অপহরণ আতংকে ইভটিজিংয়ের শিকার দুই যমজ বোন পালিয়ে ইউএনওকে অভিযোগ

  চরভদ্রাসন (ফরিদপুর) প্রতিনিধি ০৪ জুলাই ২০১৮, ২০:২৫ | অনলাইন সংস্করণ

জমজ দুই বোন কাজল ও রেখা
জমজ দুই বোন কাজল ও রেখা। ছবি: যুগান্তর

ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলায় ইভটিজিংয়ের শিকার দুই যমজ বোন অপহরণ আতংকে গ্রাম থেকে পালিয়ে ইউএনওর কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

বুধবার দুপুরে গাজীরটেক ইউনিয়নের চরসুলতানপুর গ্রাম থেকে পালিয়ে গিয়ে ইউএনওর কাছে লিখিত অভিযোগ দেয় তারা।

ওই দুই যমজ বোন কাজল ও রেখা (১৩) গাজীরটেক ইউনিয়নের গ্রামের শহিদুল ইসলাম মণ্ডলের মেয়ে। তারা দুজনই চরহাজীগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী।

স্থানীয় সূত্র জানায়, একই ইউনিয়নের বেপারী ডাঙ্গী গ্রামের মাদকাসক্ত মিজান (২৫), তামেল (২২), আকমাল (২১), রাজু (২২), রনি (২০), রাশেদ (২১) ইমরান বেপারী (২৩) ও আইয়ুব খালাসী (২৫) মিলে কিছুদিন ধরে ওই দুই যমজ কিশোরীকে স্কুলে যাওয়া আসার পথে উত্ত্যক্ত করে চলছিল। দুদিন আগে ভাইয়ের মোটরসাইকেলে চড়ে স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে কাজলকে বখাটেরা অপহরণের চেষ্টা করে।

এ সময় বাধা দিতে গেলে কাজলের ভাই রাকিব হোসেন (২৪) আহত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছে। একই ঘটনার জের ধরে বুধবার বেলা ১১টায় ওই বখাটে দল যমজ বোনের বাড়ির উঠানে এসে অন্য দুই চাচাতো ভাই বাসার মণ্ডল (৪২) ও তুষার মণ্ডলকে (২৪) হাতুড়িপেটা করে গুরুতর আহত করেছে।

আহতদের চরভদ্রাসন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আর ভাইদের ওপর বখাটে গ্রুপের হামলা চলাকালে দুই যমজ বোন বাড়ি থেকে পালিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে গিয়ে অভিযোগ পেশ করে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার কামরুন নাহার বলেন, আমি দ্রুত ওই এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালাব এবং বখাটেদের পেলেই মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে জেল দিয়ে দেব।

গাজীরটেক ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. ইয়াকুব আলী জানান, ওই নেশাখোর বখাটে গ্রুপটি এলাকায় অতিরিক্ত অন্যায় করে চলেছে। প্রকাশ্যে স্কুলছাত্রী অপহরণের চেষ্টা চালানোর পরও তারা অস্ত্র নিয়ে এলাকায় ঘুরে বেড়ায়। স্থানীয় কোনো মুরব্বির কথাও বখাটেরা মানে না, বিধায় আইনের শাসন ছাড়া আর কোনো পথ নেই বলেও তিনি জানান।

নির্যাতনের শিকার যমজ দুই বোন চরভদ্রাসন প্রেসক্লাবে গিয়ে সাংবাদিকদের জানায়, গত ডিসেম্বর থেকে ওই বখাটে গ্রুপ দুই কিশোরীর পিছু লেগেছে। কিশোরীরা স্কুলে ও প্রাইভেট পড়তে যাওয়া আসার সময় প্রতিনিয়ত কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। কিছুদিন আগে টিফিন আওয়ারে ওই বিদ্যালয়ের পাশ থেকে দুই কিশোরীকে কুপ্রস্তাব দিয়ে হাত ধরে টানাটানি করে ব্যর্থ হয়। এরপর গত শনিবার কিশোরী কাজল স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার জন্য তার ভাইয়ের মোটরসাইকেলে উঠলে বখাটে গ্রুপ মোটরসাইকেল তেকে টেনেহিঁচড়ে নামিয়ে অপহরণের চেষ্টা চালায়।

এ সময় ভাই রাকিব হোসেন বাধা দিতে গেলে বখাটেরা তাকে এলোপাতাড়ি কিলঘুষি ও লাথি মেরে গুরুতর আহত করে। স্থানীয় গ্রাম্য মাতুব্বররা ওই বিষয়টি নিয়ে আপস মীমাংসার বৈঠক করার অজুহাত দেখিয়ে আইনের আশ্রয় নিতে দেয় নাই বলে কিশোরীরা জানায়।

এ ব্যাপারে চরভদ্রাসন থানার ওসি রাম প্রসাদ ভক্ত বলেন, গত শনিবারে ইভটিজিংয়ের ঘটনায় কিশোরীর পরিবারের কেউ আমার কাছে আসে নাই, তবে বুধবার পুনরায় বখাটেরা হামলার চালিয়েছে বলে খবর পেয়ে সরেজমিন পরিদর্শন করেছি এবং বখাটেরা গাঢাকা দিয়ে আছে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×