বঙ্গোপসাগরে ট্রলারডুবি, ৩ জেলের লাশ উদ্ধার
jugantor
বঙ্গোপসাগরে ট্রলারডুবি, ৩ জেলের লাশ উদ্ধার

  হাতিয়া (নোয়াখালী) প্রতিনিধি  

১৯ আগস্ট ২০২২, ২২:১৮:০১  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ায় বঙ্গোপসাগরে একটি ট্রলারডুবির ঘটনা ঘটেছে।

এ সময় ট্রলারে থাকা ১২ জেলেকে জীবিত এবং এ পর্যন্ত তিন জেলের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে এখনো এক জেলে নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানা গেছে।

নিহত জেলেদের দুজন হচ্ছেন- জাহাজমারা ইউনিয়নের আমতলি গ্রামের বাসিন্দা মাইন উদ্দিন (৪৫), নতুন সুখচর গ্রামের বাসিন্দা মো. রাফুল (২৫) এবং একজনের পরিচয় এখনো জানা যায়নি। নিখোঁজ রয়েছেন আরও একজন।

শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে নিঝুম দ্বীপ ইউনিয়নের ১০ কিলোমিটার দক্ষিণের দমারচর এলাকায় মাছ ধরার ট্রলারটি ডুবে যায়।

জানা যায়, নেছার মাঝির ফিশিং ট্রলার ১৬ জন মাঝিমাল্লা নিয়ে মাছ ধরার জন্য নিঝুম দ্বীপ ইউনিয়নের ১০ কিলোমিটার দক্ষিণের দমারচর এলাকায় পৌঁছলে বৈরী আবহাওয়ার কারণে ট্রলারটি ডুবে যায়। পরে পার্শ্ববর্তী ট্রলার, নৌ পুলিশ ও কোস্টগার্ড অভিযান পরিচালনা করে ট্রলারে থাকা ১২ জেলেকে জীবিত এবং তিন জেলের মরদেহ উদ্ধার করে। তবে এখনো এক জেলে নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানা গেছে।

নিঝুম দ্বীপ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুরুল আফছার দিনাজ বলেন, এসব জেলেদের বাড়ি হাতিয়ায়। এর মধ্যে মৃতদের বাড়ি নিঝুম দ্বীপে। নিহতের পরিবারে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। তাদের স্বজনরা ঘাটে অবস্থান করছেন।

কোস্টগার্ড দক্ষিণ জোনের মিডিয়া কর্মকর্তা কেএম শাফিউল কিঞ্জন বলেন, কোস্টগার্ডের একটি টিমের উদ্ধার অভিযান চলছে। তারা ঘটনাস্থলে রয়েছেন। অভিযান শেষ হলে বিস্তারিত জানা যাবে।

বঙ্গোপসাগরে ট্রলারডুবি, ৩ জেলের লাশ উদ্ধার

 হাতিয়া (নোয়াখালী) প্রতিনিধি 
১৯ আগস্ট ২০২২, ১০:১৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ায় বঙ্গোপসাগরে একটি ট্রলারডুবির ঘটনা ঘটেছে। 

এ সময় ট্রলারে থাকা ১২ জেলেকে জীবিত এবং এ পর্যন্ত তিন জেলের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে এখনো এক জেলে নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানা গেছে।

নিহত জেলেদের দুজন হচ্ছেন- জাহাজমারা ইউনিয়নের আমতলি গ্রামের বাসিন্দা মাইন উদ্দিন (৪৫), নতুন সুখচর গ্রামের বাসিন্দা মো. রাফুল (২৫) এবং একজনের পরিচয় এখনো জানা যায়নি। নিখোঁজ রয়েছেন আরও একজন।

শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে নিঝুম দ্বীপ ইউনিয়নের ১০ কিলোমিটার দক্ষিণের দমারচর এলাকায় মাছ ধরার ট্রলারটি ডুবে যায়। 

জানা যায়, নেছার মাঝির ফিশিং ট্রলার ১৬ জন মাঝিমাল্লা নিয়ে মাছ ধরার জন্য নিঝুম দ্বীপ ইউনিয়নের ১০ কিলোমিটার দক্ষিণের দমারচর এলাকায় পৌঁছলে বৈরী আবহাওয়ার কারণে ট্রলারটি ডুবে যায়। পরে পার্শ্ববর্তী ট্রলার, নৌ পুলিশ ও কোস্টগার্ড অভিযান পরিচালনা করে ট্রলারে থাকা ১২ জেলেকে জীবিত এবং তিন জেলের মরদেহ উদ্ধার করে। তবে এখনো এক জেলে নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানা গেছে।

নিঝুম দ্বীপ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুরুল আফছার দিনাজ বলেন, এসব জেলেদের বাড়ি হাতিয়ায়। এর মধ্যে মৃতদের বাড়ি নিঝুম দ্বীপে।  নিহতের পরিবারে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। তাদের স্বজনরা ঘাটে অবস্থান করছেন।

কোস্টগার্ড দক্ষিণ জোনের মিডিয়া কর্মকর্তা কেএম শাফিউল কিঞ্জন বলেন, কোস্টগার্ডের একটি টিমের উদ্ধার অভিযান চলছে। তারা ঘটনাস্থলে রয়েছেন। অভিযান শেষ হলে বিস্তারিত জানা যাবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন