রাজশাহীতে ১৫ লাখ মানুষের সমাগমের ঘোষণা বিএনপির
jugantor
রাজশাহীতে ১৫ লাখ মানুষের সমাগমের ঘোষণা বিএনপির

  রাজশাহী ব্যুরো  

৩০ নভেম্বর ২০২২, ২৩:১৮:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় মহাসমাবেশে ১৫ লাখ মানুষের গণসমাগম করার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। আগামী ৩ ডিসেম্বর এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে রাজশাহী ঐতিহাসিক মাদ্রাসা ময়দানে।

বুধবার সকালে জেলা প্রশাসন ও বিকালে রাজশাহী মহানগর পুলিশের অনুমতি লাভের পর এক সংবাদ সম্মেলন করে বিএনপি নেতৃবৃন্দ এ ঘোষণা দেন।

সংবাদ সম্মেলনে দলটির নেতৃবৃন্দ বলেছেন বিএনপি দেশব্যাপী যে বিভাগীয় সমাবেশে করছে, তার মধ্যে রাজশাহীর সমাবেশই হবে সবচেয়ে বড়। সব বাধা পেরিয়ে এই মহাসমাবেশ হবে।

নগরীর মালোপাড়ার দলীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এই সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু বলেন, আগামী ৩ ডিসেম্বরের মহাসমাবেশ বানচাল করতে কিছু অতি উৎসাহী পুলিশ বিভাগজুড়ে দলীয় নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে গায়েবি মামলা দিয়েছেন। এ পর্যন্ত শতাধিক মামলা করা হয়েছে রাজশাহী বিভাগের বিভিন্ন থানায়। তারপরও রাজশাহীতে দেশের সবচেয়ে বড় মহাসমাবেশ হবে। অন্তত ১৫ লাখ নেতাকর্মী এতে যোগ দেবেন।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু বলেন, সমাবেশের আগে ধর্মঘট হবে এটা আমাদের নেতাকর্মীরা জানেন। তাই তারা আগে আগেই আসতে শুরু করেছেন রাজশাহী ও আশপাশের এলাকায়। তাদের থাকার জন্য আমরা শহরের কমিউনিটি সেন্টারগুলো ঠিক করেছিলাম। পুলিশ সবখানে গিয়ে বলে আসছে, কেউ যদি বিএনপির লোকজনকে থাকতে দেয়, তাহলে তাকেই ধরে নিয়ে যাবে। তিনি প্রশ্ন করেন এটা কেমন কথা। একটা সভ্য দেশে এটা হতে পারে না।

রাজশাহীতেই দেশের সবচেয়ে বড় সমাবেশ হবে উল্লেখ করে দুলু আরও বলেন, আমাদের স্থানীয় নেতাকর্মীরা দুর থেকে আসা মানুষকে থাকতে দেবেন। প্রয়োজনে নিজে না খেয়ে তাদের খাওয়াবেন। এভাবেই এখন আমাদের পরিকল্পনা করতে হচ্ছে। যে কোন মূল্যে সমাবেশ সফল হবে এবং এই সমাবেশ থেকে ঢাকার সমাবেশের জন্য একটা গণজোয়ার সৃষ্টি হবে।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির রাজশাহী বিভাগের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ শাহীন শওকত, মহানগর বিএনপির সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, সাবেক সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হক মিলনসহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

রাজশাহীতে ১৫ লাখ মানুষের সমাগমের ঘোষণা বিএনপির

 রাজশাহী ব্যুরো 
৩০ নভেম্বর ২০২২, ১১:১৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় মহাসমাবেশে ১৫ লাখ মানুষের গণসমাগম করার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। আগামী ৩ ডিসেম্বর এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে রাজশাহী ঐতিহাসিক মাদ্রাসা ময়দানে।

বুধবার সকালে জেলা প্রশাসন ও বিকালে রাজশাহী মহানগর পুলিশের অনুমতি লাভের পর এক সংবাদ সম্মেলন করে বিএনপি নেতৃবৃন্দ এ ঘোষণা দেন।

সংবাদ সম্মেলনে দলটির নেতৃবৃন্দ বলেছেন বিএনপি দেশব্যাপী যে বিভাগীয় সমাবেশে করছে, তার মধ্যে রাজশাহীর সমাবেশই হবে সবচেয়ে বড়। সব বাধা পেরিয়ে এই মহাসমাবেশ হবে।

নগরীর মালোপাড়ার দলীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এই সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু বলেন, আগামী ৩ ডিসেম্বরের মহাসমাবেশ বানচাল করতে কিছু অতি উৎসাহী পুলিশ বিভাগজুড়ে দলীয় নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে গায়েবি মামলা দিয়েছেন। এ পর্যন্ত শতাধিক মামলা করা হয়েছে রাজশাহী বিভাগের বিভিন্ন থানায়। তারপরও রাজশাহীতে দেশের সবচেয়ে বড় মহাসমাবেশ হবে। অন্তত ১৫ লাখ নেতাকর্মী এতে যোগ দেবেন।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু বলেন, সমাবেশের আগে ধর্মঘট হবে এটা আমাদের নেতাকর্মীরা জানেন। তাই তারা আগে আগেই আসতে শুরু করেছেন রাজশাহী ও আশপাশের এলাকায়। তাদের থাকার জন্য আমরা শহরের কমিউনিটি সেন্টারগুলো ঠিক করেছিলাম। পুলিশ সবখানে গিয়ে বলে আসছে, কেউ যদি বিএনপির লোকজনকে থাকতে দেয়, তাহলে তাকেই ধরে নিয়ে যাবে। তিনি প্রশ্ন করেন এটা কেমন কথা। একটা সভ্য দেশে এটা হতে পারে না।

রাজশাহীতেই দেশের সবচেয়ে বড় সমাবেশ হবে উল্লেখ করে দুলু আরও বলেন, আমাদের স্থানীয় নেতাকর্মীরা দুর থেকে আসা মানুষকে থাকতে দেবেন। প্রয়োজনে নিজে না খেয়ে তাদের খাওয়াবেন। এভাবেই এখন আমাদের পরিকল্পনা করতে হচ্ছে। যে কোন মূল্যে সমাবেশ সফল হবে এবং এই সমাবেশ থেকে ঢাকার সমাবেশের জন্য একটা গণজোয়ার সৃষ্টি হবে।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির রাজশাহী বিভাগের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ শাহীন শওকত, মহানগর বিএনপির সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, সাবেক সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হক মিলনসহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন