ভৈরবে প্রেমে ব্যর্থ হয়ে প্রেমিকের আত্মহত্যা

  ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি ০৬ আগস্ট ২০১৮, ২২:০৬ | অনলাইন সংস্করণ

আত্মহত্যা

ভৈরবে প্রেমে ব্যর্থ হয়ে হুমায়ূন (২২) নামের এক প্রেমিক ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

সোমবার সকালে তার পরিবারের সদস্যরা বাসার ফ্যান থেকে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

হুমায়ূন কিশোরগঞ্জ জেলার কুলিয়ারচর উপজেলার মধ্য সালুয়া গ্রামের আ. রশিদের ছেলে। তারা পরিবারসহ ভৈরব শহরের রানীর বাজার এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় থাকেন।

গতকাল সোমবার গভীর রাতে ওই প্রেমিক গলায় ফাঁসি দিয়ে আত্মহত্যা করে।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, হুমায়ূনের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে একটি মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। মেয়েটি একটি মাদ্রাসায় চাকরি করত। ছেলেটি ভৈরব হাজী আসমত কলেজে লেখাপড়া করত কিন্ত এখন সে বাবার ব্যবসা দেখাশোনা করে। ঘটনা জানাজানি হলে প্রেমিক ছেলের বাবা বিয়েতে রাজি হয়নি।

এরই মধ্য গত ৫ বছর আগে মেয়েটির বিয়ে হয়ে যায়। এরপর থেকে হুমায়ূন তার বাবা মায়ের সঙ্গে ঘটনা নিয়ে বাসায় প্রায়ই ঝগড়া করত। এদিকে প্রেমিকার স্বামী প্রবাসে চলে গেলে দুজনের মধ্য ফেসবুক ও ফোন যোগাযোগ অব্যাহত থাকে। শুধু তাই নয় প্রায় সময়ই তারা সাক্ষাৎ করত গোপনে।

দুজনের ফেসবুক আইডিতে তাদের প্রেমের ব্যর্থতার নানা স্ট্যাটাস লিখত (যা আজও ফেসবুকে আছে)। গত ২৭ জুলাই প্রেমিক ছেলেটি তার আইডির প্রোফাইল ছবিতে একটি কার্টুনে ফাঁসির ঝুলন্ত লাশের ছবি আপলোড দেয়। ছবিটি এখনও রয়ে গেছে।

রোববার রাতে এ ঘটনা নিয়ে ছেলেটি তার মায়ের সঙ্গে ঝগড়া করে। রাতে ছেলেটি তার প্রেমিকাকে মোবাইল ফোনে বলে তুমি আমার ফোন রিসিভ কর না কেন। ফোন রিসিভ না করলে আমি আত্মহত্যা করব এ কথা বলে সে তার প্রেমিকাকে হুমকি দেয়।

একথা শুনে মেয়েটি হুমায়ূনের মাকে ফোন করে ঘটনা জানালে মা মেয়েটিকে ফোনে এবং তার ছেলেকে বাসায় বকাবকি করে। এরপর মেয়েটি রোববার রাতেই আবার হুমায়ূনকে ফোন করে। এ সময় সে

তাদের কথা বলার পর রাতের কোনো একসময় হুমায়ূন ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এব্যাপারে যুগান্তর প্রতিনিধি সোমবার বিকালে প্রেমিকা মেয়েটির মোবাইলে ফোন করে এসব ঘটনা জানতে চাইলে সে তার প্রেমের সব কাহিনী খুলে বলে এবং সব ঘটনা জানায়। প্রেমিকের মৃত্যুর খবর শুনে এই প্রতিনিধির কাছে কান্নায় ভেঙে পড়ে।

ভৈরব থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বাহারুল ইসলাম বাহার জানান, পুলিশ ঘটনার খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। প্রেমঘটিত ঘটনায় ছেলেটি আত্মহত্যা করেছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়া গেলে পরবর্তীতে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter