জাফর ইকবালের ওপর হামলায় ৬ জন অভিযুক্ত

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৫ জুলাই ২০১৮, ২০:৫৪ | অনলাইন সংস্করণ

জাফর ইকবালের ওপর হামলায় ৬ জন অভিযুক্ত
চিকিৎসা শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন জাফর ইকবাল। ফাইল ছবি

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চে জনপ্রিয় লেখক ও শিক্ষবিদ অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের ওপর হামলার ঘটনায় ৬ জনকে অভিযুক্ত করে বৃহস্পতিবার আদালতে চার্জশিট দাখিল করতে যাচ্ছে পুলিশ।

বুধবার বিকালে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান সিলেট মহানগর পুলিশের কার্যালয়ে অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার পরিতোষ ঘোষ।

চার্জশিটে অভিযুক্ত ৬ জন হলেন- ছুরি নিয়ে হামলাকারী প্রধান আসামি ফয়জুল হাসান ফয়েজ, তার বাবা হাফেজ মাওলানা আতিকুর রহমান ও মা মোছাম্মৎ মিনারা বেগম, মামা মো. ফজলুর রহমান, ফয়েজের ভাই এনামুল হাসান এবং ফয়েজের বন্ধু মো. সোহাগ মিয়া। এরা সবাই আটক আছেন।

অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার পরিতোষ ঘোষ বলেন, ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালকে হত্যাচেষ্টা মামলায় ছয়জনকে অভিযুক্ত করে বৃহস্পতিবার আদালতে চার্জশিট দাখিল করা হবে।

তিনি বলেন, মামলার প্রধান আসামি ফয়জুল হাসান নিজেই জাফর ইকবালকে হত্যার পরিকল্পনা করে। ৩-৪ মাস থেকেই সে জাফর ইকবালকে হত্যার সুযোগ খুঁজতে থাকে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা আদালতে স্বীকার করেছে ফয়জুল।

উল্লেখ্য, গত ২ মার্চ শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চে ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের উদ্যোগে আয়োজিত ‘ইইই ফেস্টিভ্যালে’ জাফর ইকবাল বক্তব্য দেয়ার সময় তার মাথার পেছনে, হাতে এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছুরি দিয়ে আঘাত করে ফয়জুল হাসান ফয়েজ।

এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মুহাম্মদ ইশফাকুল হোসেন বাদী হয়ে সিলেট মহানগর পুলিশের জালালাবাদ থানায় একটি হত্যাচেষ্টা মামলা করেন।

ঘটনাপ্রবাহ : ড. জাফর ইকবাল ছুরিকাঘাত

আরও
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×