পড়ালেখা করতে না পেরে পোশাক শ্রমিকের আত্মহত্যার অভিযোগ
jugantor
পড়ালেখা করতে না পেরে পোশাক শ্রমিকের আত্মহত্যার অভিযোগ

  শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি  

২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২২:৪৭:২১  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুরের শ্রীপুরে পড়ালেখায় বাবার অসম্মতি থাকায় অভিমানে নাজিম মোল্লা নামের এক যুবক আত্মহত্যা করেছেন। নিহত যুবক স্থানীয় একটি পোশাক প্রস্তত কারখানার শ্রমিক।

শুক্রবার দুপুরে শ্রীপুর পৌর এলাকার কেওয়া পূর্ব খন্ড গ্রামের কাজিম উদ্দিনের ভাড়া বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। নাজিম মোল্লা গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানি থানার বেথুড়ী গ্রামের পান্নু মোল্লার ছেলে। সে কাজিম উদ্দিনের বাড়িতে ভাড়া থেকে পাশ্ববর্তী ফখরুদ্দিন টেক্সটাইল মিলস্ নামের একটি কারখানায় কোয়ালিটি পদে চাকরি করতেন।

যুবকের চাচা হুমায়ুন আহমেদ জানান, নাজিম মোল্লা অত্যন্ত মেধাবী ছিল। সে পড়ালেখায় বেশ আগ্রহী ছিল। মাস দুয়েক আগে তার বাবা তাকে পড়ালেখা না করানোর কথা জানায়। এতে সে হতাশায় ভেঙে পড়ে। তাকে চাকরি করানোর জন্য আমার কাছে পাঠানো হয়। আমি তাকে শ্রীপুরের ফখরুদ্দিন টেক্সটাইল মিলে কোয়ালিটি পদে চাকরির ব্যবস্থা করে দেই। পড়ালেখা না করতে পেরে সে আত্মহত্যা করেছে।

শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক হাবিবুর রহমান জানান, স্বজনদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, নাজিম পড়ালেখা করতে চাচ্ছিল কিন্তু পরিবার তাতে অসম্মতি জানিয়েছিল। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে এ কারণেই সে আত্মহত্যা করতে পারে। নিহতের পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিত্রে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পড়ালেখা করতে না পেরে পোশাক শ্রমিকের আত্মহত্যার অভিযোগ

 শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি 
২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুরের শ্রীপুরে পড়ালেখায় বাবার অসম্মতি থাকায় অভিমানে নাজিম মোল্লা নামের এক যুবক আত্মহত্যা করেছেন। নিহত যুবক স্থানীয় একটি পোশাক প্রস্তত কারখানার শ্রমিক।

শুক্রবার দুপুরে শ্রীপুর পৌর এলাকার কেওয়া পূর্ব খন্ড গ্রামের কাজিম উদ্দিনের ভাড়া বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। নাজিম মোল্লা গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানি থানার বেথুড়ী গ্রামের পান্নু মোল্লার ছেলে। সে কাজিম উদ্দিনের বাড়িতে ভাড়া থেকে পাশ্ববর্তী ফখরুদ্দিন টেক্সটাইল মিলস্ নামের একটি কারখানায় কোয়ালিটি পদে চাকরি করতেন।

যুবকের চাচা হুমায়ুন আহমেদ জানান, নাজিম মোল্লা অত্যন্ত মেধাবী ছিল। সে পড়ালেখায় বেশ আগ্রহী ছিল। মাস দুয়েক আগে তার বাবা তাকে পড়ালেখা না করানোর কথা জানায়। এতে সে হতাশায় ভেঙে পড়ে। তাকে চাকরি করানোর জন্য আমার কাছে পাঠানো হয়। আমি তাকে শ্রীপুরের ফখরুদ্দিন টেক্সটাইল মিলে কোয়ালিটি পদে চাকরির ব্যবস্থা করে দেই। পড়ালেখা না করতে পেরে সে আত্মহত্যা করেছে।

শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক হাবিবুর রহমান জানান, স্বজনদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, নাজিম পড়ালেখা করতে চাচ্ছিল কিন্তু পরিবার তাতে অসম্মতি জানিয়েছিল। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে এ কারণেই সে আত্মহত্যা করতে পারে। নিহতের পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিত্রে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন