সেনবাগে অটোরিকশা-পিকআপ সংঘর্ষে নিহত ৩

  সেনবাগ প্রতিনিধি ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১:০৭ | অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালী
ছবি-যুগান্তর

নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলায় যাত্রীবাহী সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও মালবাহী পিকআপের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে অটোরিকশাচালকসহ তিনজন নিহত ও তিনজন আহত হয়েছেন।

সোমবার সকাল পৌনে ৯টার দিকে ফেনী-নোয়াখালী মহাসড়কের সেনবাগ রাস্তার মাথা এলাকায় করিমখানের বাড়ির দরজায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হচ্ছেন- সেনবাগ উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের উত্তর রাজারামপুর গ্রামের ইমাম উদ্দিনের স্ত্রী ফিরোজা খানম রত্না (৫৮), তার ছেলে মোহন খান (৩০) ও দক্ষিণ মোহাম্মদপুর গ্রামের বাসিন্দা এবং অটোরিকশাচালক আবু তাহের (২৭)।

আহতরা হচ্ছেন- নিহত মোহন খানের স্ত্রী বিবি মর্জিনা আক্তার (২৬), তার ছেলে মিরাজ খান (৭) ও পিকআপ যাত্রী সাতবাড়িয়া গ্রামের সফি উর‌্যার ছেলে মো. মাসুদ (৩৫)।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সকালে শ্বশুরবাড়ি সেনবাগ উপজেলার ছমির মুন্সীরহাট থেকে অটোরিকশাযোগে বাড়ি ফিরছিলেন মোহন খান ও তার পরিবারের লোকজন। পথে ফেনী-নোয়াখালী মহাসড়কের সেনবাগ রাস্তার মাথা এলাকায় পৌঁছলে ফেনী থেকে ছেড়ে আসা একটি মালবাহী পিকআপভ্যান অটোরিকশাকে সামনে থেকে চাপা দেয়।

এতে ঘটনাস্থলে অটোচালকসহ পাঁচজন ও পিকআপের এক যাত্রী আহত হন। পরে স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার পথে অটোযাত্রী মোহন খান, ফিরোজা খানম রত্না ও অটোচালক আবু তাহেরের মৃত্যু হয়।

চৌমুহনী হাইওয়ে পুলিশের পরিদর্শক শাহজাহান খান যুগান্তরকে জানান, আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে পিকআপটি জব্দ করা হয়েছে।

সেনবাগ থানার ওসি মঈন উদ্দিন যুগান্তরকে জানান, সিএনজি-পিকআপ সংঘর্ষে চালকসহ তিন জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরও কয়েকজন আহত হয়েছেন। তাদের নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter