প্রতিপক্ষ প্রার্থী বুলবুলকে বুকে জড়িয়ে ধরলেন লিটন

  রাজশাহী ব্যুরো ১৮ জুলাই ২০১৮, ২০:৪৮ | অনলাইন সংস্করণ

বুলবুলকে বুকে জড়িয়ে ধরলেন লিটন

বৃহত্তর রাজশাহীর রাজনীতিতে এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন এবং মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বী। ২০০৮ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদে নির্বাচনে তিনবার একে অপরের মুখোমুখি হয়েছেন এ দুই নেতা।

আবার রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ এবং মহানগর বিএনপির সভাপতির দায়িত্বেও রয়েছেন তারা।

কিন্তু আবারও রাজশাহীর রাজনৈতিক অঙ্গনে মহানুভবতা ও সম্প্রীতির এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়রপ্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।

বুধবার দুপুরে রাজশাহী কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড মিলনায়তনে মতবিনিময় সভায় উপস্থিত সব মেয়র এবং সাধারণ ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থীদের অবাক করে দিয়ে প্রতিপক্ষ বিএনপির মেয়রপ্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে বুকে জড়িয়ে নেন। এরপর বুলবুলের সঙ্গে কোলাকুলি করেন লিটন।

উপস্থিত প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাজশাহী কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড মিলনায়তনে বুধবার দুপুরে রাসিক নির্বাচনে প্রার্থীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভার আয়োজন করে রাজশাহী আঞ্চলিক নির্বাচন কার্যালয়। সভায় নির্বাচন কমিশনার শাহাদত হোসেন চৌধুরী, নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ, রাজশাহী মহানগর পুলিশ কমিশনার একেএম হাফিজ আক্তার, জেলা প্রশাসক এসএম আবদুল কাদেরসহ নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী মেয়র, কাউন্সিলর ও নারী কাউন্সিলর প্রার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় লিটনের আগে বিএনপির প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল বক্তব্য দেন। বুলবুল তার বক্তব্যে নানান অভিযোগ ও নির্বাচন কমিশানের কাছে তার প্রত্যাশাও তুলে ধরেন।

বুলবুলের বক্তব্য দেয়ার পর বক্তব্য দিতে মঞ্চে ওঠেন এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। সাত মিনিটের বক্তব্য শেষ করে মঞ্চের সামনে প্রার্থীদের বসে থাকার নির্ধারিত স্থানে এসে সেখানে বসে থাকা বিএনপির প্রার্থী বুলবুলের সঙ্গে হাত মেলান এবং বুকে জড়িয়ে ধরে কোলাকুলি করেন খায়রুজ্জামান লিটন।

এরপর বুলবুল ও নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হক মিলনের মাঝে শোফায় বসে যান তিনি। এ সময় বুলবুলের পাশে বসে ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সাবেক মেয়র মিজানুর হমান মিনু। লিটনের এই সম্প্রীতির দৃশ্য দেখে হাততালি দেন উপস্থিত অন্য মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা।

প্রসঙ্গত, এর আগে গত ৬ জুলাই রাজশাহী কলেজ মাঠে একটি বেসরকারি টেলিভিশনের নির্বাচনী টকশোতে অংশ নিয়েছিলেন এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন এবং মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল। টকশো শেষে কোনো কথা না বলে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে বুলবুল চলে যেতে কিছুদূর এগিয়ে গেলে খায়রুজ্জামান লিটন বুলবুলের দিকে এগিয়ে গিয়ে তার সঙ্গে কোলাকুলি করেছিলেন। এ ঘটনাতেও সর্বমহলে প্রশংসিত হয়েছিলেন লিটন।

ঘটনাপ্রবাহ : রাজশাহী-বরিশাল-সিলেট সিটি নির্বাচন ২০১৮

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×