বিএনপির মশাল মিছিল, ককটেল বিস্ফোরণ
jugantor
বিএনপির মশাল মিছিল, ককটেল বিস্ফোরণ

  নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি  

৩০ নভেম্বর ২০২২, ২৩:১১:২০  |  অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জে একই সময়ে ৩টি এলাকায় ঝটিকা মশাল মিছিলসহ প্রায় অর্ধশত ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে বিক্ষোভ করেছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা। এ সময় তারা সিদ্ধিরগঞ্জের ২নং ওয়ার্ডের মৌচাক এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের উপর টায়ার জ্বালিয়ে যান চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে।

খবর পেয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছলে বিএনপির নেতাকর্মীরা সেখান থেকে পালিয়ে যায়। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জেলা পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা রাসেল জানিয়েছেন, ঘটনার তদন্ত করে দুষ্কৃতিকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বুধবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে নারায়ণগঞ্জ শহরের প্রাণকেন্দ্র বঙ্গবন্ধু সড়কের পপুলার গলিতে হঠাৎ একটি ঝটিকা মশাল মিছিল বের করে দলটির নেতাকর্মীরা। এ সময় তারা ১০-১২টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটালে পুরো এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পরে। একই সময়ে সিদ্ধিরগঞ্জের ২নং ওয়ার্ডের মৌচাক এলাকার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ওপর বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নামে স্লোগান দিয়ে একটি মশাল মিছিল বের করেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। এ সময় সেখানে তারা প্রায় ২০টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে মহাসড়কের ওপর গাড়ির টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করেন।

অপরদিকে ফতুল্লা থানাধীন সস্তাপুর উপজেলা সড়ক এলাকাতেও একই কায়দায় মশাল মিছিল ও প্রায় ১৫-১৬টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে বিক্ষোভ করেন বিএনপির নেতাকর্মীরা।

এ ব্যাপারে জেলা পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা রাসেল বলেন, সন্ধ্যার পর শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কে, ফতুল্লার সস্তাপুর এলাকা ও সিদ্ধিরগঞ্জের মৌচাক এলাকায় দুষ্কৃতিকারীরা মশাল মিছিল ও ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি করে। খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সংশ্লিষ্ট এলাকার থানার ওসিসহ পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে যায় এবং প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান- বিএনপির নেতকর্মীরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে। ঘটনার তদন্ত করে দুষ্কৃতিকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান।

বিএনপির মশাল মিছিল, ককটেল বিস্ফোরণ

 নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি 
৩০ নভেম্বর ২০২২, ১১:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জে একই সময়ে ৩টি এলাকায় ঝটিকা মশাল মিছিলসহ প্রায় অর্ধশত ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে বিক্ষোভ করেছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা। এ সময় তারা সিদ্ধিরগঞ্জের ২নং ওয়ার্ডের মৌচাক এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের উপর টায়ার জ্বালিয়ে যান চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে।

খবর পেয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছলে বিএনপির নেতাকর্মীরা সেখান থেকে পালিয়ে যায়। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জেলা পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা রাসেল জানিয়েছেন, ঘটনার তদন্ত করে দুষ্কৃতিকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বুধবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে নারায়ণগঞ্জ শহরের প্রাণকেন্দ্র বঙ্গবন্ধু সড়কের পপুলার গলিতে হঠাৎ একটি ঝটিকা মশাল মিছিল বের করে দলটির নেতাকর্মীরা। এ সময় তারা ১০-১২টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটালে পুরো এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পরে। একই সময়ে সিদ্ধিরগঞ্জের ২নং ওয়ার্ডের মৌচাক এলাকার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ওপর বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নামে স্লোগান দিয়ে একটি মশাল মিছিল বের করেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। এ সময় সেখানে তারা প্রায় ২০টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে মহাসড়কের ওপর গাড়ির টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করেন।

অপরদিকে ফতুল্লা থানাধীন সস্তাপুর উপজেলা সড়ক এলাকাতেও একই কায়দায় মশাল মিছিল ও প্রায় ১৫-১৬টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে বিক্ষোভ করেন বিএনপির নেতাকর্মীরা।

এ ব্যাপারে জেলা পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা রাসেল বলেন, সন্ধ্যার পর শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কে, ফতুল্লার সস্তাপুর এলাকা ও সিদ্ধিরগঞ্জের মৌচাক এলাকায় দুষ্কৃতিকারীরা মশাল মিছিল ও ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি করে। খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সংশ্লিষ্ট এলাকার থানার ওসিসহ পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে যায় এবং প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান- বিএনপির নেতকর্মীরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে। ঘটনার তদন্ত করে দুষ্কৃতিকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন