‘শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী করতে সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারে প্রস্তুত আছি’

  সাতক্ষীরা ০৫ অক্টোবর ২০১৮, ২১:০৮ | অনলাইন সংস্করণ

জনসভায় বক্তব্য দেন স্থানীয় সংসদ সদস্য এস এম জগলুল হায়দার
জনসভায় বক্তব্য দেন স্থানীয় সংসদ সদস্য এস এম জগলুল হায়দার। ছবি: সংগৃহীত

‘শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী হলে দেশ ভালো থাকবে, আপনি-আমি ভালো থাকব। শ্যামনগর ও কালিগঞ্জে যে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে- তা মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে পারলে নৌকার ভোটের অভাব হবে না। নৌকার পক্ষে সারা দেশে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। নেত্রী যাকে মনোনয়ন দেবেন তার পক্ষে ঐক্যবদ্ধভাবে ঝাঁপিয়ে পড়ে নৌকাকে বিজয়ী করব। শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী করার জন্য সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করতে আমি প্রস্তুত আছি।’

বৃহস্পতিবার বিকালে সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার মুন্সীগঞ্জ কলেজ মাঠে মুন্সীগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক বিশাল জনসভায় এসব কথা বলেছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য এস এম জগলুল হায়দার।

শেখ হাসিনার উন্নয়ন ও সফলতা প্রচারের জন্য আয়োজিত জনসভায় প্রায় ২০ হাজার মানুষ অংশগ্রহণ করে।

সাতক্ষীরা-৪ আসনের এ সংসদ সদস্য আগামী নির্বাচনে নৌকা প্রতীককে বিজয়ী করতে উপস্থিত হাজার হাজার জনতাকে শপথবাক্য পাঠ করান।

এ সময় জগলুল হায়দার বলেন, ধানের শীষ আজ গরিব মানুষের পেটের বিষ হয়ে দাঁড়িয়েছে। খালেদা জিয়া এতিমের টাকা মেরে এখন জেল খাটছেন। গত পাঁচ বছরে শ্যামনগর ও কালিগঞ্জে বিরোধী দল মাঠে নামার সাহস পায়নি। আগামীতেও তারা মাঠে নামতে পারবে না।

শ্যামনগর ও কালিগঞ্জে ব্যাপক উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে তিনি বলেন, সব বিকল্পের বিকল্প আছে। কিন্তু শেখ হাসিনার বিকল্প নেই। তাই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আগামী নির্বাচনে শেখ হাসিনার নৌকাকে বিজয়ী করে তাকে আবারও দেশের প্রধানমন্ত্রী করতে হবে।

সংসদ সদস্য বলেন, খালেদা-নিজামীর এজেন্ডা বাস্তবায়নে দলের স্থানীয় অনেক নেতা শেখ হাসিনার উন্নয়ন দেখতে পান না। তারা সরকারের উন্নয়ন প্রচারের পরিবর্তে সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধে কুৎসা রটনা করে বেড়াচ্ছেন। তারা দলের ক্ষতি করছেন। গত প্রায় পাঁচ বছর মানুষ তাদের কাছে পায়নি।

জগলুল হায়দার তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের বিভিন্ন সাহায্য-সহযোগিতা ও মূল্যায়নের কথা উল্লেখ করে বলেন, নির্বাচনী এলাকার ২০টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের স্থায়ী অফিস করা হয়েছে। নেতাকর্মীদের সুখ-দুঃখের অংশীদার হয়ে তাদেরকে যথাসাধ্য সাহায্য সহযোগিতা করা হয়েছে। ওয়ার্ডপর্যায়ের নেতাদেরকেও যথাসাধ্য সাহায্য সহযোগিতা করা হয়েছে।

তিনি বলেন, দলের মধ্যে কিছু লোক জামায়াত-বিএনপির এজেন্ডা বাস্তবায়নে মাঠে নেমেছে। শুধু ভোটের সময় তাদের দেখা মেলে। দলীয় সভানেত্রীর নির্দেশ অমান্য করে অনেকে বিরোধী দলের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন। তাদের কুৎসা রটনা থেকে বিরত থেকে শেখ হাসিনার উন্নয়ন প্রচারের আহ্বান জানান এ সংসদ সদস্য।

আগামী নির্বাচনে আবারও মনোনয়ন পাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করে জগলুল হায়দার বলেন, নেত্রী ভালোবেসে মনোনয়ন দিলে আছি, না দিলেও আছি। তিনি যাকে মনোনয়ন দেবেন তার পক্ষে ঝাঁপিয়ে পড়ব। শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী করতে সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করতে প্রস্তুত আছি।

মিয়ানমারে নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ার কথা উল্লেখ করে সংসদ সদস্য বলেন, শেখ হাসিনা ১১ লাখ অসহায় মানুষের আশ্রয় দিয়ে আজ বিশ্ব মানবতার জননী। তিনি মমতাময়ী নেত্রী। তিনি এখন সারা বিশ্বের নেতা।

উপস্থিত জনতার কাছে দোয়া চেয়ে আগামী নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে শেখ হাসিনাকে আবারও দেশের প্রধানমন্ত্রী করার আহ্বান জানান জগলুল হায়দার।

মুন্সীগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি অসীম কুমার মৃধার সভাপতিত্বে জনসভায় জেলা, উপজেলা এবং স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতারা বক্তব্য রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ : সাতক্ষীরা-৪: জাতীয় সংসদ নির্বাচন

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

 
×