামের খালেদ ভূইয়ার মেয়ে (১৫ মাস) কন্যা সাওদা ভেমরুলের হুলে মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরও পাঁচজন। রোববার বিকালের দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সাওদার চাচা লাল মিয়া ভূইয়া জানান, বাড়িতে একটি নতুন ঘর তৈরি কাজ চলছে। বিকালের দিকে আমার বৃদ্ধ মা ঘরের পেছনে হাঁটতে যায়। তার সঙ্গে সঙ্গে চার নাতি। ওখানে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই কোথায় থেকে যেন ভেমরুল বের হয়ে আমার মা পঞ্চননেচ্চা, সাওদার বড় বোন সাইমা, ভাতিজি মীম, মিলিকেও ভেমরুল হুল ফুটাতে থাকে। তাদের ডাক চিৎকারে বাড়ির লোকজনসহ আশপাশের লোকজন এসে তাদের উদ্ধার করে পার্শ্ববর্তী হোসেনপুর উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

হোসেনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসক জানান, সাওদা নামে শিশুটির শারীরিক অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে আমরা কিশোরগঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেছিলাম। অভিভাবকরা বিষয়টি গুরুত্ব না দিয়ে আমাদের এখানে চিকিৎসা দিয়ে বাড়িতে নিয়ে যায়। কিছুক্ষণ পর আবারও নিয়ে আসে তখন আমরা দ্রুত কিশোরগঞ্জ নিয়ে যেতে বলি। কিশোরগঞ্জ নেওয়ার প্রস্তুতিকালেই শিশুটি মারা যায়।

ভিমরুলের হুলে ১৫ মাসের শিশুর মৃত্যু

 নান্দাইল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
০৯ আগস্ট ২০২২, ১২:৩৪ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার জাহাঙ্গীরপুর ইউপির তারা পাশা গ্রামের খালেদ ভূইয়ার মেয়ে (১৫ মাস) কন্যা সাওদা ভেমরুলের হুলে মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরও পাঁচজন। রোববার বিকালের দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সাওদার চাচা লাল মিয়া ভূইয়া জানান, বাড়িতে একটি নতুন ঘর তৈরি কাজ চলছে। বিকালের দিকে আমার বৃদ্ধ মা ঘরের পেছনে হাঁটতে যায়। তার সঙ্গে সঙ্গে চার নাতি। ওখানে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই কোথায় থেকে যেন ভেমরুল বের হয়ে আমার মা পঞ্চননেচ্চা, সাওদার বড় বোন সাইমা, ভাতিজি মীম, মিলিকেও ভেমরুল হুল ফুটাতে থাকে। তাদের ডাক চিৎকারে বাড়ির লোকজনসহ আশপাশের লোকজন এসে তাদের উদ্ধার করে পার্শ্ববর্তী হোসেনপুর উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

হোসেনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসক জানান, সাওদা নামে শিশুটির শারীরিক অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে আমরা কিশোরগঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেছিলাম। অভিভাবকরা বিষয়টি গুরুত্ব না দিয়ে আমাদের এখানে চিকিৎসা দিয়ে বাড়িতে নিয়ে যায়। কিছুক্ষণ পর আবারও নিয়ে আসে তখন আমরা দ্রুত কিশোরগঞ্জ নিয়ে যেতে বলি। কিশোরগঞ্জ নেওয়ার প্রস্তুতিকালেই শিশুটি মারা যায়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন