মাদারীপুরে শিক্ষকের শাসনে ছাত্রীর আত্মহত্যা!

  মাদারীপুর প্রতিনিধি ১৬ আগস্ট ২০১৮, ১৯:৪১ | অনলাইন সংস্করণ

মাদারীপুরে শিক্ষকের শাসনে ছাত্রীর আত্মহত্যার ঘটনায় শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ
মাদারীপুরে শিক্ষকের শাসনে ছাত্রীর আত্মহত্যার ঘটনায় শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

মাদারীপুর সদর উপজেলায় প্রধান শিক্ষক সবার সামনে শাসন করায় ক্ষোভে-অভিমানে বিষপান করে চরমুগরীয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির সাথি আক্তার (১৪)। অসুস্থ অবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

শনিবার সন্ধ্যায় বিষপান করলে তাকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। এরপর গুরুতর হওয়ায় ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার সকালে তার মৃত্যু হয়। তার মৃত্যুর খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে এলাকাবাসী বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করে।

নিহত সাথি মাদারীপুর সদর উপজেলার দুধখালী ইউনিয়নের পাতিলাদি গ্রামের মৃত ইকবাল ব্যাপারীর মেয়ে। সে চরমুগরীয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের মানবিক বিভাগের নিয়মিত ছাত্রী ছিল। তার বাবা না থাকায় সে সদর উপজেলার পেয়ারপুর ইউনিয়নের মধ্য পেয়ারপুর এলাকায় নানাবাড়ি থেকে চরমুগরীয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় পড়াশোনা করত।

পরিবার সূত্র জানায়, শনিবার সকলে বিদ্যালয়ে যাওয়ার পর টিফিনের সময় প্রধান শিক্ষকের কাছে অন্য এক ছাত্রী তাকে গালাগালি দিয়েছে বলে বিচার দেয়। প্রধান শিক্ষক দুজনকেই ডেকে এনে সবার সামনে শাসন করে এবং স্কেল দিয়ে মারধর করে। এতে লজ্জা পেয়ে স্থানীয় এক দোকান থেকে ঘাস মরে যায় এমন একটি ওষুধ কিনে বাড়ি যায়। পরে নিয়ে সন্ধ্যায় সেটা পান করে। এতে সে অসুস্থ হয়ে পড়ে।

এরপর ওই ছাত্রীর মামি মুক্তা বেগম বুঝতে পেরে অসুস্থতার কারণ জানতে চাইলে সাথি জানায়, স্যার তাকে স্কুলে সবার সামনে অনেক বাজে ভাষায় গালাগাল ও অনেক মারধর করেছে। তাই সেই লজ্জায় ঘাস মারার ওষুধ খেয়েছে।

মুক্তা বেগম জানান, সাথিকে ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক বাজে ভাষায় গালাগালি ও অনেক মারধর করায় লজ্জায় বিষ খাইছে। সাথি চিকিৎসাধীন অবস্থায় আমার কাছে বলেছে। আমরা অনেক চেষ্টা করছি সাথিকে বাঁচানোর জন্য কিন্তু পারলাম না। আমি ওই প্রধান শিক্ষকের বিচার চাই।

ওই ছাত্রী নিহত হওয়ার আগে চরমুগরীয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালায় প্রধান শিক্ষক মো. নুরু হোসেন সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, সাথি ও আর এক ছাত্রী গালাগালি করায়, আমি তাদের দুজনকেই ডেকে এনে সবার সামনেই সামন্য শাসন করে ক্লাসে পাঠিয়ে দিই। আর এই ঘটনা দুপুরে হয়েছে। তবে আমি এ রকম ঘটনা আশা করি নাই। আমি তার চিকিৎসার সব দায়ভার নিয়েছি।

তবে সাথি নিহত হওয়ার পর প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে আর যোগাযোগ করা যায়নি।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুমন দেব জানান, নিহত ছাত্রীর পরিবারে ও বিভিন্ন ছাত্রছাত্রীরা মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেছে। তবে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। তাদেরকে বিচারের আশ্বাস দেয়া হয়েছে।

এদিকে নিহত ছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে এখনো কোনো অভিযোগ করা হয় নাই বলে তিনি জানান।

 

 

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.