যাত্রীবাহী লঞ্চে জন্ম হল নবজাতকের
jugantor
যাত্রীবাহী লঞ্চে জন্ম হল নবজাতকের

  বরিশাল ব্যুরো  

১৯ আগস্ট ২০২২, ০৩:১৫:৪১  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকা থেকে বরিশালগামী এমভি প্রিন্স আওলাদ-১০ লঞ্চে ছেলে সন্তানের জন্ম দিয়েছেন এক প্রসূতি।

বৃহস্পতিবার রাত ১টার দিকে লঞ্চটির ডেকে এক ধাত্রীর সহায়তায় সন্তানটি ভূমিষ্ঠ হয়।বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন প্রিন্স আওলাদ লঞ্চের সুপারভাইজার হৃদয় খান।

তিনি বলেন, ওই নারীর বাড়ি বরিশালের গুড়িয়ার পাড়ে। সঙ্গে তার দু’জন স্বজন রয়েছেন। তবে স্বামী ছিলেন না। আমরা জেনেছি তার সন্তান প্রসবের নির্ধারিত সময় ছিল আরো ২২ দিন পরে। এই প্রস্তুতি নিয়েই মূলত তিনি স্বজনদের নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। কিন্তু লঞ্চে ওঠার পরে অসুস্থ হয়ে পড়েন।

ঢাকা সদরঘাট ত্যাগ করার পরে রাত সাড়ে ৯টার দিকে ওই মায়ের প্রসব বেদনা ওঠে। আমরা তাকে কেবিনে নিয়ে যেতে চেয়েছিলাম। কিন্তু সিঁড়ি বেয়ে উপরে তোলা সম্ভব না বলে পরিবারের স্বজনরা সিদ্ধান্ত নেন ডেকে রাখতে।

হৃদয় খান বলেন, প্রথমাবস্থায় লঞ্চে কোন ডাক্তার বা নার্স পাওয়া যাচ্ছিল না। একজন ধাত্রী সহায়তার জন্য এগিয়ে আসেন। যদিও পরে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের একজন নার্সকে আমরা পাই। রাত ১টার দিকে নরমাল ডেলিভারির মাধ্যমে পুত্র সন্তানের জন্ম দেন ওই প্রসূতি।

যাত্রীবাহী লঞ্চে জন্ম হল নবজাতকের

 বরিশাল ব্যুরো 
১৯ আগস্ট ২০২২, ০৩:১৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকা থেকে বরিশালগামী এমভি প্রিন্স আওলাদ-১০ লঞ্চে ছেলে সন্তানের জন্ম দিয়েছেন এক প্রসূতি। 

বৃহস্পতিবার রাত ১টার দিকে লঞ্চটির ডেকে এক ধাত্রীর সহায়তায় সন্তানটি ভূমিষ্ঠ হয়।বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন প্রিন্স আওলাদ লঞ্চের সুপারভাইজার হৃদয় খান। 

তিনি বলেন, ওই নারীর বাড়ি বরিশালের গুড়িয়ার পাড়ে। সঙ্গে তার দু’জন স্বজন রয়েছেন। তবে স্বামী ছিলেন না। আমরা জেনেছি তার সন্তান প্রসবের নির্ধারিত সময় ছিল আরো ২২ দিন পরে। এই প্রস্তুতি নিয়েই মূলত তিনি স্বজনদের নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। কিন্তু লঞ্চে ওঠার পরে অসুস্থ হয়ে পড়েন।

ঢাকা সদরঘাট ত্যাগ করার পরে রাত সাড়ে ৯টার দিকে ওই মায়ের প্রসব বেদনা ওঠে। আমরা তাকে কেবিনে নিয়ে যেতে চেয়েছিলাম। কিন্তু সিঁড়ি বেয়ে উপরে তোলা সম্ভব না বলে পরিবারের স্বজনরা সিদ্ধান্ত নেন ডেকে রাখতে।

হৃদয় খান বলেন, প্রথমাবস্থায় লঞ্চে কোন ডাক্তার বা নার্স পাওয়া যাচ্ছিল না। একজন ধাত্রী সহায়তার জন্য এগিয়ে আসেন। যদিও পরে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের একজন নার্সকে আমরা পাই। রাত ১টার দিকে নরমাল ডেলিভারির মাধ্যমে পুত্র সন্তানের জন্ম দেন ওই প্রসূতি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন