কলমাকান্দায় ইউপি ভবনে অগ্নিসংযোগ, ছেলেসহ চেয়ারম্যান আটক
jugantor
কলমাকান্দায় ইউপি ভবনে অগ্নিসংযোগ, ছেলেসহ চেয়ারম্যান আটক

  নেত্রকোনা প্রতিনিধি  

০৫ অক্টোবর ২০২২, ২৩:৪২:১৩  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার কলমাকান্দায় জমি সংক্রান্ত বিরোধে বুধবার বিকেলে ইউপি ভবনে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় প্রতিপক্ষের ওপর হামলার অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যান ও তার ছেলেকে আটক করা হয়েছে। হামলায় আহত ইউনুস মাস্টারসহ তিন জনকে কলমাকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, জেলার কলমাকান্দা উপজেলার রংছাতি ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের জায়গা নিয়ে ওই এলাকার ইউনুস মাস্টারের সঙ্গে বিরোধ চলে আসছিল।

এরই জের ধরে রংছাতি গ্রামের ইউনুস মাস্টার তার লোকজন নিয়ে বুধবার বেলা আড়াইটার দিকে রংছাতি ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের দখল করতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে আগুন ধরিয়ে দেন।

এতে একটি ফটোস্টেট মেশিনসহ ও কম্পিউটারের যন্ত্রাংশ পুড়ে যায়। পরে ওই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যরা হামলাকারীদের বাধা দিলে দু'পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়।

খবর পেয়ে কলমাকান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল হাসেম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ইউপি চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান পাঠান বাবুলকে এঘটনায় থানার লিখিত অভিযোগ করার পরামর্শ দেন। এসময় ইউনুস মাস্টারের গ্রুপের রংছাতি গ্রামের হাফিজ উদ্দিনের আসাদুল ইসলাম (৩২) ও মোবারক হোসেন ছেলে সিদ্দিক মিয়াকে (৩০) আটক করা হয়।

এঘটনায় ইউনুস মাস্টারের স্ত্রী বাদি হয়ে বুধবার সন্ধ্যায় কলমাকান্দা থানায় পাল্টা একটি অভিযোগ দায়ের করলে ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলার বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়কআনিসুর রহমান পাঠান বাবুল ও তার ছেলে হৃদয় পাঠানকে আটক করে পুলিশ।

ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে ইউনুস মাস্টার ও ইউপি চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান পাঠান বাবুলের মুঠোফোন বন্ধ থাকায় কথা বলা সম্ভব হয়নি।

এ বিষয়ে কলমাকান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল হাসেম বলেন, আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। ইউপি ভবনে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যানকে মামলা করতে বলা হয়েছে।

কলমাকান্দায় ইউপি ভবনে অগ্নিসংযোগ, ছেলেসহ চেয়ারম্যান আটক

 নেত্রকোনা প্রতিনিধি 
০৫ অক্টোবর ২০২২, ১১:৪২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার কলমাকান্দায় জমি সংক্রান্ত বিরোধে বুধবার বিকেলে ইউপি ভবনে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় প্রতিপক্ষের ওপর হামলার অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যান ও তার ছেলেকে আটক করা হয়েছে। হামলায় আহত ইউনুস মাস্টারসহ তিন জনকে কলমাকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, জেলার কলমাকান্দা উপজেলার রংছাতি ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের জায়গা নিয়ে ওই এলাকার ইউনুস মাস্টারের সঙ্গে বিরোধ চলে আসছিল।

এরই জের ধরে রংছাতি গ্রামের ইউনুস মাস্টার তার লোকজন নিয়ে বুধবার বেলা আড়াইটার দিকে রংছাতি ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের দখল করতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে আগুন ধরিয়ে দেন।

এতে একটি ফটোস্টেট মেশিনসহ ও কম্পিউটারের যন্ত্রাংশ পুড়ে যায়। পরে ওই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যরা হামলাকারীদের বাধা দিলে দু'পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়।

খবর পেয়ে কলমাকান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল হাসেম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ইউপি চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান পাঠান বাবুলকে এঘটনায় থানার লিখিত অভিযোগ করার পরামর্শ দেন। এসময় ইউনুস মাস্টারের গ্রুপের রংছাতি গ্রামের হাফিজ উদ্দিনের আসাদুল ইসলাম (৩২) ও মোবারক হোসেন ছেলে সিদ্দিক মিয়াকে (৩০) আটক করা হয়।

এঘটনায় ইউনুস মাস্টারের স্ত্রী বাদি হয়ে বুধবার সন্ধ্যায় কলমাকান্দা থানায় পাল্টা একটি অভিযোগ দায়ের করলে ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলার বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়কআনিসুর রহমান পাঠান বাবুল ও তার ছেলে হৃদয় পাঠানকে আটক করে পুলিশ।

ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে ইউনুস মাস্টার ও ইউপি চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান পাঠান বাবুলের মুঠোফোন বন্ধ থাকায় কথা বলা সম্ভব হয়নি।

এ বিষয়ে কলমাকান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল হাসেম বলেন, আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। ইউপি ভবনে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যানকে মামলা করতে বলা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন