কুমিল্লায় কিশোর গ্যাংয়ের কাণ্ড
jugantor
কুমিল্লায় কিশোর গ্যাংয়ের কাণ্ড

  কুমিল্লা ব্যুরো  

১২ আগস্ট ২০২২, ২২:৩৫:৫৭  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লায় খাবারের মূল্য চাওয়ায় একটি রেস্টুরেন্টে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করেছে কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা। শুক্রবার নগরীর ধর্মসাগর গেট সংলগ্ন পিজা কালজুন রেস্টুরেন্টে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

এ সময় উল্টো হোটেল মালিকের কাছে চাঁদা দাবি করা হয়। এতে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ রাব্বি নামের এক গ্যাং সদস্যকে আটক করেছে।

ভুক্তভোগী রেস্টুরেন্ট মালিক মো. শাহিদুজ্জামান বলেন, শুক্রবার সকালে তিন-চারজন কিশোর নাস্তা করে চলে যাওয়ার সময় খাবারের মূল্য চাইলে হুমকি দিয়ে উলটো আমার কাছে চাঁদা দাবি এবং গালমন্দ করে। একপর্যায়ে আরও কয়েকজন এসে তাদের সঙ্গে যুক্ত হয়ে দোকানের আসবাবপত্র ভাংচুর করে। তারা ক্যাশ কাউন্টারে ঢুকে আমাকে মারধর করে ৩ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় এবং আমাকে হত্যার হুমকি দেয়। এ সময় দোকানে থাকা কাস্টমাররা এগিয়ে আসলে রাব্বি নামের কিশোর ছুরি দেখিয়ে কাস্টমারদের গালাগাল করতে থাকে।

এ সময় পুলিশ এসে ঘটনাস্থল থেকে রাব্বিকে আটক করলেও বাকিরা পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলেও জানান শাহিদুজ্জামান।

নগরীর বেশ কয়েকজন বাসিন্দা অভিযোগ করে বলেন, ধর্মসাগরপাড় এলাকায় কিশোর গ্যাংয়ের দৌরাত্ম্য সবচেয়ে বেশি। দিনভর উঠতি বয়সের কিশোর-তরুণরা এখানে ইভটিজিং, মাদক, ছিনতাইয়ের মতো নানা অপকর্মে জড়িত থাকে। তাদের উৎপাতে এই এলাকায় চলাচল করা কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে। অভিযোগ রয়েছে, এসব গ্যাংয়ের সদস্যরা প্রায়ই দেশীয় অস্ত্র নিয়ে নিজেদের মধ্যে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

এ বিষয়ে কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সহিদুর রহমান বলেন, হোটেলে হামলার বিষয়টি তদন্ত করে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কুমিল্লায় কিশোর গ্যাংয়ের কাণ্ড

 কুমিল্লা ব্যুরো 
১২ আগস্ট ২০২২, ১০:৩৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লায় খাবারের মূল্য চাওয়ায় একটি রেস্টুরেন্টে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করেছে কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা। শুক্রবার নগরীর ধর্মসাগর গেট সংলগ্ন পিজা কালজুন রেস্টুরেন্টে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

এ সময় উল্টো হোটেল মালিকের কাছে চাঁদা দাবি করা হয়। এতে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ রাব্বি নামের এক গ্যাং সদস্যকে আটক করেছে।

ভুক্তভোগী রেস্টুরেন্ট মালিক মো. শাহিদুজ্জামান বলেন, শুক্রবার সকালে তিন-চারজন কিশোর নাস্তা করে চলে যাওয়ার সময় খাবারের মূল্য চাইলে হুমকি দিয়ে উলটো আমার কাছে চাঁদা দাবি এবং গালমন্দ করে। একপর্যায়ে আরও কয়েকজন এসে তাদের সঙ্গে যুক্ত হয়ে দোকানের আসবাবপত্র ভাংচুর করে। তারা ক্যাশ কাউন্টারে ঢুকে আমাকে মারধর করে ৩ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় এবং আমাকে হত্যার হুমকি দেয়। এ সময় দোকানে থাকা কাস্টমাররা এগিয়ে আসলে রাব্বি নামের কিশোর ছুরি দেখিয়ে কাস্টমারদের গালাগাল করতে থাকে।

এ সময় পুলিশ এসে ঘটনাস্থল থেকে রাব্বিকে আটক করলেও বাকিরা পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলেও জানান শাহিদুজ্জামান।

নগরীর বেশ কয়েকজন বাসিন্দা অভিযোগ করে বলেন, ধর্মসাগরপাড় এলাকায় কিশোর গ্যাংয়ের দৌরাত্ম্য সবচেয়ে বেশি। দিনভর উঠতি বয়সের কিশোর-তরুণরা এখানে ইভটিজিং, মাদক, ছিনতাইয়ের মতো নানা অপকর্মে জড়িত থাকে। তাদের উৎপাতে এই এলাকায় চলাচল করা কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে। অভিযোগ রয়েছে, এসব গ্যাংয়ের সদস্যরা প্রায়ই দেশীয় অস্ত্র নিয়ে নিজেদের মধ্যে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

এ বিষয়ে কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সহিদুর রহমান বলেন, হোটেলে হামলার বিষয়টি তদন্ত করে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন