বঙ্গবন্ধু বিশ্বনেতা, তার মৃত্যু নেই: তোফায়েল আহমেদ
jugantor
বঙ্গবন্ধু বিশ্বনেতা, তার মৃত্যু নেই: তোফায়েল আহমেদ

  ভোলা প্রতিনিধি  

১৬ আগস্ট ২০২২, ০২:৪৪:৫৭  |  অনলাইন সংস্করণ

বঙ্গবন্ধুকে বিশ্বনেতা উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক তোফায়েল আহমেদ বলেন, বঙ্গবন্ধুর মতো বিশ্বনেতার মৃত্যু হয় না। যতদিন বাংলাদেশ থাকবে, যতদিন বিশ্ব থাকবে, ততদিন বিশ্বনেতা বেঁচে থাকবেন। তার জন্ম না হলে আমরা আজও পাকিস্তানের দাসত্বের করাল গ্রাসে থাকতাম।

জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জাতীয় শোক দিবসের দুই দিনের কর্মসূচির শেষ দিনে সোমবার দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বঙ্গবন্ধুর একান্ত সহচর তোফায়েল আহমেদ।

ঢাকা থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে তিনি শোকাচ্ছন্ন কণ্ঠে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্ব বিষয়ে স্মৃতিচারণ করেন।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, আজকের এই বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশ ও আওয়ামী লীগ একই সুতায় গাঁথা। বঙ্গবন্ধু ইতিহাসের মহান নেতা। তিনি পৃথিবীর যেখানেই গিয়েছেন, সমাদৃত হয়েছেন। সেখানেই তিনি মানুষের ভালোবাসা পেয়েছেন। তিনি না হলে বাঙালি জাতি আজও পাকিস্তানের দাসত্বে আটকে থাকত।

দলের বর্ষীয়ান নেতা তোফায়েল আহমেদ বলেন, ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুর মৃত্যু হয়নি। যতদিন বাংলাদেশ থাকবে ততদিন জাতির পিতা হিসেবেই মানুষের হৃদয়ের মণিকোঠায় বিরাজ করবেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

এ সময় তিনি বঙ্গবন্ধুর দ্বিতীয় স্বপ্ন সোনার বাংলা গড়ার বিষয় তুলে বলেন, ১৯৮১ সালে বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার হাতে আমরা দলীয় পতাকা তুলে দিতে পেরেছি। আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলিষ্ঠ নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে।

এ সময় জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ফজলুল কাদের মজনুর সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন- জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল মমিন টুলু, সাধারণ সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লব, সাবেক সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক জহুরুল ইসলাম নকিব, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক এনামুল হক আরজু, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ডেপুটি কমান্ডার মো. সফিকুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল ইসলাম, পৌর আওয়ামী লীগ সম্পাদক শাহ আলী নেওয়াজ পলাশ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আবু ছায়েম, ছাত্রলীগ সভাপতি রাইহান আহমেদ প্রমুখ।

পরে ১৩ ইউনিয়ন জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ, দলের সহযোগী সংগঠনের পৃথক পৃথক ব্যানারে কয়েক হাজার নেতাকর্মীর অংশগ্রহণে শোক র্যালি শহর প্রদক্ষিণ করে। দুপুরে দুই হাজার দরিদ্র পরিবারের সদস্যসহ ৫ হাজার দলীয় নেতাকর্মীর জন্য ছিল মধ্যাহ্নভোজের আয়োজন।

বঙ্গবন্ধু বিশ্বনেতা, তার মৃত্যু নেই: তোফায়েল আহমেদ

 ভোলা প্রতিনিধি 
১৬ আগস্ট ২০২২, ০২:৪৪ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বঙ্গবন্ধুকে বিশ্বনেতা উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক তোফায়েল আহমেদ বলেন, বঙ্গবন্ধুর মতো বিশ্বনেতার মৃত্যু হয় না। যতদিন বাংলাদেশ থাকবে, যতদিন বিশ্ব থাকবে, ততদিন বিশ্বনেতা বেঁচে থাকবেন। তার জন্ম না হলে আমরা আজও পাকিস্তানের দাসত্বের করাল গ্রাসে থাকতাম।

জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জাতীয় শোক দিবসের দুই দিনের কর্মসূচির শেষ দিনে সোমবার দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বঙ্গবন্ধুর একান্ত সহচর তোফায়েল আহমেদ।

ঢাকা থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে তিনি শোকাচ্ছন্ন কণ্ঠে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্ব বিষয়ে স্মৃতিচারণ করেন।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, আজকের এই বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশ ও আওয়ামী লীগ একই সুতায় গাঁথা। বঙ্গবন্ধু ইতিহাসের মহান নেতা। তিনি পৃথিবীর যেখানেই গিয়েছেন, সমাদৃত হয়েছেন। সেখানেই তিনি মানুষের ভালোবাসা পেয়েছেন। তিনি না হলে বাঙালি জাতি আজও পাকিস্তানের দাসত্বে আটকে থাকত।

দলের বর্ষীয়ান নেতা তোফায়েল আহমেদ বলেন, ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুর মৃত্যু হয়নি। যতদিন বাংলাদেশ থাকবে ততদিন জাতির পিতা হিসেবেই মানুষের হৃদয়ের মণিকোঠায় বিরাজ করবেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

এ সময় তিনি বঙ্গবন্ধুর দ্বিতীয় স্বপ্ন সোনার বাংলা গড়ার বিষয় তুলে বলেন, ১৯৮১ সালে বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার হাতে আমরা দলীয় পতাকা তুলে দিতে পেরেছি। আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলিষ্ঠ নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে।

এ সময় জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ফজলুল কাদের মজনুর সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন- জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল মমিন টুলু, সাধারণ সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লব, সাবেক সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক জহুরুল ইসলাম নকিব, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক এনামুল হক আরজু, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ডেপুটি কমান্ডার মো. সফিকুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল ইসলাম, পৌর আওয়ামী লীগ সম্পাদক শাহ আলী নেওয়াজ পলাশ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আবু ছায়েম, ছাত্রলীগ সভাপতি রাইহান আহমেদ প্রমুখ।

পরে ১৩ ইউনিয়ন জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ, দলের সহযোগী সংগঠনের পৃথক পৃথক ব্যানারে কয়েক হাজার নেতাকর্মীর অংশগ্রহণে শোক র্যালি শহর প্রদক্ষিণ করে। দুপুরে দুই হাজার দরিদ্র পরিবারের সদস্যসহ ৫ হাজার দলীয় নেতাকর্মীর জন্য ছিল মধ্যাহ্নভোজের আয়োজন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন