ছাত্রদলের মিছিলে পুলিশের লাঠিচার্জ, আটক ২

প্রকাশ : ০৫ জুলাই ২০১৮, ১৭:৩০ | অনলাইন সংস্করণ

  নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশের লাঠিচার্জ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় পুলিশের লাঠিচার্জে অন্তত ৫ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। আটক করা হয়েছে দুজনকে। 

এদিকে একই সময়ে পৃথক স্থানে জেলা ছাত্রদলের আয়োজিত মিছিলে পুলিশের ধাওয়া খেয়ে কর্মীদের রেখেই পালিয়ে গেছেন জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনি ও সাধারণ সম্পাদক সজীব। এ নিয়ে জেলা ছাত্রদলের উপস্থিত কর্মীরা ২ নেতার প্রতি তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে কর্মসূচি ত্যাগ করেন।  

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি শাহেদ আহমেদের নেতৃত্বে শহরের চাষাঢ়া বালুর মাঠের সড়ক দিয়ে মিছিল নিয়ে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে গেলে পুলিশ তাদের বাধা দেয়। এ সময় সেখানেই সংক্ষিপ্ত বিক্ষোভ সমাবেশ করেন নেতাকর্মীরা। 

সমাবেশে মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি শাহেদ আহমেদ বলেন, শান্তিপূর্ণভাবে মিছিল সমাবেশ করার অধিকার যেখানে থাকে না, সেখানে গণতন্ত্র মৃত। তিন-তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে যেভাবে মিথ্যা মামলায় কারাগারে রাখা হয়েছে তা নজিরবিহীন। 

সমাবেশ শেষে পুনরায় মিছিলটি প্রধান সড়কে উঠতে গেলে এ নিয়ে পুলিশের সঙ্গে নেতাকর্মীদের ধস্তাধস্তি শুরু হয়। এ সময় পুলিশ লাঠিচার্জ শুরু করে।  এতে আহত হন ছাত্রদল নেতা রিপন সরকারসহ ৫ নেতাকর্মী। 

পুলিশ এ সময় তাদের ব্যানার কেড়ে নেয় এবং সুমন ও ওমর খইয়াম নামে দুজনকে আটক করে। 

অপরদিকে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে জেলা ছাত্রদলের পক্ষ থেকে শহরের ডাকবাংলো মোড় থেকে একটি মিছিল চাষাঢ়া গোলচত্বরে পৌঁছালে শহীদ মিনারে অপেক্ষায় থাকা পুলিশ তাদের ধাওয়া দেয়। 

এ সময় মিছিলের ব্যানার ও নেতাকর্মীদের ফেলে পালিয়ে যান জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনি ও সাধারণ সম্পাদক সজিবসহ সিনিয়র নেতারা।

এ ব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার পরিদর্শক (অপারেশন) জয়নাল জানান, শান্তিপূর্ণ সমাবেশে আমরা কোনো বাধা দেইনি। জনগণের নিরাপত্তায় ব্যাঘাত ঘটানোর চেষ্টা করায় দুজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।