দুর্ঘটনারোধে বগুড়ায় ট্রাক মালিক সমিতির ৬ পদক্ষেপ

প্রকাশ : ০৫ আগস্ট ২০১৮, ২০:৩৬ | অনলাইন সংস্করণ

  বগুড়া ব্যুরো

বগুড়ায় পণ্য পরিবহণ ব্যবস্থায় দুর্ঘটনা রোধে জেলা ট্রাক মালিক সমিতি ছয়টি পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। এ ব্যাপারে রোববার সকাল থেকে সমিতির পক্ষে মাইকিং করা হচ্ছে।

আগামী ২-১ দিনের মধ্যে বিভিন্ন স্থানে চেকপোস্ট স্থাপন করা হবে। ওইসব পদক্ষেপ পালন করা হচ্ছে কী না তা ওই চেকপোস্ট থেকে মনিটরিং করা হবে।

বগুড়া জেলা ট্রাক মালিক সমিতির পদক্ষেপগুলো হলো- ট্রাক কোনোভাবেই ঘণ্টায় ৪০ কিলোমিটার গতিসীমার উপরে চালানো যাবে না, ট্রাক চালানো অবস্থায় মোবাইল ফোন ব্যবহার করা যাবে না, দূরবর্তী যাত্রার ক্ষেত্রে প্রতি ট্রাকে বৈধ কাগজপত্রসহ দুজন চালক থাকতে হবে, ৬ চাকার ট্রাকে কোনো অবস্থাতেই ১৫ টনের অধিক মালামাল বহন করা যাবে না, ফিটনেসবিহীন ট্রাক রাস্তায় বের করা যাবে না এবং সামনের চাকা ব্লাস্ট, ব্রেক ফেল ও অন্যান্য যান্ত্রিক ত্রটি ছাড়া দুর্ঘটনা (যেমন: অভারট্রেকিং বা জোরে চালানো) ঘটলে ওই চালককে বগুড়া ট্রাক মালিক সমিতি ৫ বছরের জন্য চাকরি করতে দিবে না।

বগুড়া জেলা ট্রাক মালিক সমিতির সভাপতি আবদুল মান্নান জানান, বগুড়া জেলা ট্রাক মালিক সমিতি ও ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়ন যৌথভাবে যৌক্তিক কারণে নিরাপদ সড়কের দাবিতে সাধারণ শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সমর্থন দিয়েছেন। কিন্তু কিছু কুচক্রি মহল শিক্ষার্থীদের অসহিংস আন্দোলকে সহিংসতায় রূপ দিতে চাইছে।

এর নিন্দা জানিয়ে তিনি বলেন, বাস-কোচ মালিক-শ্রমিকদের চাপের মুখেও ট্রাক চলাচল অব্যাহত রেখেছেন। আর দুর্ঘটনা রোধে যে কোনো মূল্যে উল্লিখিত ৬টি পদক্ষেপ বাস্তবায়ন করা হবে। 

আবদুল মান্নান জানান, রোববার সকাল থেকে এ ব্যাপারে মাইকিং শুরু হয়েছে। আগামী ২-১ দিনের মধ্যেই বিভিন্ন স্থানে চেকপোস্ট বসানো হবে। ট্রাকের চালকরা শর্তগুলো মেনে চলছে কী না তা সেখান থেকে লক্ষ্য করা হবে।

তিনি এ ব্যাপারে সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগ ও জনগণের সহযোগিতা কামনা করেছেন।