সেই চেয়ারম্যানসহ ৫ জনের ডিএনএ টেস্ট
jugantor
সেই চেয়ারম্যানসহ ৫ জনের ডিএনএ টেস্ট

  কাপাসিয়া (গাজীপুর) প্রতিনিধি  

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০০:৪৭:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুরের কাপাসিয়া সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন প্রধানের বিরুদ্ধে কাজের মেয়েকে ধর্ষণ, সন্তান প্রসব, নবজাতক ও তার মাকে অপহরণের ঘটনায় করা মামলায় মোট ৫ জনের ডিএনএ টেস্ট সম্পন্ন করেছে গাজীপুর পিবিআই।

সোমবার পিবিআই গাজীপুরের পরিদর্শক ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তদন্ত কর্মকর্তা বলেন, অভিযুক্ত সাখাওয়াত চেয়ারম্যান, একই পরিষদের মেম্বার তার ভাই ও কথিত স্বামী কাজের লোক রুহিত হোসেন এবং মামলার ভিকটিম ও নবজাতকের ডিএনএ টেস্ট সম্পন্ন করা হয়েছে। সোমবার সিআইডি ঢাকার ল্যাবে এই টেস্ট সম্পন্ন হয়। আদালতের নির্দেশে ওই ৫ জনের ডিএনএ টেস্ট করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি কাপাসিয়া সদর ইউনিয়নের বিতর্কিত চেয়ারম্যান সাখাওয়াতের বিরুদ্ধে গৃহকর্মীকে ধর্ষণ এবং পরবর্তী কন্যাসন্তানসহ ভিকটিম ওই গৃহকর্ত্রীকে অপহরণের অভিযোগ উঠে।

ভুক্তভোগী পরিবারের দাবি, চেয়ারম্যান সাখাওয়াতের প্রভাবে থানা পুলিশও মামলা নেয়নি। পরে ভুক্তভোগী আদালতে মামলা করলে আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে পিবিআই গাজীপুরকে তদন্তের নির্দেশ দেন। এ অবস্থায় মামলার বাদী চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন।

এ বিষয়ে গাজীপুরের পিবিআই পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাকছুদের রহমান যুগান্তরকে জানান, কথিত স্বামী কাজের লোক এতদিন পলাতক ছিল। তাকে আটক করে সোমবার চেয়ারম্যান ও তার ভাইসহ ঢাকার সিআইডি ল্যাবে টেস্ট নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

সেই চেয়ারম্যানসহ ৫ জনের ডিএনএ টেস্ট

 কাপাসিয়া (গাজীপুর) প্রতিনিধি 
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:৪৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুরের কাপাসিয়া সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন প্রধানের বিরুদ্ধে কাজের মেয়েকে ধর্ষণ, সন্তান প্রসব, নবজাতক ও তার মাকে অপহরণের ঘটনায় করা মামলায় মোট ৫ জনের ডিএনএ টেস্ট সম্পন্ন করেছে গাজীপুর পিবিআই।

সোমবার পিবিআই গাজীপুরের পরিদর্শক ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তদন্ত কর্মকর্তা বলেন, অভিযুক্ত সাখাওয়াত চেয়ারম্যান, একই পরিষদের মেম্বার তার ভাই ও কথিত স্বামী কাজের লোক রুহিত হোসেন এবং মামলার ভিকটিম ও নবজাতকের ডিএনএ টেস্ট সম্পন্ন করা হয়েছে। সোমবার সিআইডি ঢাকার ল্যাবে এই টেস্ট সম্পন্ন হয়। আদালতের নির্দেশে ওই ৫ জনের ডিএনএ টেস্ট করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি কাপাসিয়া সদর ইউনিয়নের বিতর্কিত চেয়ারম্যান সাখাওয়াতের বিরুদ্ধে গৃহকর্মীকে ধর্ষণ এবং পরবর্তী কন্যাসন্তানসহ ভিকটিম ওই গৃহকর্ত্রীকে অপহরণের অভিযোগ উঠে।

ভুক্তভোগী পরিবারের দাবি, চেয়ারম্যান সাখাওয়াতের প্রভাবে থানা পুলিশও মামলা নেয়নি। পরে ভুক্তভোগী আদালতে মামলা করলে আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে পিবিআই গাজীপুরকে তদন্তের নির্দেশ দেন। এ অবস্থায় মামলার বাদী চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন।

এ বিষয়ে গাজীপুরের পিবিআই পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাকছুদের রহমান যুগান্তরকে জানান, কথিত স্বামী কাজের লোক এতদিন পলাতক ছিল। তাকে আটক করে সোমবার চেয়ারম্যান ও তার ভাইসহ ঢাকার সিআইডি ল্যাবে টেস্ট নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন