‘না পেলাম পরেশের ভালোবাসা’

  মনিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি ২৯ আগস্ট ২০১৮, ১৯:১০ | অনলাইন সংস্করণ

নববধূর লাশ
ছবি: যুগান্তর

যশোরের মনিরামপুরে লাবনি দাস (১৯) নামে এক নববধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার বাম হাতের বাহুতে লেখা ‘আমার জীবনের মূল্য নেই, শ্বশুর-শ্বাশুড়ির ভালোবাসা পেলাম না, না পেলাম পরেশের ভালোবাসা। বুধবার উপজেলার নেহালপুর ঋষিপল্লী থেকে তার লা উদ্ধার করা হয়।

নিহত লাবনি ওই পল্লীর পরেশ দাসের স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানায়, নিহত লাবনি মনিরামপুর সরকারি ডিগ্রি কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান প্রথম বর্ষের ছাত্রী ছিল। তার সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে একই পল্লীর গৌরচন্দ্র দাসের ছেলে যশোর এমএম কলেজের মাস্টার্সের ছাত্র পরেশের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সম্পর্কের জেরে পরিবারের অমতে পরেশ চলতি মাসের ১০ তারিখে লাবনিকে বিয়ে করে।

এ নিয়ে পরেশের পরিবারে অশান্তি বিরাজ করছিল বলে জানায় স্থানীয়রা। তবে ঘটনার পর থেকে স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে।

নিহত লাবনির মা লিপিকা দাসের অভিযোগ, তার মেয়েকে শ্বাসরোধে হত্যার পর গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ঘরের আড়ায় ঝুলিয়ে দিয়ে আত্মহত্যা বলে প্রচার চালাচ্ছে পরেশের পরিবার।

নেহালপুর ফাঁড়ির এসআই খাইরুল বাশার জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে লাবনির ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

এ সময় নিহতের দুই পা ঘরের মেঝেতে লাগানো ছিল। নিহতের গলায় দুটি স্পষ্ট চিহ্নসহ বাম হাতে কয়েকটি কাটা দাগ রয়েছে। যেথান থেকে রক্ত ঝরতে দেখা যায়।

এছাড়া নিহতের ডান ও বাম উরুসহ বাম হাতের বাহুতে ‘আমার জীবনের মূল্য নেই, শ্বশুর-শ্বাশুড়ির ভালোবাসা পেলাম না, না পেলাম পরেশের ভালোবাসা-এমন নানা ধরনের লেখা দেখা গেছে।

জেলা পরিষদের সদস্য এসএম ফারুক হুসাইন ও স্থানীয় ইউপি সদস্য কামরুজ্জামান বলেন, তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে লাবনির লাশ ঘরের আড়ায় ঝুলে থাকতে দেখেন। কিন্তু নিহতের পা মাটিতে থাকায় আত্মহত্যা নিয়ে সন্দেহ আছে।

 

 

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.