পছন্দ হয়নি কসমেটিকস, যা করলেন নববধূ
jugantor
পছন্দ হয়নি কসমেটিকস, যা করলেন নববধূ

  রানীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি  

০৯ আগস্ট ২০২২, ০০:৩৭:১৫  |  অনলাইন সংস্করণ

নওগাঁর রানীনগরে মেহেদীর রং না শুকাতেই বিয়ের দেড় মাসের মাথায় বিষাক্ত গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে রুমি আক্তার (১৮) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার সকালে নওগাঁ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার কাশিমপুর সরদারপাড়া গ্রামে।

নিহত রুমি আক্তার কাশিমপুর সরদারপাড়া গ্রামে সুরুজ সরদারের স্ত্রী।

জানা যায়, দেড় মাস আগে সুরুজ সরদার (২০) এর সঙ্গে বিয়ে হয় পার্শ্ববর্তী আত্রাই কাশিয়াবাড়ি গ্রামের বাবু প্রামানিকের মেয়ে রুমি খাতুনের। বিয়ের পর তাদের সংসার ভালোই চলছিল। রোববার বিকালে সুরুজ স্থানীয় বাজারে গিয়ে স্ত্রীর জন্য কসমেটিক জিনিসপত্রসহ কিছু কেনাকাটা করেন। বাজার থেকে কেনা জিনিসপত্র গৃহবধূ রুমির পছন্দ হয়নি বলে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া বাধে। একপর্যায়ে সুরুজ বাড়ি থেকে বাইরে চলে যায়। এ সময় গৃহবধূ স্বামীর ওপর অভিমান করে গ্যাস ট্যাবলেট খায়। পরিবারের লোকজন ঘটনা জানতে পেরে চিকিৎসার জন্য রুমিকে প্রথমে রানীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে তার অবস্থার অবনতি হয়। এরপর নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভার্তি করানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার সকাল ৬টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

রাণীনগর থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ বলেন, খবর পেয়ে সোমবার দুপুরে স্বামীর বাড়ি থেকে গৃহবধূ রুমির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার মৃত্যুর সঠিক কারণ জানতে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পছন্দ হয়নি কসমেটিকস, যা করলেন নববধূ

 রানীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি 
০৯ আগস্ট ২০২২, ১২:৩৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নওগাঁর রানীনগরে মেহেদীর রং না শুকাতেই বিয়ের দেড় মাসের মাথায় বিষাক্ত গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে রুমি আক্তার (১৮) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার সকালে নওগাঁ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার কাশিমপুর সরদারপাড়া গ্রামে।

নিহত রুমি আক্তার কাশিমপুর সরদারপাড়া গ্রামে সুরুজ সরদারের স্ত্রী।

জানা যায়, দেড় মাস আগে সুরুজ সরদার (২০) এর সঙ্গে বিয়ে হয় পার্শ্ববর্তী আত্রাই কাশিয়াবাড়ি গ্রামের বাবু প্রামানিকের মেয়ে রুমি খাতুনের। বিয়ের পর তাদের সংসার ভালোই চলছিল। রোববার বিকালে সুরুজ স্থানীয় বাজারে গিয়ে স্ত্রীর জন্য কসমেটিক জিনিসপত্রসহ কিছু কেনাকাটা করেন। বাজার থেকে কেনা জিনিসপত্র গৃহবধূ রুমির পছন্দ হয়নি বলে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া বাধে। একপর্যায়ে সুরুজ বাড়ি থেকে বাইরে চলে যায়। এ সময় গৃহবধূ স্বামীর ওপর অভিমান করে গ্যাস ট্যাবলেট খায়। পরিবারের লোকজন ঘটনা জানতে পেরে চিকিৎসার জন্য রুমিকে প্রথমে রানীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে তার অবস্থার অবনতি হয়। এরপর নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভার্তি করানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার সকাল ৬টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

রাণীনগর থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ বলেন, খবর পেয়ে সোমবার দুপুরে স্বামীর বাড়ি থেকে গৃহবধূ রুমির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার মৃত্যুর সঠিক কারণ জানতে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন