দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে গাড়ির দীর্ঘ লাইন

  রাজবাড়ী ১৭ আগস্ট ২০১৮, ১৫:০১ | অনলাইন সংস্করণ

ফেরিঘাট
দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে গাড়ির দীর্ঘ লাইন। ছবি-সংগৃহীত

পদ্মা নদীতে ফেরি সার্ভিস ব্যাহত হওয়ায় রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ও মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া নৌপথে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়েছে। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন যাত্রী ও পশু ব্যবসায়ীরা।

এ নৌপথে প্রয়োজন অনুযায়ী ফেরি বাড়ানো হলেও নদীর তীব্র স্রোত ও কোরবানির পশুবাহী গাড়ি প্রবেশ করায় দৌলতদিয়াঘাটে গাড়ির লম্বা লাইন তৈরি হচ্ছে।

পশুবাহী গাড়ি ও যাত্রীবাহী পরিবহন অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পার করায় ঘণ্টার পর ঘণ্টা আটকে থাকতে হচ্ছে যাত্রীবাহী পরিবহনগুলোকে।

বৃহস্পতিবার বিকালে দৌলতদিয়াঘাট এলাকায় মহাসড়কের প্রায় চার কিলোমিটার লম্বা গাড়ির লাইন তৈরি হয়।

গরম আবহাওয়ার মধ্যে অনেক সময় ধরে যানজটে আটকেপড়া পশুদের স্বাস্থ্য নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়তে দেখা যায় ব্যবসায়ীদের।

ফেরি কর্তৃপক্ষের দাবি, ঈদ সামনে রেখে অতিরিক্ত যানবাহনের চাপ, নাব্য সংকট এবং নদীতে তীব্র স্রোতের কারণে যানজট বেড়েছে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন সংস্থার (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া কার্যালয় জানায়, দেশের গুরুত্বপূর্ণ নৌপথ হওয়ায় প্রতিদিন এ নৌপথ দিয়ে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের প্রায় ২১ জেলার গাড়ি পারাপার হয়। শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌপথে নাব্য সংকট দেখা দিলে ওই রুটের অধিকাংশ গাড়ি এ নৌপথ দিয়ে পার হওয়ায় ঘাটে বাড়তি চাপ সৃষ্টি হয়।

সেই সঙ্গে ঈদুল আজহা সামনে রেখে রাজধানীসহ বিভিন্ন অঞ্চলে কোরবানির পশুবাহী গাড়ি ছুটতে শুরু করেছে। এসব গাড়ি কয়েক দিন ধরে দৌলতদিয়াঘাট এলাকায় বাড়তি চাপের সৃষ্টি করছে।

এ নৌপথে ছোট-বড় মিলে ১৬টির মতো ফেরি চললেও তিন দিন ধরে সর্বমোট ২১টি ফেরি চলাচল শুরু করে।

এর মধ্যে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দিলে ‘চন্দ্রমল্লিকা’ নামক একটি ইউটিলিটি ফেরিকে পাটুরিয়ার ভাসমান কারখানা মধুমতিতে রাখা হয়েছে। বর্তমানে ২০টি ফেরি স্বাভাবিকভাবে চলছে। তার পরও গাড়ির চাপ কমছে না।

কর্তৃপক্ষ বলছে, ফেরির সংখ্যা বাড়ানো হলেও পদ্মা ও যমুনা নদীতে তীব্র স্রোত দেখা দিয়েছে। স্রোতের কারণে ফেরিগুলো ঘাট ছেড়ে প্রায় তিন কিলোমিটার উজান হয়ে ঘুরে চলাচল করছে। এতে একদিকে সময় লাগছে প্রায় দ্বিগুণ। অন্যদিকে ফেরি ট্রিপ সংখ্যা অনেক কমে গেছে। আগে ২৪ ঘণ্টায় একপাশ থেকে ১৯০-২০০টি করে ট্রিপ মারত একেকটি ফেরি। বর্তমানে তা কমে হয়েছে ১৫০-১৬০টি।

এ ছাড়া দৌলতদিয়ার ছয়টি ঘাটের মধ্যে এক মাসের বেশি সময় ধরে বিআইডব্লিউটিসি একটি উদ্ধারকারী টাগ জাহাজ দুই নম্বর ঘাটে অবস্থান করায় ওই ঘাটটি ব্যবহার করতে পারছে না কর্তৃপক্ষ। বাকি পাঁচটি ঘাট দিয়ে ফেরিতে যানবাহন ওঠানামা করছে।

এদিকে বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক শফিকুল ইসলাম জানান, বর্তমানে প্রয়োজনীয়সংখ্যক ফেরি বাড়ানো হয়েছে। শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌপথে বড় ফেরি চলাচলে সমস্যা হলে প্রয়োজনে এ নৌপথে আরও বড় ফেরি বাড়ানো হবে। তবে বর্তমানে ২১টি ফেরি রয়েছে।

সবকটি ফেরি সচল থাকলে ঘাটে কাউকে বেশি সময় অপেক্ষা করতে হবে না বলে দাবি করেন এ কর্মকর্তা।

 

 

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter