মেলায় গিয়ে ধর্ষণের শিকার শিশু, গ্রেফতার ১
jugantor
মেলায় গিয়ে ধর্ষণের শিকার শিশু, গ্রেফতার ১

  সিংগাইর প্রতিনিধি  

১৩ আগস্ট ২০২২, ০৬:০২:৩৪  |  অনলাইন সংস্করণ

মানিকগঞ্জের সিংগাইরে মা-বাবার সাথে গ্রাম্য মেলায় ঘুরতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছে ১৩ বছরের এক শিশু। বৃহস্পতিবার রাতে এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

শুক্রবার সিংগাইর থানায় ধল্লা পুলিশ ফাঁড়িতে অভিযোগ করা হলে পুলিশ বিকালেই অভিযুক্ত শরিফ মিয়াকে (২২) গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃত শরিফ মিয়ার বাড়িউপজেলার খাসেরচর গ্রামে। সে ওই গ্রামের মো. শহিদুল্লাহর ছেলে।

পুলিশ ও নির্যাতিত শিশুটির মা জানায়, উপজেলার খাসের চর এলাকায় সাবেক ইউপি সদস্য আরিফের বাড়িতে আশুরা উপলক্ষে চার দিনব্যাপী গ্রামীণ মেলা বসেছে। সেই মেলায় দোকান বসিয়েছেন শিশুটির বাবা। আসামী শরিফ মিয়া একজন চা বিক্রেতা।

বৃহস্পতিবার রাতে শিশুটি তার মা-বাবার কাছ থেকে একটু দূরে গেলে শরিফ তাকে ফুঁসলিয়ে পাশের পেঁপে বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে। সারারাত পেঁপে বাগানেই আটকে রাখে শিশুটিকে। রাতভর তার স্বজনরা অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান পায়নি।

শুক্রবার ভোরে শিশুটি ফিরে এসে জানায় শরিফ তাকে জোরপুর্বক ধর্ষণ করেছে। প্রথমে আপোষ মীমাংসার নামে ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করে স্থানীয় মাতবররা। পরে ধল্লা ফাঁড়ি পুলিশ বিষয়টি জানার পর ভিকটিমকে উদ্ধারসহ অভিযুক্ত শরিফকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে সিংগাইর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুল ইসলাম মোল্যা যুগান্তরকে জানান, এঘটনায় শিশুটির বাবা বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। শনিবার আসামী শরিফ মিয়াকে আদালতে পাঠানো হবে। জেলা সদর হাসপাতালে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য শিশুটিকে পাঠানো হবে।

মেলায় গিয়ে ধর্ষণের শিকার শিশু, গ্রেফতার ১

 সিংগাইর প্রতিনিধি 
১৩ আগস্ট ২০২২, ০৬:০২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মানিকগঞ্জের সিংগাইরে মা-বাবার সাথে গ্রাম্য মেলায় ঘুরতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছে ১৩ বছরের এক শিশু। বৃহস্পতিবার রাতে এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

শুক্রবার সিংগাইর থানায় ধল্লা পুলিশ ফাঁড়িতে অভিযোগ করা হলে পুলিশ বিকালেই অভিযুক্ত শরিফ মিয়াকে (২২) গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃত শরিফ মিয়ার বাড়ি উপজেলার খাসেরচর গ্রামে। সে ওই গ্রামের মো. শহিদুল্লাহর ছেলে।

পুলিশ ও নির্যাতিত শিশুটির মা জানায়, উপজেলার খাসের চর এলাকায় সাবেক ইউপি সদস্য আরিফের বাড়িতে আশুরা উপলক্ষে চার দিনব্যাপী গ্রামীণ মেলা বসেছে। সেই মেলায় দোকান বসিয়েছেন শিশুটির বাবা। আসামী শরিফ মিয়া একজন চা বিক্রেতা। 

বৃহস্পতিবার রাতে শিশুটি তার মা-বাবার কাছ থেকে একটু দূরে গেলে শরিফ তাকে ফুঁসলিয়ে পাশের পেঁপে বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে। সারারাত পেঁপে বাগানেই আটকে রাখে শিশুটিকে। রাতভর তার স্বজনরা অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান পায়নি।

শুক্রবার ভোরে শিশুটি ফিরে এসে জানায় শরিফ তাকে জোরপুর্বক ধর্ষণ করেছে। প্রথমে আপোষ মীমাংসার নামে ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করে স্থানীয় মাতবররা। পরে ধল্লা ফাঁড়ি পুলিশ বিষয়টি জানার পর ভিকটিমকে উদ্ধারসহ অভিযুক্ত শরিফকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে সিংগাইর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুল ইসলাম মোল্যা যুগান্তরকে জানান, এঘটনায় শিশুটির বাবা বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। শনিবার আসামী শরিফ মিয়াকে আদালতে পাঠানো হবে। জেলা সদর হাসপাতালে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য শিশুটিকে পাঠানো হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন