নরসিংদীতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিবারে মাতম

  চাঁদপুর প্রতিনিধি ১৫ আগস্ট ২০১৮, ২১:২৭ | অনলাইন সংস্করণ

নরসিংদীতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের স্বজনদের আহাজারি

নরসিংদীতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত চাঁদপুরের সুজন বর্মণের গ্রামের বাড়িতে চলছে মাতম। বাবা হরে কৃষ্ণ বর্মণ ও মা রুমা রানী বর্মণ ছেলে, ছেলের বউ ও আদরের নাতনিকে হারিয়ে অনেকটা বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েছেন।

প্রতিবেশীরা সান্ত্বনা দেয়ার ভাষা খুঁজে পাচ্ছেন না। এলাকায় চলছে শোকাচ্ছন্ন পরিবেশ।

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার মালোপাড়ায় গিয়ে জানা যায়, নরসিংদী থেকে নববধূ নিয়ে ফেরার পথে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের শিবপুরে সোনাইমুড়ি ইটাখোলায় যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে তাদের মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ ঘটনায় নিহত চাঁদপুরের একই পরিবারের তিনজনের লাশ বুধবার ভোরে মতলব উত্তরের পারিবারিক চিতায় দাহ করা হয়।

দুর্ঘটনায় নিহতরা হলেন সুজন বর্মন (৩২), তার স্ত্রী ভুলু রানী মিতু (২৬) ও তাদের মেয়ে স্নিগ্ধা বর্মন (৭)। নিহত সুজন বর্মণ চট্টগ্রামে একটি গ্যারেজে চাকরি করতেন। স্ত্রীর ছোট ভাইয়ের বিয়েতে অংশ নিতে গত শনিবার তিনি বাড়ি আসেন।

নিহতদের পরিবারের লোকজন জানায়, সোমবার রাতে মতলব উত্তর উপজেলার ষাটনল মালোপাড়া এলাকার রাজিব বর্মণ রাজুর সঙ্গে নরসিংদীর মরজাল ইউনিয়নের নভোয়ারচর এলাকার রুমা বর্মণের বিয়ে হয়। বরযাত্রীর চারটি মাইক্রোবাসের মধ্যে বর-কনের গাড়িটি দুর্ঘটনার শিকার হয়।

নরসিংদিতে মঙ্গলবার সকালে ঘটা দুর্ঘটনায় একই পরিবারের তিনজনসহ সাতজন নিহত হন। আহত হন আটজন। এর মধ্যে বর-কনেসহ পাঁচজনের অবস্থা গুরুতর।

স্থানীয় চেয়ারম্যান এ কে এম শরীফুল্লাহ সরকার জানান, পরিবারটি মূলত হতদরিদ্র পরিবার। সুজনের আয়ে তাদের সংসার চলত। ছেলেসহ অন্যদের হারিয়ে পুরো পরিবারটি এখন অন্ধকার দেখছে।

 

 

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter