মাকে মারধরের মামলায় দুই সন্তান জেলে
jugantor
মাকে মারধরের মামলায় দুই সন্তান জেলে

  ডামুড্যা (শরীয়তপুর) প্রতিনিধি  

০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ২২:২০:১৮  |  অনলাইন সংস্করণ

শরীয়তপুরে মায়ের করা একটি মামলায় দুই ছেলেকে জেলহাজতে প্রেরণ করেছেন আদালত। সোমবার (৫ ডিসেম্বর) দুপুরে ডামুড্যা আমলি আদালতে জামিনের জন্য আসলে আদালত তাদের জামিন নামঞ্জুর করে দেন।

আসামিরা হলেন- ডামুড্যা উপজেলার ধানকাটি ইউনিয়নের মোল্যাকান্দি গ্রামের মৃত নুর মোহাম্মাদ বেপারীর বড় ছেলে রফিক বেপারী ও মেজো ছেলে জহুরুল বেপারী।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ডামুড্যা উপজেলার ধানকাটি ইউনিয়নের মৃত নুর মোহাম্মাদ বেপারী স্ত্রী জিন্নাত নেছা। দুই ছেলে আর ছেলেদের স্ত্রীরা প্রায়ই তাকে নির্যাতন করত। গত ২৯ নভেম্বর তার সন্তান আর সন্তানের বউরা ঘরের দরজা ভেঙে অমানবিকভাবে মারধর করেন। আত্মরক্ষার জন্য নিজের সন্তানদের বিরুদ্ধে গত বৃহস্পতিবার চিপ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে চারজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন তিনি। মামলায় আজ জামিনের জন্য আসলে আদালত তাদের জামিন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মামলার বাদী জিন্নাত নেছা জানান, আমার বড় দুই সন্তান আর তার স্ত্রীরা আমাকে প্রায় দিন মারধর করে। আর এদিকে আমার ছোট ছেলে প্রবাসী আবু তাহেরের ঘর দখল করা জন্য আমাকে হুমকি ধমকি দিয়ে আসছে। আমি ঘর থেকে বের না হওয়াতে তারা ঘরের দরজা ভেঙে আমাকে ও আমার ছোট ছেলের বউকে মারধর করে।

এ সময় তিনি কান্নাজড়িত কণ্ঠে জানান, একজন মা কত কষ্টে সন্তানদের বিরুদ্ধে মামলা করে সেটা শুধু ওই মা-ই জানে। তারা জেলে গেছে এটা যে আমার কত কষ্ট লাগে, সেটা শুধু আমিই জানি। আমি বাধ্য হয়ে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করেছি।

মামলার আইনজীবী মো. এনামুল হক এনাম জানান, আমি এই অসহায় মায়ের পক্ষ হয়ে মামলা করেছি। তাদের বিরুদ্ধে আদালত ওয়ারেন্ট জারি করেন। আজ তারা জামিনের জন্য আসলে আদালত তাদের জামিন নামঞ্জুর করেন। যতদিন এ অসহায় মা মামলাটি চালাতে চান, ততদিন আমি তার পাশে থাকব।

মাকে মারধরের মামলায় দুই সন্তান জেলে

 ডামুড্যা (শরীয়তপুর) প্রতিনিধি 
০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:২০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

শরীয়তপুরে মায়ের করা একটি মামলায় দুই ছেলেকে জেলহাজতে প্রেরণ করেছেন আদালত। সোমবার (৫ ডিসেম্বর) দুপুরে ডামুড্যা আমলি আদালতে জামিনের জন্য আসলে আদালত তাদের জামিন নামঞ্জুর করে দেন।

আসামিরা হলেন- ডামুড্যা উপজেলার ধানকাটি ইউনিয়নের মোল্যাকান্দি গ্রামের মৃত নুর মোহাম্মাদ বেপারীর বড় ছেলে রফিক বেপারী ও মেজো ছেলে জহুরুল বেপারী।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ডামুড্যা উপজেলার ধানকাটি ইউনিয়নের  মৃত নুর মোহাম্মাদ বেপারী স্ত্রী জিন্নাত নেছা। দুই ছেলে আর ছেলেদের স্ত্রীরা প্রায়ই তাকে নির্যাতন করত। গত ২৯ নভেম্বর তার সন্তান আর সন্তানের বউরা ঘরের দরজা ভেঙে অমানবিকভাবে মারধর করেন। আত্মরক্ষার জন্য নিজের সন্তানদের বিরুদ্ধে গত বৃহস্পতিবার চিপ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে চারজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন তিনি। মামলায় আজ জামিনের জন্য আসলে আদালত তাদের জামিন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মামলার বাদী জিন্নাত নেছা জানান, আমার বড় দুই সন্তান আর তার স্ত্রীরা আমাকে প্রায় দিন মারধর করে। আর এদিকে আমার ছোট ছেলে প্রবাসী আবু তাহেরের ঘর দখল করা জন্য আমাকে হুমকি ধমকি দিয়ে আসছে। আমি ঘর থেকে বের না হওয়াতে তারা ঘরের দরজা ভেঙে আমাকে ও আমার ছোট ছেলের বউকে মারধর করে।

এ সময় তিনি কান্নাজড়িত কণ্ঠে জানান, একজন মা কত কষ্টে সন্তানদের বিরুদ্ধে মামলা করে সেটা শুধু ওই মা-ই জানে। তারা জেলে গেছে এটা যে আমার কত কষ্ট লাগে, সেটা শুধু আমিই জানি। আমি বাধ্য হয়ে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করেছি।

মামলার আইনজীবী মো. এনামুল হক এনাম জানান, আমি এই অসহায় মায়ের পক্ষ হয়ে মামলা করেছি। তাদের বিরুদ্ধে আদালত ওয়ারেন্ট জারি করেন। আজ তারা জামিনের জন্য আসলে আদালত তাদের জামিন নামঞ্জুর করেন। যতদিন এ অসহায় মা মামলাটি চালাতে চান, ততদিন আমি তার পাশে থাকব।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন