১১ দিন পর কলেজছাত্রের লাশ উদ্বার
jugantor
১১ দিন পর কলেজছাত্রের লাশ উদ্বার

  নাগরপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি  

১৯ আগস্ট ২০২২, ২২:৩৭:০১  |  অনলাইন সংস্করণ

টাঙ্গাইলের নাগরপুরে নিখোঁজের ১১ দিন পর কলেজছাত্র আরিফ মিয়ার (২১) লাশ উদ্বার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার বিকালে মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার তিল্লী ব্রিজের নিচ থেকে তার লাশ উদ্বার করা হয়। লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নাগরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. সাজ্জাদ হোসেন।

আরিফ নাগরপুর সদর ইউনিয়নের নঙ্গিনাবাড়ি গ্রামের সৌদি প্রবাসী মো. হোসেন মিয়ার ছেলে ও টাঙ্গাইল এমএম আলী কলেজের বিএ (অনার্স) প্রথম বর্ষের ছাত্র।

এ ব্যাপারে নাগরপুর থানায় নিখোঁজের দুই দিন পর নিহতের চাচা মো. হাসান মিয়া থানায় গিয়ে সাধারণ ডায়েরি করেন।

পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ৮ আগস্ট দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আরিফ নিজের বাইক (পালসার ডাবল ডিক্স) নিয়ে চাচাতো ভাই জাহাঙ্গীরের সাথে বাড়ি থেকে টাঙ্গাইলের উদ্দেশে বের হয়ে যান। ওই দিন বিকালে জাহাঙ্গীর একা বাড়ি ফিরে আসেন। বাড়ির লোকজন তার কাছে আরিফের কথা জানতে চাইলে বিভিন্ন তালবাহানা করে একেক সময় একেক তথ্য দিয়ে পরিবারকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করেন। অবশেষে দুই দিন পেরিয়ে গেলেও আরিফের কোনো সন্ধান না পেয়ে ১০ আগস্ট নাগরপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়।

১১ দিন পর কলেজছাত্রের লাশ উদ্বার

 নাগরপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি 
১৯ আগস্ট ২০২২, ১০:৩৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

টাঙ্গাইলের নাগরপুরে নিখোঁজের ১১ দিন পর কলেজছাত্র আরিফ মিয়ার (২১) লাশ উদ্বার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার বিকালে মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার তিল্লী ব্রিজের নিচ থেকে তার লাশ উদ্বার করা হয়। লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নাগরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. সাজ্জাদ হোসেন। 

আরিফ নাগরপুর সদর ইউনিয়নের নঙ্গিনাবাড়ি গ্রামের সৌদি প্রবাসী মো.  হোসেন মিয়ার ছেলে ও টাঙ্গাইল এমএম আলী কলেজের বিএ (অনার্স) প্রথম বর্ষের ছাত্র। 

এ ব্যাপারে নাগরপুর থানায় নিখোঁজের দুই দিন পর নিহতের চাচা মো. হাসান মিয়া থানায় গিয়ে সাধারণ ডায়েরি করেন। 

পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ৮ আগস্ট দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আরিফ নিজের বাইক (পালসার ডাবল ডিক্স) নিয়ে চাচাতো ভাই জাহাঙ্গীরের সাথে বাড়ি থেকে টাঙ্গাইলের উদ্দেশে বের হয়ে যান। ওই দিন বিকালে জাহাঙ্গীর একা বাড়ি ফিরে আসেন। বাড়ির লোকজন তার কাছে আরিফের কথা জানতে চাইলে বিভিন্ন তালবাহানা করে একেক সময় একেক তথ্য দিয়ে পরিবারকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করেন। অবশেষে দুই দিন পেরিয়ে গেলেও আরিফের কোনো সন্ধান না পেয়ে ১০ আগস্ট নাগরপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন