মাছ ধরতে গিয়ে দুই খালাতো ভাইয়ের মৃত্যু
jugantor
মাছ ধরতে গিয়ে দুই খালাতো ভাইয়ের মৃত্যু

  কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি  

২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৪:৩৫:৪৬  |  অনলাইন সংস্করণ

কুড়িগ্রামের রাজীবপুর উপজেলায় একটি পুকুরের পানিতে ডুবে আপন দুই খালাতো ভাইয়ের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় এই ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- রৌমারী উপজেলার মানচার চর গ্রামের সাইফুদ্দীনের ছেলে আরাফাত (১৩) এবং রাজীবপুর উপজেলার বড়াইডাঙ্গী গ্রামের জাহিদুল ইসলামের ছেলে রিদন (৪)।

রাজীবপুর সদর ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেন দুটি শিশুর মৃত্যুর কথা স্বীকার করে বলেন, শিশু দুটির মর্মান্তিক মৃত্যুতে পরিবার ও এলাকায় শোকের ছায়া নেমেছে।

তিনি পরিবারের বরাতে জানান, উপজেলার সদর ইউনিয়নের বড়াইডাঙ্গী গ্রামের বাড়ির পাশে পোস্ট অফিস সংলগ্ন একটি পুকুরে বড়শি দিয়ে মাছ ধরছিল। একপর্যায়ে তারা পানিতে পড়ে যায়। সন্ধ্যা হয়ে গেলেও সন্তানরা বাড়ি না ফেরায় পরিবারের লোকজন তাদের খুঁজতে বের হয়। এক পর্যায় তাদের না পেয়ে পুকুর পাড়ে গিয়ে দেখে পুকুরের পানিতে তাদের পায়ের জুতা ভাসছে।

তাৎক্ষণিক তাদের উদ্ধার করে রাজীবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. আব্দুস সামাদ শিশু দুটিকে মৃত ঘোষণা করেন। শিশু দুটির নানা আবু বক্কর ও ফজলুল হক আপন ভাই। এ দুই ভাইয়ের বাড়িতে থেকে নাতি রিদন এবং আরাফাত পড়াশোনা করত।

রাজীবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাহারুল ইসলাম বলেন, শিশু দুটির পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।

মাছ ধরতে গিয়ে দুই খালাতো ভাইয়ের মৃত্যু

 কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি 
২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৪:৩৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুড়িগ্রামের রাজীবপুর উপজেলায় একটি পুকুরের পানিতে ডুবে আপন দুই খালাতো ভাইয়ের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় এই ঘটনা ঘটে। 

নিহতরা হলেন- রৌমারী উপজেলার মানচার চর গ্রামের সাইফুদ্দীনের ছেলে আরাফাত (১৩) এবং রাজীবপুর উপজেলার বড়াইডাঙ্গী গ্রামের জাহিদুল ইসলামের ছেলে রিদন (৪)। 
 
রাজীবপুর সদর ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেন দুটি শিশুর মৃত্যুর কথা স্বীকার করে বলেন, শিশু দুটির মর্মান্তিক মৃত্যুতে পরিবার ও এলাকায় শোকের ছায়া নেমেছে। 

তিনি পরিবারের বরাতে জানান, উপজেলার সদর ইউনিয়নের বড়াইডাঙ্গী গ্রামের বাড়ির পাশে পোস্ট অফিস সংলগ্ন একটি পুকুরে বড়শি দিয়ে মাছ ধরছিল। একপর্যায়ে তারা পানিতে পড়ে যায়। সন্ধ্যা হয়ে গেলেও সন্তানরা বাড়ি না ফেরায় পরিবারের লোকজন তাদের খুঁজতে বের হয়। এক পর্যায় তাদের না পেয়ে পুকুর পাড়ে গিয়ে দেখে পুকুরের পানিতে তাদের পায়ের জুতা ভাসছে।

তাৎক্ষণিক তাদের উদ্ধার করে রাজীবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. আব্দুস সামাদ শিশু দুটিকে মৃত ঘোষণা করেন। শিশু দুটির নানা আবু বক্কর ও ফজলুল হক আপন ভাই। এ দুই ভাইয়ের বাড়িতে থেকে নাতি রিদন এবং আরাফাত পড়াশোনা করত। 

রাজীবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাহারুল ইসলাম বলেন, শিশু দুটির পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন