রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন

মনোনয়ন প্রত্যাহার করে আ’লীগের লিটনকে সমর্থন দিল জাপা

প্রকাশ : ০৭ জুলাই ২০১৮, ১৭:০৬ | অনলাইন সংস্করণ

  রাজশাহী ব্যুরো

ছবি: যুগান্তর

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন (রাসিক) নির্বাচনে জাতীয় পার্টির মনোনীত মেয়রপ্রার্থী ওয়াসিউর রহমান দোলন প্রার্থিতা প্রত্যাহার করেছেন।

শনিবার সকাল ১১টার দিকে পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের নির্দেশে তিনি নির্বাচন কমিশন থেকে তার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

এরপর রাজশাহী চেম্বার অব কর্মাস অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি ভবনে দুপুরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগ মনোনীত এবং ১৪ দল সমর্থিত মেয়রপ্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের হাতে ফুলের তৈরি নৌকা উপহার দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে সমর্থন দেন জাতীয় পার্টির (জাপা) নেতারা। এ সময় উল্লসিত দুই দলের নেতারা একে অপরকে মিষ্টিমুখ করান।

সংবাদ সম্মেলনে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেয়া জাতীয় পার্টির মেয়রপ্রার্থী ওয়াসিউর রহমান দোলন বলেন, গত বৃহস্পতিবার পার্টির চেয়ারম্যান আমাকে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিতে বলেন। এ নিয়ে দু’দফা সভা করে জেলা ও মহানগর জাপা। এরপর দলের নেতাদের সঙ্গে নির্বাচন অফিসে গিয়ে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছি। রাজশাহীর উন্নয়নের স্বার্থে কেন্দ্রের নির্দেশে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে। জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা এখন খায়রুজ্জামান লিটনের সমর্থনে কাজ করবেন।

সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের মেয়রপ্রার্থী সাবেক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, জাতীয় পার্টির সমর্থন দেয়ার মধ্য দিয়ে আমরা জয়ের পথে অনেক দূর এগিয়ে গেলাম। আগামীতে আমরা কাঁধে কাঁধ রেখে সবাই একসঙ্গে রাজশাহীর উন্নয়নে কাজ করব। বড় বড় প্রকল্প এনে রাজশাহীকে মেগা সিটি হিসেবে গড়ে তোলা হবে।

লিটন আরও বলেন, বাংলাদেশ আজ দুভাগে বিভক্ত। এর মধ্যে বৃহত্তম অংশ মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের। আর দেশের উন্নয়নবিরোধী কিছু অংশ রয়েছে যারা বিএনপি-জামায়াত। রাজশাহীতেও তারা আছে। তাদের বিরুদ্ধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। আর ঐক্যবদ্ধ থেকেই রাজশাহীর উন্নয়নে সর্বোচ্চ ভূমিকা রাখতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে মহানগর জাতীয় পার্টির সভাপতি শাহাবুদ্দিন বাচ্চু বলেন, আমরা উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে চাই। এর আগে মাত্র সাড়ে চার বছর এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন মেয়রের দায়িত্বপালন করেছেন। সে সময় তিনি রাজশাহীর সব সেক্টরে অভূতপূর্ব উন্নয়ন করেছেন। কিন্তু পরবর্তীতে উন্নয়নের সে ধারা থমকে গেছে। রাজশাহীকে একটি আধুনিক নগরীতে পরিণত করতে কেন্দ্রের নির্দেশে লিটন ভাইকে সমর্থন দিয়েছি।

বিএনপির মনোনীত মেয়রপ্রার্থী ও সদ্যবিদায়ী মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের সমালোচনা করে শাহাবুদ্দিন বাচ্চু বলেন, বুলবুল মানুষের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন। মানুষ এখন অনেক সচেতন। তারা জানেন কাকে ভোট দিলে উন্নয়ন হবে। এ কারণে রাজশাহীর  উন্নয়ন করতে ব্যর্থ সদ্যবিদায়ী মেয়র বুলবুলকে রাজশাহীর মানুষ প্রত্যাখ্যান করবেন। আর উন্নয়ন নিশ্চিত করতে লিটনকে ভোট দেবেন।

রাজশাহী মহানগর জাতীয় পার্টির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন মিন্টুর সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন- মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, জাতীয় পার্টি রাজশাহী মহানগর সাধারণ সম্পাদক খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান ডালিম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহিনুল ইসলাম শাহীন প্রমুখ। এ সময় মহানগর আওয়ামী লীগ এবং জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।