ফতুল্লায় চিতাবাঘসহ চোরাকারবারি চক্রের ২ সদস্য আটক

প্রকাশ : ১৪ জুন ২০১৮, ২১:৪৫ | অনলাইন সংস্করণ

  ফতুল্লা (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি

ফতুল্লায় দুটি চিতাবাঘসহ আন্তর্জাতিক পশু চোরাকারবারি চক্রের আটক দুই সদস্য (ইনসেটে)। ছবি: যুগান্তর

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় দুটি চিতাবাঘসহ আন্তর্জাতিক পশু চোরাকারবারি চক্রের দুই সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব-১১।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ফতুল্লার রঘুনাথপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন- রঘুনাথপুর এলাকার তগদির হোসেনের ছেলে শওকত ইসলাম মিঠু (৪০) ও একই এলাকার উলিউল্লাহর ছেলে আরিফুল ইসলাম (৩৫)।

সন্ধ্যার পর র‌্যাব-১১ এর ভারপ্রাপ্ত ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক (সিও) মেজর আশিক বিল্লাহ প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শওকত ইমরান মিঠুর বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এ সময় একটি কক্ষের তালা ভেঙে খাঁচার ভেতরে রাখা দুটি বাঘ উদ্ধার করা হয়। পরে পাচারের সঙ্গে জড়িত অভিযোগে শওকত ইমরান মিঠু ও তার সহযোগী একই এলাকার আরিফুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইনে মামলার প্রস্তুতি চলছে এবং উদ্ধারকৃত চিতাবাঘ দুটি আদালতের মাধ্যমে সরকারের সংশ্লিষ্ট দফতরে হস্তান্তর করা হবে।

বাঘ দুটির আন্তর্জাতিক বাজারে কমপক্ষে কোটি টাকা মূল্য হবে বলে র‌্যাব কর্মকর্তা জানান।

তিনি আরও জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃতরা র‌্যাবকে জানিয়েছে, গত পাঁচ-ছয় দিন আগে তারা এই চিতাবাঘ দুটি আফ্রিকা থেকে কার্গোবিমানে করে নিজেদের এই বাড়িতে এনে লুকিয়ে রেখেছিল। সুবিধামতো সময়ে তারা এগুলো পার্শ্ববর্তী কোনো দেশে পাচারের পরিকল্পনা ছিল। তারা দীর্ঘদিন ধরে আন্তর্জাতিক পাচারকারী চক্রের বাংলাদেশের এজেন্ট হিসেবে কাজ করে আসছে এবং এই বাড়িকে ট্রানজিট হিসেবে ব্যবহার করত।

মেজর আশিক বিল্লাহ জানান, মিঠু ও আরিফুল বিভিন্ন সময়ে বিরল প্রজাতির মূল্যবান প্রাণী এই বাড়িতে এনে লুকিয়ে রাখত এবং সুবিধামতো সময়ে বিদেশে পাচার করত। সম্প্রতি তারা বিরল প্রজাতির দুটি সাদা রঙের সিংহ বিদেশে পাচার করেছে। এই চক্রের সঙ্গে জড়িত অন্যদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।