কাপাসিয়ায় বিয়ের ২১ দিনের মাথায় নবদম্পতির আত্মহত্যা

  কাপাসিয়া প্রতিনিধি ১৭ আগস্ট ২০১৮, ২২:১৫ | অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুর ম্যাপ

গাজীপুরের কাপাসিয়ায় বিয়ের ২১ দিনের মাথায় নবদম্পতির বিষপানে আত্মহত্যা করেছে। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

নিহতরা হলো, কাপাসিয়ার আড়াল গ্রামের হানিফ মিয়ার স্কুলপড়ুয়া মেয়ে শাহীনা আক্তার নিপা (১৬) ও ইকুরিয়া গ্রামের আফজাল হোসেন ভূঁইয়ার স্কুলপড়ুয়া ছেলে হৃদয় হোসেন (১৭)।

শুক্রবার ওই দম্পতির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এর আগে বৃহস্পতিবার গাজীপুরের কাপাসিয়ার আড়াল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, নিহত হৃদয় হোসেনের সঙ্গে নিপার প্রেমের সম্পর্কের বিয়ে হয়। গত দুই বছর ধরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। উভয়েই চলতি বছর এসএসসি পরীক্ষা দেয়ার কথা ছিল।

এরই মধ্যে পরিবারের কাউকে না জানিয়ে তারা ২১ দিন আগে গাজীপুর আদালতে গিয়ে নোটারি পাবলিকের মাধ্যমে বিয়ে করে। জানাজানি হওয়ার পর দুই পরিবারের অভিভাবকরা তাদের প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত বিয়ের বিষয়টি গোপন রাখেন।

নিপার বাবা হানিফ মিয়া বলেন, গত ৫ দিন আগে হৃদয় কাউকে না জানিয়ে আমার মেয়েকে তাদের বাড়িতে নিয়ে যায়। এ কারণে হৃদয়ের মা রিমা আক্তার আমার মেয়ে নিপা ও আমাদের পরিবারের লোকজনকে খারাপ ভাষায় গালাগাল করে। এ সময় গালাগাল সহ্য করতে না পেরে নিপা আমাদের বাড়িতে চলে আসে।

নিপার মা রিনা বেগম জানান, ছেলে হৃদয় হোসেন গত বৃহস্পতিবার দুপুরে তাদের বাড়িতে আসে। খাবার খেয়ে উভয়ে ঘরে অবস্থান করছিল। বিকাল ৫টার দিকে তারা বিষপান করে একে অপরের গলায় ধরে ঘর থেকে বের হয়ে বারান্দায় এসে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে।

এ সময় গুরুতর অবস্থায় তাদের পার্শ্ববর্তী মনোহরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়ার পথে শাহীনা আক্তার নিপা মারা যায় এবং হৃদয়কে দ্রুত ঢাকার একটি ক্লিনিকে নিয়ে গেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতেই হৃদয়ের মৃত্যু হয়।

হৃয়ের বাবা আফজাল হোসেন বলেন, ছেলেমেয়ে উভয়েই অপ্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ায় আইনগত বাধা থাকার কারণে তাদের প্রাপ্তবয়স্ক হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করার পরামর্শ দিয়েছিলাম। আমাদের অজান্তে ছেলে তাদের বাড়িতে গিয়ে কী কারণে বিষপান করেছে, তা আমাদের জানা নেই। এদিকে হৃদয় ও নিপার অকালমৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

কাপাসিয়া থানার ওসি মোহাম্মদ আবু বকর সিদ্দিক জানান, লাশ উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter