মৌসুম শেষেও ইলিশে সয়লাব চাঁদপুর বড়স্টেশন মাছঘাট (ভিডিও)
jugantor
মৌসুম শেষেও ইলিশে সয়লাব চাঁদপুর বড়স্টেশন মাছঘাট (ভিডিও)

  সাঈদ আল হাসান শিমুল  

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২২:৩৬:৩৭  |  অনলাইন সংস্করণ

মৌসুম শেষেও ইলিশে সয়লাব চাঁদপুর বড়স্টেশন মাছঘাট (ভিডিও)

মেঝেতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে ইলিশ মাছ, একটু বেখেয়ালি হয়ে হাঁটলে পায়ের নিচেই থেঁতলে যাবে ইলিশ। ইলিশে আছাড় খেয়ে ইলিশের স্তুপেই পড়ে যাওয়ার উপক্রম যেন। ইলিশে সয়লাব সবখানে। বরফ ভেঙে প্যাকেটজাত করা হচ্ছে ইলিশ।

‘ইলিশেবাড়ি’ খ্যাত চাঁদপুর জেলার সদরের পাইকারি মোকাম বড় স্টেশন মাছঘাটে এমন পরিস্থিতিই চলছে চলতি সেপ্টেম্বর ধরে।আগামী ৭অক্টোবর থেকে (প্রজনন মৌসুমে২২ দিন ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ। তার আগে এই শেষ মৌসুমে চাঁদপুর মাছঘাটে ইলিশ বাণিজ্য রমরমা অবস্থা।

তিন নদীর মোহনায় অস্তাচলের সূর্যের সাথে বন্ধুত্ব চাঁদপুরের ইলিশমোকামের। স্বাদে-ঘ্রাণে অনন্য বিশ্বখ্যাত চাঁদপুরের ইলিশের সবচেয়ে বড় বাজার এ বড়স্টেশন ঘাট।

চাঁদপুর অঞ্চলের মেঘনা নদীসহ, চট্টগ্রাম, ভোলা, হাতিয়া, পটুয়াখালী ও বরগুনা এবং সাগর উপকূলীয় অঞ্চল থেকে আহরিত ইলিশ এসে জমা হচ্ছে এই মোকামে। এখান থেকে সারা দেশে ছড়িয়ে পড়ে মাছের রাজা।

চলতি মৌসুমে প্রতিদিনই মাছের আমদানি থাকায় ঘাটে ইলিশের প্রাচুর্যতা দেখা গেছে। এমনটিই জানালেন বড় স্টেশন মাছঘাটের একজন আড়তদার মেসার্স ভাই ভাই ফিসারিজের বিক্রেতা শাহাদাত হোসেন।

মঙ্গলবার সকালে বড় স্টেশন মাছঘাটে গিয়ে দেখা গেল ইলিশের মেলা। এখানে ৫০টির মতো আড়ৎ। প্রত্যেক আড়তের সামনে বড় বড় ইলিশের স্তুপ। রূপালি ইলিশ আর সাদা বরফ কুচি মিলেমিশে আলো ছড়াচ্ছে চারিদিকে।

বর্তমানে চাঁদপুর মাছঘাটে গড়ে প্রতিদিন ৭০০-৮০০ মণ ইলিশ জড়োহচ্ছে। যা কয়েকদিন আগেও ১২শ মণের মতো ছিল, জানালেন জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. মেহেদী হাসান।

ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, গত ৩ দিনে ইলিশ আহরণের পরিমাণ বেশি। সনাতন ধর্মাবলম্বীদের আসন্ন পূজা উপলক্ষ্যে ইলিশের কাটতিও বেশি। সব মিলিয়ে মাছের দাম কিছুটা কমেছে।

আড়তদাররা জানিয়েছেন, ৭০০ গ্রাম থেকে ৯০০ গ্রামের ইলিশ প্রতি কেজি ৮০০ থেকে ৯০০ টাকা, এক কেজি এবং এক কেজির ওপরের ইলিশ প্রতিকেজি ১১০০ থেকে ১৫০০ টাকা। সাগরের তুলনায় লোকাল ইলিশের দাম বেশি।

আড়ত থেকে ইলিশ কিনে পাইকারি ও খুচরা বিক্রেতা সায়েম ঢালি যুগান্তরকে বলেন, এবার চাঁদপুরের ইলিশ কম ধরা পড়ছে। বেশিরভাই চট্টগ্রাম, হাতিয়া, লক্ষ্মীপুরের। এসব ইলিশের তুলনায় চাঁদপুরের ইলিশের স্বাদ বেশি, দামও বেশি। কিন্তু অনেকেই চট্টগ্রামের ইলিশকে চাঁদপুরের ভেবে কিনছে। প্রতারিত হচ্ছেন। দেশিয় ইলিশের সঙ্গে বার্মিজও মিশিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

তবে যতই আমদানি হোক ইলিশের দাম সেভাবে পড়ে না কখনোই। মধ্যবিত্তদেরও নাগালের বাইরে থাকে এর দাম। তবুও আর সব খরচ কমিয়ে বাঙালিদের ইলিশ চাই- চাই।

ইলিশের প্রতি বাঙালির ভালোবাসা তুলনাহীন। ইলিশ ভাজা, ইলিশের ভর্তা, শর্ষে ইলিশ, ভাপা ইলিশ, ইলিশ পাতুরি, দই ইলিশ, পান্তা ইলিশ, ইলিশের ডিম ছাড়া যেন বাঙালির রসনায় তৃপ্তি আসে না। মাত্রারিক্ত চাহিদার কারণে মাছের রাজার দাম সব সময়ই চড়া থাকে। এরমধ্যে চাঁদপুর ব্র্যান্ড যোগ করলে তো দাম আরও বেড়ে যায়।

মৌসুম শেষেও ইলিশে সয়লাব চাঁদপুর বড়স্টেশন মাছঘাট (ভিডিও)

 সাঈদ আল হাসান শিমুল 
২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:৩৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মৌসুম শেষেও ইলিশে সয়লাব চাঁদপুর বড়স্টেশন মাছঘাট (ভিডিও)
ছবি: যুগান্তর

মেঝেতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে ইলিশ মাছ, একটু বেখেয়ালি হয়ে হাঁটলে পায়ের নিচেই থেঁতলে যাবে ইলিশ। ইলিশে আছাড় খেয়ে ইলিশের স্তুপেই পড়ে যাওয়ার উপক্রম যেন। ইলিশে সয়লাব সবখানে। বরফ ভেঙে প্যাকেটজাত করা হচ্ছে ইলিশ।

 ‘ইলিশেবাড়ি’ খ্যাত চাঁদপুর জেলার সদরের পাইকারি মোকাম বড় স্টেশন মাছঘাটে এমন পরিস্থিতিই চলছে চলতি সেপ্টেম্বর ধরে। আগামী ৭ অক্টোবর থেকে (প্রজনন মৌসুমে ২২ দিন ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ। তার আগে এই শেষ মৌসুমে চাঁদপুর মাছঘাটে ইলিশ বাণিজ্য রমরমা অবস্থা।

তিন নদীর মোহনায় অস্তাচলের সূর্যের সাথে বন্ধুত্ব চাঁদপুরের ইলিশ মোকামের। স্বাদে-ঘ্রাণে অনন্য বিশ্বখ্যাত চাঁদপুরের ইলিশের সবচেয়ে বড় বাজার এ বড়স্টেশন ঘাট।

চাঁদপুর অঞ্চলের মেঘনা নদীসহ, চট্টগ্রাম, ভোলা, হাতিয়া, পটুয়াখালী ও বরগুনা এবং সাগর উপকূলীয় অঞ্চল থেকে আহরিত ইলিশ এসে জমা হচ্ছে এই মোকামে। এখান থেকে সারা দেশে ছড়িয়ে পড়ে মাছের রাজা।

চলতি মৌসুমে প্রতিদিনই মাছের আমদানি থাকায় ঘাটে ইলিশের প্রাচুর্যতা দেখা গেছে।  এমনটিই জানালেন বড় স্টেশন মাছঘাটের একজন আড়তদার মেসার্স ভাই ভাই ফিসারিজের বিক্রেতা শাহাদাত হোসেন।

মঙ্গলবার সকালে বড় স্টেশন মাছঘাটে গিয়ে দেখা গেল ইলিশের মেলা। এখানে ৫০টির মতো আড়ৎ। প্রত্যেক আড়তের সামনে বড় বড় ইলিশের স্তুপ। রূপালি ইলিশ আর সাদা বরফ কুচি মিলেমিশে আলো ছড়াচ্ছে চারিদিকে।