রাসিক নির্বাচন: এক মেয়রসহ ৯ প্রার্থীর মনোনয়ন প্রত্যাহার

  রাজশাহী ব্যুরো ০৯ জুলাই ২০১৮, ১৮:০৬ | অনলাইন সংস্করণ

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন (রাসিক) নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের সময় শেষ হয়েছে সোমবার। শেষ দিনের তথ্যানুযায়ী একজন মেয়র এবং আটজন কাউন্সিলর তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন।

মঙ্গলবার প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। প্রতীক পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই প্রচারণায় নামতে পারবেন প্রার্থীরা।

গত ৭ জুলাই জাতীয় পার্টির মনোনীত মেয়রপ্রার্থী ওয়াসিউর রহমান দোলন আওয়ামী লীগ লীগ প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনকে সমর্থন দিয়ে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন। এর ফলে মেয়র পদে লড়াইয়ে আছেন পাঁচজন প্রার্থী।

তারা হলেন- আওয়ামী লীগ মনোনীত এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, বিএনপি সমর্থিত মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির হাবিবুর রহমান, গণসংহতি আন্দোলনের অ্যাডভোকেট মুরাদ মোর্শেদ এবং ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী শফিকুল ইসলাম।

এছাড়া সোমবার শেষ দিনে আটজন সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন। তারা হলেন- ৫ নম্বর ওয়ার্ডে খসরু আহমেদ, ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে শাহীন শেখ, একই ওয়ার্ডে মীর হানিফ মোহাম্মদ, ২১ নম্বর ওয়ার্ডে সোহেল রানা, ২২ নম্বর ওয়ার্ডে জাবেদুর রহমান ও জাহেদুর রহমান খান, ২৮ নম্বর ওয়ার্ডে রমজান আলী এবং ২৯ নম্বর ওয়ার্ডে আবু হানিফ টনি।

এর ফলে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১৬০ জন এবং সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে ৫২ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আছেন। জেলার সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা ও রাসিক নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা আতিয়ার রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে গত ১৩ জুলাই নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। সেদিন থেকেই নির্বাচন কমিশন থেকে প্রার্থীদের মধ্যে মনোনয়নপত্র বিতরণ শুরু হয়। ২৮ জুলাই পর্যন্ত মনোনয়নপত্র বিতরণ ও জমা নেয়া হয়।

মেয়র পদে ছয়জন, সাধারণ কাউন্সিলরে ১৬৯ জন এবং নারী কাউন্সিলর পদে ৫২ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করে জমা দেন।

এরপর ১ ও ২ জুলাই মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই করা হয়। এতে গণসংহতি আন্দোলনের মেয়রপ্রার্থী অ্যাডভোকেট মুরাদ মোর্শেদ এবং তিন কাউন্সিলর প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করা হয়। তবে আপিল করে মেয়রপ্রার্থী মুরাদ এবং দুই কাউন্সিলর প্রার্থী তাদের প্রার্থিতা ফিরে পান।

সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা আতিয়ার রহমান আরও জানান, মঙ্গলবার প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ করা হবে। জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে সকাল ১০টায় প্রার্থীদের উপস্থিতিতেই শুরু হবে এ কার্যক্রম। প্রতীক পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই প্রচারণায় নামতে পারবেন প্রার্থীরা।

আগামী ২৮ জুলাই রাত ১২টা পর্যন্ত প্রচার-প্রচারণা চলবে। আর ভোটগ্রহণ করা হবে ৩০ জুলাই।

ঘটনাপ্রবাহ : রাজশাহী-বরিশাল-সিলেট সিটি নির্বাচন ২০১৮

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter