যুগান্তরের গোলটেবিল : কেমন মেয়র চাই

ভয়ভীতি বন্ধ করে সিলেটে সুষ্ঠু নির্বাচন চান আরিফ

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৩ জুলাই ২০১৮, ১৯:০৫ | অনলাইন সংস্করণ

আরিফুল হক চৌধুরী
যুগান্তর আয়োজিত গোলটেবিল বৈঠকে আরিফুল হক চৌধুরী। ছবি: যুগান্তর

সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত মেয়রপ্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী বলেছেন, সিলেটে নেতাকে না পেয়ে তার ছেলেকে ধরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। কে, কেন কোথায় নিয়ে গেছে তা-ও বলছে না। এতে মানুষের মধ্যে ভয়ভীতি সৃষ্টি হচ্ছে।

এ অবস্থার অবসান ঘটিয়ে পুণ্যভূমিখ্যাত সিলেটের মর্যদা রক্ষায় সরকার ও নির্বাচন কমিশনকে আরও দায়িত্বশীল হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। তার প্রত্যাশা সম্প্রীতির সিলেটের নির্বাচন হবে অবাধ ও সুষ্ঠু।

সোমবার সকালে সিসিক নির্বাচন ২০১৮ সামনে রেখে সিলেটে দৈনিক যুগান্তর আয়োজিত ‘কেমন মেয়র চাই’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে বিএনপির এ মেয়রপ্রার্থী এসব কথা বলেন।

আরিফ হক চৌধুরী বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধ, হযরত শাহজালাল (রহ.), শাহপরাণ (রহ.) ও বঙ্গবীর ওসমানীর স্মৃতিসহ সিলেটের ইতিহাস-ঐতিহ্য আমরা এখনও যথাযথভাবে সংরক্ষণ করতে পারিনি। আগামীতে আমরা জাদুঘর স্থাপনের মাধ্যমে সংরক্ষণের ব্যবস্থা করা করব।

সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের প্রত্যশার জবাবে তিনি বলেন, স্যুয়ারেজ ব্যবস্থা না থাকায় নগরীর পরিবেশ ঝুঁকিপূর্ণ। স্যুয়ারেজ ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণের জন্য মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছি। মন্ত্রণালয় পরিকল্পনা করার নির্দেশ দিয়েছে। তবে এটা দীর্ঘমেয়াদি কাজ। বাস্তবায়ন হলেই নগরীর পরিবেশ সুন্দর হবে।

আরিফ বলেন, সিলেটের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য রয়েছে, তাই এই শহরে একটা সাংস্কৃতিক একাডেমি খুবই প্রয়োজন। নির্বাচিত হলে জালালাবাদ পার্ক এলাকায় সাংস্কৃতিক একাডেমি করা হবে।

তিনি বলেন, এই শহরকে পরিকল্পিত নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে হলে ‘সেন্ট্রালাইজড’ করতে হবে। সব কিছু এক জায়গায় জমা করে রাখলে চলবে না।

সদ্য সাবেক এই মেয়র বলেন, গণপরিবহনের জন্য উদ্যোগ নিয়েছিলাম। এর জন্য জায়গা লাগবে। ১০-১৫টি গাড়ি হলে চলবে না, কমপক্ষে ১৫০-২০০ গাড়ি লাগবে। এসব গণপরিবহন চলাচলের জন্য পৃথক লেনও করতে হবে রাস্তায়। নির্বাচিত হলে চালু করব।

মাস্টারপ্ল্যান সম্পর্কে আরিফ বলেন, দেশের প্রখ্যাত বিশেষজ্ঞদের নিয়ে বসার পর তারা জানালেন পূর্বের করা মাস্টারপ্ল্যান বাস্তবায়নযোগ্য নয়। তাই এটি পুনরায় রিভিউর প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে।

তিনি বলেন, নগরীর বিশুদ্ধ পানি উত্তোলনের একটি সোর্স পাওয়া গেছে। বিমানবন্দর এলাকার চেঙেরখালে। ৫০ বছরের পরিকল্পনা নিয়ে কাজ প্রক্রিয়াধীন।

আরিফ বলেন, ফুটপাত দখলমুক্ত করতে সমন্বিত উদ্যোগ নিলে এক সপ্তাহের ব্যাপার। এছাড়াও ১৩৯ কিলোমিটার ফুটপাতের ডিজাইন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।

দলীয় নেতাকর্মীদের হয়রানি ও গ্রেফতারের অভিযোগ ধানের শীষের প্রার্থী আরিফ বলেন, এই সিলেটে দীর্ঘ যুগের সম্প্রীতি রয়েছে। যেখানে সরকারপ্রধান বলছেন, মানুষের ভোটের অধিকার নিশ্চিতের কথা সেখানে প্রশাসনের অতিউৎসাহী কিছু কর্মকর্তা পরিবেশ ঘোলাটে করছে।

তিনি বলেন, জানি কামরান ভাই ভালো মানুষ তিনি এগুলো করবেন না। যারা পরিবেশ ঘোলাটে করছে তারা কারা? আশা করি সরকারদলীয় প্রার্থী হিসেবে কামরান ভাই এ ব্যাপারে ভূমিকা রাখবেন। দু’একদিন আগে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর নির্বাচনী কার্যালয়ে আগুন দেয়া হয়েছে এটা অত্যন্ত দুঃখজনক। যারা এর সঙ্গে জড়িত তাদের শাস্তি দেন। আমাদের কেউ জড়িত থাকলে নাম-ঠিকানা দিন আমরাই তাকে পুলিশে সোপর্দ করব। কিন্তু এই ঘটনাকে পুঁজি করে প্রতিটি নেতাকর্মীদের বাসাবাড়িতে তল্লাশি, গ্রেফতার ও হয়রানি করা হচ্ছে। নেতাকে না পেয়ে তার ছেলেকে ধরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। কে, কেন কোথায় নিয়ে গেছে তা-ও বলছে না। এতে মানুষের মধ্যে ভয়ভীতি সৃষ্টি হচ্ছে। সামনে জাতীয় নির্বাচনে এর বিরূপ প্রতিক্রিয়া পড়বে।

বিএনপির মেয়রপ্রার্থী আরিফ বলেন, আমরা এখন আশা করছি সরকার ও নির্বাচন কমিশন পূণ্যভুমির মর্যদা রক্ষায় আরও দায়িত্বশীল হবেন। সম্প্রীতির সিলেটে অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচনের প্রত্যাশা করছি।

ঘটনাপ্রবাহ : রাজশাহী-বরিশাল-সিলেট সিটি নির্বাচন ২০১৮

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter