যুগান্তরে সংবাদ প্রকাশ

চাটমোহরে সেই দীপ্তি-তৃপ্তির পরিবারের পাশে ইউএনও

  চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি ১৪ আগস্ট ২০১৮, ২১:২৯ | অনলাইন সংস্করণ

চাটমোহরে সেই দীপ্তি-তৃপ্তির পরিবারের পাশে ইউএনও

মানবিকতার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন চাটমোহরের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সরকার অসীম কুমার।

সোমবার যুগান্তর অনলাইন সংস্করণে ‘অন্ধকারে চাঁদের আলো দীপ্তি-তৃপ্তি’ এমন শিরোনামে সচিত্র সংবাদ প্রকাশের পর মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ৩টার দিকে দীপ্তি-তৃপ্তিদের বাড়িতে যান ইউএনও। এ সময় তিনি তাদের পরিবারের কষ্টের কথা শোনেন এবং তাদের পুনর্বাসনের দায়িত্ব নেন।

সরকার অসীম কুমার বলেন, দীপ্তি-তৃপ্তিকে উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে দেয়া হবে সেলাই প্রশিক্ষণ। তাদের ভাঙাচোরা বসতঘর মেরামত এবং বাবা দুলাল চূর্ণকারকে যুব উন্নয়ন অফিসের মাধ্যমে গাভী পালনের প্রশিক্ষণ দিয়ে স্বাবলম্বী করে তোলা হবে। শুধু তাই নয়, বাড়িতে টয়লেট ও টিউবওয়েল স্থাপন এবং বিদ্যুৎ সংযোগের ব্যবস্থা করা হবে।

এ সময় চাটমোহর মহিলা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ শরিফ মাহমুদ সঞ্জু, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা আবদুল আলীম, চাটমোহর দলিল লেখক সমিতির সভাপতি রবিউল করিম, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক প্রবীর দত্ত চৈতন্য, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী রনি রায়সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, দারিদ্র্যতার কশাঘাতে জর্জরিত দিনমজুর দুলাল চূর্ণকার তার স্ত্রী দীপালি ও দুই মেয়ে দীপ্তি-তৃপ্তিকে নিয়ে ভাঙাচোরা একটি মাত্র টিনের ছাপড়া ঘরে বসবাস করে আসছেন দীর্ঘদিন। বাড়িতে নেই কোনো টিউবওয়েল, টয়লেট। নেই বিদ্যুৎ সংযোগও। অর্ধাহারে অনাহারে দিন কাটলেও সুবিধাবঞ্চিত পরিবারটির পাশে দাঁড়ায়নি কেউ।

তবে অন্ধকার ঘরে চাঁদের আলো হয়ে দেখা দিয়েছে বিএ শেষ বর্ষে পড়ুয়া দীপ্তি ও একাদশ শ্রেণিতে পড়ুয়া তৃপ্তি। অভাব অনটনকে জয় করে সুবিধাবঞ্চিত থেকেও পড়াশোনা চালিয়ে গেছে তারা দুই বোন।

অপরদিকে দুলালের দিনমজুরি করে উপার্জিত অর্থ দিয়ে চলে না সংসার। সোমবার যুগান্তরের পক্ষ থেকে অসহায় পরিবারটির কথা জানানো হলে দায়িত্ব নিতে চেয়েছিলেন ইউএনও সরকার অসীম কুমার। অবশেষে মঙ্গলবার বিকালে দীপ্তি-তৃপ্তিদের বাড়িতে যান তিনি।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter