শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সমর্থনে ফেসবুকে স্ট্যাটাস, অন্তঃসত্ত্বা শিক্ষিকা গ্রেফতার

প্রকাশ : ০৫ আগস্ট ২০১৮, ১৮:২৬ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক

গ্রেফতার নুসরাত জাহান সোনিয়া। ছবি: সংগৃহীত

নিরাপদ সড়কের দাবিতে স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীদের চলা আন্দোলনে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ার অভিযোগে এক অন্তঃসত্ত্বা স্কুল শিক্ষিকাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।   তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) আইনের ৫৭ ধারায় ওই শিক্ষিকার বিরুদ্ধে মামলা করে কলাপাড়া থানা পুলিশ। পরে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

গ্রেফতার হওয়া শিক্ষিকা নুসরাত জাহান সোনিয়া পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার নেছারাবাদ গ্রামের বাসিন্দা।  তিনি দক্ষিণ টিয়াখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত।

রোববার দক্ষিণ টিয়াখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তার বিরুদ্ধে ফেসবুকে উসকানিমূলক বক্তব্য দেয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে।

কলাপাড়া জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতে পুলিশ ওই শিক্ষিকার বিরুদ্ধে সাতদিনের রিমান্ড আবেদন করে।  কিন্তু গ্রেফতার শিক্ষিকা অন্তঃসত্ত্বা হওয়ায় মানবিক দিক বিবেচনা করে দুদিন তাকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দেন আদালত।

জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহফুজুর রহমান গণমাধ্যমকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেফতার শিক্ষিকা নুসরাত জাহান সোনিয়ার ফেসবুকে দেয়া স্ট্যাটাস

উল্লেখ্য, গত ২৯ জুলাই কুর্মিটোলায় জাবালে নূর পরিবহনের বাসচাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহত হন। এছাড়া আহত হন বেশ কয়েকজন। নিহত শিক্ষার্থীরা হল শহীদ রমিজউদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের একাদশ শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রী দিয়া খানম মীম ও দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আবদুল করিম রাজীব।

স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা রাস্তার অবস্থান নেওয়ার পর থেকে ঢাকার অভ্যন্তরীণ সড়কগুলোয় বাস চলাচল একেবারেই কমে যায়। এমনকি আন্তজেলা বাস চলাচলও বন্ধ করে দিয়েছেন মালিক ও শ্রমিকরা।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিহতদের প্রত্যেক পরিবারকে এরই মধ্যে ২০ লাখ টাকার অনুদান দিয়েছেন।  নৌমন্ত্রী শাজাহান খানও নিহতদের প্রত্যেক পরিবারকে পাঁচ লাখ টাকা অনুদান দিয়েছেন।

এরই মধ্যে গণপরিবহন মালিক-শ্রমিক সমিতির নেতারা বলেছেন, নিরাপদ বোধ না করা পর্যন্ত তাঁরা রাস্তায় বাস নামাবেন না। ফলে অঘোষিত ধর্মঘট চলছে।