নিরাপদ সড়ক নিশ্চিতকরণে গণমাধ্যমের ভূমিকা অপরিসীম
jugantor
নিরাপদ সড়ক নিশ্চিতকরণে গণমাধ্যমের ভূমিকা অপরিসীম

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩:২৩:৪১  |  অনলাইন সংস্করণ

‘নিরাপদ সড়ক নিশ্চিতকরণে গণমাধ্যমের ভূমিকা অপরিসীম। সাংবাদিকদের লেখনির মাধ্যমে সড়কের সৃঙ্খলা সাধারণ মানুষের মাঝে পৌঁছাতে পারে। তাই সড়ক নিরাপদ করতে সাংবাদিকদের আরো এগিয়ে আসতে হবে।’

গ্লোবাল রোড সেইফটি পার্টনারশীপ (জিআরএসপি) এবং গ্লোবাল হেল্থ অ্যাডভোকেসি ইনকিউবেটর (জিএইচএআই) এর সহযোগিতায় ও ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের আয়োজনে রোড সেইফটি রিপোর্টিং বিষয়ক দুই দিনব্যাপী কর্মশালার আজ শেষ দিনে এসব কথা বলেন প্রশিক্ষকরা।

বুধবার ও বৃহস্পতিবার সাভারের আশুলিয়ার সিসিডিবি হোপ ফাউন্ডেশনে এই কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

কর্মশালায় প্রশিক্ষকরা আরো বলেন, দেশের সড়কে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে কিন্তু রোড ক্রাশের সংখ্যা প্রতিনিয়ত বাড়ছে। সড়ক যত উন্নত হচ্ছে যানবাহনের গতি ততই বাড়ছে সেই সাথে ঘটছে মর্মান্তিক রোড ক্রাশ। এসব রোড ক্রাশরোধে দরকার সচেতনতা। আর লেখনির মাধ্যমে মানুষের মাঝে সড়ক সচেতনা বাড়াতে পারে সাংবাদিকরা।

এই কর্মশালায় প্রশিক্ষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, গ্লোবাল রোড সেইফটি অ্যাডভোকেসি এন্ড গ্রান্টস প্রোগ্রাম ম্যানেজার তাইফুর রহমান, জিএইচএআই'র কান্ট্রি কো-অর্ডিনেটর ড. শরিফুল আলম, বিএনএনআরসির সিইও এ.এইচ.এম বজলুর রহমান, বাংলাভিশন টিভির সিনিয়র নিউজ এডিটর আবু রুশদ মোহাম্মদ রুহুল আমিন, ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন স্বাস্থ্য সেক্টরের পরিচালক ইকবাল মাসুদ, এক্সিডেন্ট রিসার্চ ইন্সটিটিউট, বুয়েটের সহকারী অধ্যাপক শাহনেওয়াজ হাসনাত-ই-রাব্বী।

উক্ত কর্মশালায় দেশের শীর্ষ স্থানীয় ২০টি গণমাধ্যমকর্মীরা অংশগ্রহণ করেন। প্রশিক্ষণ শেষে শিক্ষার্থীদের মাঝে সনদ বিতরণ করা হয়।

নিরাপদ সড়ক নিশ্চিতকরণে গণমাধ্যমের ভূমিকা অপরিসীম

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ১১:২৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

‘নিরাপদ সড়ক নিশ্চিতকরণে গণমাধ্যমের ভূমিকা অপরিসীম। সাংবাদিকদের লেখনির মাধ্যমে সড়কের সৃঙ্খলা সাধারণ মানুষের মাঝে পৌঁছাতে পারে। তাই সড়ক নিরাপদ করতে সাংবাদিকদের আরো এগিয়ে আসতে হবে।’

গ্লোবাল রোড সেইফটি পার্টনারশীপ (জিআরএসপি) এবং গ্লোবাল হেল্থ অ্যাডভোকেসি ইনকিউবেটর (জিএইচএআই) এর সহযোগিতায় ও ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের আয়োজনে রোড সেইফটি রিপোর্টিং বিষয়ক দুই দিনব্যাপী কর্মশালার আজ শেষ দিনে এসব কথা বলেন  প্রশিক্ষকরা।

বুধবার ও বৃহস্পতিবার সাভারের আশুলিয়ার সিসিডিবি হোপ ফাউন্ডেশনে এই কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

কর্মশালায় প্রশিক্ষকরা আরো বলেন, দেশের সড়কে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে কিন্তু রোড ক্রাশের সংখ্যা প্রতিনিয়ত বাড়ছে। সড়ক যত উন্নত হচ্ছে যানবাহনের গতি ততই বাড়ছে সেই সাথে ঘটছে মর্মান্তিক রোড ক্রাশ। এসব রোড ক্রাশরোধে দরকার সচেতনতা। আর লেখনির মাধ্যমে মানুষের মাঝে সড়ক সচেতনা বাড়াতে পারে সাংবাদিকরা।

এই কর্মশালায় প্রশিক্ষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, গ্লোবাল রোড সেইফটি অ্যাডভোকেসি এন্ড গ্রান্টস প্রোগ্রাম ম্যানেজার তাইফুর রহমান, জিএইচএআই'র কান্ট্রি কো-অর্ডিনেটর ড. শরিফুল আলম, বিএনএনআরসির সিইও এ.এইচ.এম বজলুর রহমান, বাংলাভিশন টিভির সিনিয়র নিউজ এডিটর আবু রুশদ মোহাম্মদ রুহুল আমিন, ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন স্বাস্থ্য সেক্টরের পরিচালক ইকবাল মাসুদ, এক্সিডেন্ট রিসার্চ ইন্সটিটিউট, বুয়েটের সহকারী অধ্যাপক শাহনেওয়াজ হাসনাত-ই-রাব্বী।

উক্ত কর্মশালায় দেশের শীর্ষ স্থানীয় ২০টি গণমাধ্যমকর্মীরা অংশগ্রহণ করেন। প্রশিক্ষণ শেষে শিক্ষার্থীদের মাঝে সনদ বিতরণ করা হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন