হালদায় নেমে নিখোঁজ মাদ্রাসাছাত্র
jugantor
হালদায় নেমে নিখোঁজ মাদ্রাসাছাত্র

  হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি  

০৭ অক্টোবর ২০২২, ০০:১২:১৭  |  অনলাইন সংস্করণ

ফুটবল খেলা শেষে কাদাযুক্ত শরীরে চট্টগ্রামের হালদা নদীতে গোসল করতে নেমে এক মাদ্রাসা শিক্ষার্থী নিখোঁজ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। নদীতে নিখোঁজ ওই শিক্ষার্থীর নাম মোহাম্মদ আনাস (১৪)।

বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) বিকাল ৫টার দিকে হাটহাজারী উপজেলার গড়দুয়ারা ইউনিয়নের স্লুইসগেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। জাতীয় জরুরি সেবার হটলাইন নাম্বার ৯৯৯-এ খবর পেয়ে নিখোঁজ হওয়া ওই মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছে হাটহাজারী ফায়ার সার্ভিস।

নিখোঁজ শিক্ষার্থী আনাস উক্ত ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের হাজী দুলা মিঞা সওদাগরের বাড়ির মধ্যপ্রাচ্য দুবাই প্রবাসী মোহাম্মদ আবু তাহেরের ছেলে। সে হাটহাজারী পৌরসভার পূর্ব দেওয়ান নগরের ১১ মাইল এলাকার শাহ অলি উল্লাহ (রহ.) ইসলামী মাদ্রাসার ৮ম জামাতের ছাত্র। আনাস মায়ের সঙ্গে ১১ মাইল এলাকার উম্মে মঞ্জিলে ভাড়া বাসায় থাকে।

ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মাদ্রাসা বন্ধ থাকায় আনাস ও তার দুই বন্ধুসহ স্থানীয় ছেলেরা ওই এলাকায় ফুটবল খেলে শরীরের কাদামাটিসহ হালদা নদীতে গোসল করতে নেমেছিল। তখন আনাস ঠাঁই হারিয়ে পানির স্রোতে পড়ে নদীতে নিখোঁজ হয়ে যায়। এ সময় তার বন্ধুরা পানি থেকে উঠে যায়।

এ বিষয়ে নিখোঁজ আনাসের মাদ্রাসা পরিচালক মাওলানা মোহাম্মদ সফিউল্লাহ বলেন, আনাস অনাবাসিক ছাত্র। আজ (বৃহস্পতিবার) মাদ্রাসা ছুটির পর সে বাসায় চলে যায়। তারপর কী হলো আমি জানি না। তবে আপনাদের মাধ্যমে খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে যাচ্ছি।

আনাসের নিখোঁজ সম্পর্কে জানতে চাইলে তার নানা মোহাম্মদ এনামুল হক গণমাধ্যমকর্মীদের জানান, আনাস মাদ্রাসা থেকে এসে দুপুরের খাবার খেয়ে তার বন্ধুদের সঙ্গে বেড়াতে যায়। সেখানে নদীতে ডুবে গেছে বলে খবর পেয়েছি। নাতি নিখোঁজ হওয়ার খবর শুনে আমরা খুবই দুশ্চিন্তায় আছি। তার মা কথা বলার মতো কোনো অবস্থায় নেই।

এদিকে হাটহাজারী ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মোহাম্মদ শাহাজাহানের নেতৃত্বে ৭ সদস্যদের একটি দল দ্রুত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে উদ্ধার অভিযান শুরু করে। নদীতে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা কৃত্রিম আলোতে উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করে যাচ্ছে।

এ ব্যাপারে ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মোহাম্মদ শাহাজাহান জানান, রাত ৯টা পর্যন্ত আমাদের এ অভিযান চলবে। এর মধ্যে যদি নিখোঁজ আনাসের সন্ধান না মিলে তাহলে শুক্রবার ভোর ৬টায় নগরীর আগ্রাবাদ ফায়ার সার্ভিসের ৪ সদস্যের একটি ডুবুরি দল আবারো উদ্ধার অভিযান শুরু করবে।

হালদায় নেমে নিখোঁজ মাদ্রাসাছাত্র

 হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি 
০৭ অক্টোবর ২০২২, ১২:১২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ফুটবল খেলা শেষে কাদাযুক্ত শরীরে চট্টগ্রামের হালদা নদীতে গোসল করতে নেমে এক মাদ্রাসা শিক্ষার্থী নিখোঁজ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। নদীতে নিখোঁজ ওই শিক্ষার্থীর নাম মোহাম্মদ আনাস (১৪)।

বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) বিকাল ৫টার দিকে হাটহাজারী উপজেলার গড়দুয়ারা ইউনিয়নের স্লুইসগেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। জাতীয় জরুরি সেবার হটলাইন নাম্বার ৯৯৯-এ খবর পেয়ে নিখোঁজ হওয়া ওই মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছে হাটহাজারী ফায়ার সার্ভিস।

নিখোঁজ শিক্ষার্থী আনাস উক্ত ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের হাজী দুলা মিঞা সওদাগরের বাড়ির মধ্যপ্রাচ্য দুবাই প্রবাসী মোহাম্মদ আবু তাহেরের ছেলে। সে হাটহাজারী পৌরসভার পূর্ব দেওয়ান নগরের ১১ মাইল এলাকার শাহ অলি উল্লাহ (রহ.) ইসলামী মাদ্রাসার ৮ম জামাতের ছাত্র। আনাস মায়ের সঙ্গে ১১ মাইল এলাকার উম্মে মঞ্জিলে ভাড়া বাসায় থাকে।

ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মাদ্রাসা বন্ধ থাকায় আনাস ও তার দুই বন্ধুসহ স্থানীয় ছেলেরা ওই এলাকায় ফুটবল খেলে শরীরের কাদামাটিসহ হালদা নদীতে গোসল করতে নেমেছিল। তখন আনাস ঠাঁই হারিয়ে পানির স্রোতে পড়ে নদীতে নিখোঁজ হয়ে যায়। এ সময় তার বন্ধুরা পানি থেকে উঠে যায়।

এ বিষয়ে নিখোঁজ আনাসের মাদ্রাসা পরিচালক মাওলানা মোহাম্মদ সফিউল্লাহ বলেন, আনাস অনাবাসিক ছাত্র। আজ (বৃহস্পতিবার) মাদ্রাসা ছুটির পর সে বাসায় চলে যায়। তারপর কী হলো আমি জানি না। তবে আপনাদের মাধ্যমে খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে যাচ্ছি।

আনাসের নিখোঁজ সম্পর্কে জানতে চাইলে তার নানা মোহাম্মদ এনামুল হক গণমাধ্যমকর্মীদের জানান, আনাস মাদ্রাসা থেকে এসে দুপুরের খাবার খেয়ে তার বন্ধুদের সঙ্গে বেড়াতে যায়। সেখানে নদীতে ডুবে গেছে বলে খবর পেয়েছি। নাতি নিখোঁজ হওয়ার খবর শুনে আমরা খুবই দুশ্চিন্তায় আছি। তার মা কথা বলার মতো কোনো অবস্থায় নেই।

এদিকে হাটহাজারী ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মোহাম্মদ শাহাজাহানের নেতৃত্বে ৭ সদস্যদের একটি দল দ্রুত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে উদ্ধার অভিযান শুরু করে। নদীতে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা কৃত্রিম আলোতে উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করে যাচ্ছে।

এ ব্যাপারে ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মোহাম্মদ শাহাজাহান জানান, রাত ৯টা পর্যন্ত আমাদের এ অভিযান চলবে। এর মধ্যে যদি নিখোঁজ আনাসের সন্ধান না মিলে তাহলে শুক্রবার ভোর ৬টায় নগরীর আগ্রাবাদ ফায়ার সার্ভিসের ৪ সদস্যের একটি ডুবুরি দল আবারো উদ্ধার অভিযান শুরু করবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন