ধামরাইয়ে ৫ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ, অভিযুক্ত যুবক গ্রেফতার
jugantor
ধামরাইয়ে ৫ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ, অভিযুক্ত যুবক গ্রেফতার

  ধামারই (ঢাকা) প্রতিনিধি  

১৯ আগস্ট ২০২২, ১১:০০:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকার ধামরাই পৌরশহরের ছোট চন্দ্রআইল মহল্লায় পঞ্চম শ্রেণির স্কুলছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত ধর্ষক আরফান আলী গ্রেফতার হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাত ৭টার দিকে ধামরাই থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

এর আগে ওই স্কুলছাত্রী ধর্ষণে সহায়তাকারী সালমা সুন্দরীকে পুলিশ গ্রেফতার করে সোমবার রাতে। ওই দিন ধর্ষক আরফান আলী গ্রেফতার এড়াতে পালিয়ে গিয়ে সাভার এলাকায় আত্মগোপন করে বলে জানা যায়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ধামরাই পৌরশহরের ছোট চন্দ্রইল মহল্লার সালমা সুন্দরী তার বাসভবনে সোমবার বিকালে ওই স্কুলছাত্রীকে কৌশলে ডেকে আনে।

এর পর ধর্ষক আরফান আলীর কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিয়ে ধর্ষণের সুযোগ সৃষ্টি করে দেয়। ধর্ষক ওই স্কুলছাত্রীর শত আকুতি উপেক্ষা করে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণ করে। এতে সে রক্তাক্ত জখম হয়ে যায়। তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন।

এলাকাবাসী তাৎক্ষণিকভাবে ধামরাই থানার অফিসার ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মো. আতিকুর রহমান আতিককে অবহিত করলে ধামরাই থানা পুলিশের এসআই মো. আব্দুল জব্বার সঙ্গীয় ফোর্সসহ মক্ষিরানি সালমা সুন্দরীকে গ্রেফতার করে। পুলিশের গতিবিধি টের পেয়ে ধর্ষক আরফান পালিয়ে যায়।

এর পর এসআই আব্দুল জব্বার গোপন খবরের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ধর্ষক আরফান আলীকে বৃহস্পতিবার রাত ৭টার দিকে সাভারের আশুলিয়া থানার নয়ারহাট বাজারের একটি খাবার হোটেল থেকে গ্রেফতার করে। তাকে ব্যাপক পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে আদালতে পাঠানো হবে বলে নিশ্চিত করেছে ধামরাই থানার পুলিশ।

এ বিষয়ে এসআই মো. আব্দুল জব্বার বলেন, স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণে সহায়তাকারীকে ঘটনার দিনই গ্রেফতার করা হয়। ধর্ষক পালিয়ে গিয়েও শেষ রক্ষা পায়নি। তাকেও শেষ পর্যন্ত গ্রেফতার করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে আদালতে পাঠানো হবে।

ধামরাইয়ে ৫ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ, অভিযুক্ত যুবক গ্রেফতার

 ধামারই (ঢাকা) প্রতিনিধি 
১৯ আগস্ট ২০২২, ১১:০০ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকার ধামরাই পৌরশহরের ছোট চন্দ্রআইল মহল্লায় পঞ্চম শ্রেণির স্কুলছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত ধর্ষক আরফান আলী গ্রেফতার হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার রাত ৭টার দিকে ধামরাই থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। 

এর আগে ওই স্কুলছাত্রী ধর্ষণে সহায়তাকারী সালমা সুন্দরীকে পুলিশ গ্রেফতার করে সোমবার রাতে। ওই দিন ধর্ষক আরফান আলী গ্রেফতার এড়াতে পালিয়ে গিয়ে সাভার এলাকায় আত্মগোপন করে বলে জানা যায়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ধামরাই পৌরশহরের ছোট চন্দ্রইল মহল্লার সালমা সুন্দরী তার বাসভবনে সোমবার বিকালে ওই স্কুলছাত্রীকে কৌশলে ডেকে আনে।

এর পর ধর্ষক আরফান আলীর কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিয়ে ধর্ষণের সুযোগ সৃষ্টি করে দেয়। ধর্ষক ওই স্কুলছাত্রীর শত আকুতি উপেক্ষা করে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণ করে। এতে সে রক্তাক্ত জখম হয়ে যায়। তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন।

এলাকাবাসী তাৎক্ষণিকভাবে ধামরাই থানার অফিসার ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মো. আতিকুর রহমান আতিককে অবহিত করলে ধামরাই থানা পুলিশের এসআই মো. আব্দুল জব্বার সঙ্গীয় ফোর্সসহ মক্ষিরানি সালমা সুন্দরীকে গ্রেফতার করে। পুলিশের গতিবিধি টের পেয়ে ধর্ষক আরফান পালিয়ে যায়।

এর পর এসআই আব্দুল জব্বার গোপন খবরের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ধর্ষক আরফান আলীকে বৃহস্পতিবার রাত ৭টার দিকে সাভারের আশুলিয়া থানার নয়ারহাট বাজারের একটি খাবার হোটেল থেকে গ্রেফতার করে। তাকে ব্যাপক পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে আদালতে পাঠানো হবে বলে নিশ্চিত করেছে ধামরাই থানার পুলিশ।

এ বিষয়ে এসআই মো. আব্দুল জব্বার বলেন, স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণে সহায়তাকারীকে ঘটনার দিনই গ্রেফতার করা হয়। ধর্ষক পালিয়ে গিয়েও শেষ রক্ষা পায়নি। তাকেও শেষ পর্যন্ত গ্রেফতার করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে আদালতে পাঠানো হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন