রায়ে মাদারীপুরের হতাহত পরিবারে স্বস্তি, ছাত্রলীগের মিষ্টি বিতরণ

  মাদারীপুর প্রতিনিধি ১০ অক্টোবর ২০১৮, ২০:১৬ | অনলাইন সংস্করণ

রায়ে মাদারীপুরের হতাহত পরিবারে স্বস্তি, ছাত্রলীগের মিষ্টি বিতরণ
রায়ের পর মাদারীপুর জেলা ছাত্রলীগের মিষ্টি বিতরণ।

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট ঢাকার বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে অনুষ্ঠিত শেখ হাসিনার সমাবেশে নারকীয় গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ে নিহত ও আহতদের পরিবারের মধ্যে কিছুটা স্বস্তি ফিরে এসেছে। রায় দ্রুত কার্যকর করার দাবি জানিয়েছে পরিবারগুলো। এ ছাড়া রায়ে জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে আনন্দ-উল্লাস ও মিষ্টি বিতরণ করা হয়েছে।

সূত্র জানায়, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় মাদারীপুরের ৪ জন নিহত ও ৩ জন আহত হন।

নিহতরা হলেন- মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার হোসেনপুর ইউনিয়নের চানপট্টি গ্রামের যুবলীগ নেতা লিটন মুন্সির, রাজৈর উপজেলার কদমবাড়ি ইউনিয়নের মহিষমারি গ্রামের সুফিয়া বেগম, কালকিনি উপজেলার কয়ারিয়া ইউনিয়নের রামপোল গ্রামের শ্রমিকলীগ নেতা নাসিরউদ্দিন সরদার ও উপজেলার ক্রোকিরচর গ্রামের যুবলীগ নেতা মোস্তাক আহম্মেদ ওরফে কালা সেন্টু।

আহতরা হলেন- কালকিনি পৌরসভার বিভাগদী গ্রামের হালান হাওলাদার, ঝাউতলা গ্রামের সাইদুল হক সরদার ও কৃষ্ণনগর গ্রামের কবির হোসেন।

গ্রেনেড হামলায় নিহত নাসিরউদ্দিন সরদারের ছেলে মো. মাহাবুব হোসেন সরদার বলেন, রায়ে আমরা মোটামুটি সন্তুষ্ট। হত্যার মূল পরিকল্পনাকারীকে ফাঁসি দিলে শতভাগ সন্তুষ্ট হতে পারতাম।

নিহত লিটন মুন্সির একমাত্র মেয়ে নুসরাত জাহান মিথিলা বলেন, আমার বাবার হত্যাকারীদের শাস্তি হয়েছে এতে করে আমরা সন্তুষ্ট। বাবাসহ সবার আত্মা কিছুটা শান্তি পাবে।

হামলায় আহত হালান হাওলাদার বলেন, আমরা রায়ে পুরোপুরি খুশি হতে পারিনি। কারণ হামলার মূল পরিকল্পনাকারীর ফাঁসি হয়নি। রায় দ্রুত কার্যকর করার দাবি জানাই।

এদিকে রায়ের পর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জাহিদ হোসেন অনিকের নেতৃত্বে মাদারীপুর পুরান বাজারে জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে আনন্দ-উল্লাস ও মিষ্টি বিতরণ করা হয়েছে।

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আফম বাহাউদ্দিন নাছিম বুধবার রায়ের পর মাদারীপুরের নিজ বাসায় সাংবাদিকদের বলেন, এ রায়ে আমি একজন ক্ষতিগ্রস্ত হিসেবে বলতে চাই- হত্যাকাণ্ডের মূল পরিকল্পনাকারী যারা হাওয়া ভবনে বসে পরিকল্পনা করেছিল তাদের ফাঁসির আদেশ কাম্য ছিল। আইন বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনা করে উচ্চ আদালতে আপিল করা হবে।

ঘটনাপ্রবাহ : ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter