বিরামপুরে করোনা সন্দেহে শিশুর সঙ্গে সেকমো আইসোলেশনে
jugantor
বিরামপুরে করোনা সন্দেহে শিশুর সঙ্গে সেকমো আইসোলেশনে

  বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি  

২৪ মার্চ ২০২০, ২২:২৩:৫৪  |  অনলাইন সংস্করণ

বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স

দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেকরোনাভাইরাস সন্দেহে আট বছর বয়সের এক শিশুকে ভর্তি করানো হয়েছে।

ওই শিশুটি জ্বর, সর্দি, শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়। তাকে সেবা দেয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসারকেও (সেকমো) আইসোলেশনে ভর্তি করা হয়েছে।

বিষয়টি যুগান্তরকে নিশ্চিত করেছেন বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. সোলায়মান মেহেদী।

মোবাইলে তিনি বলেন, সোমবার পার্শ্ববর্তী হাকিমপুর উপজেলা ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের শিশুটিকে বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে তার পরিবারের লোকজন। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার যে সব লক্ষণ রোগীর মধ্যে থাকা দরকার তার প্রায় সব কিছুই আছে শিশুটির মধ্যে।

তিনি বলেন, বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার (সেকমো) নিয়মিত রোগীদের চিকিৎসা দিচ্ছিলেন। এর মধ্যে মঙ্গলবার দুপুরে অসুস্থ হলে করোনাভাইরাস সন্দেহ হয়। তখন তাকেও আইসোলেশনে ভর্তি করা হয়।

একই সঙ্গে তার পরিবারের সব সদস্যকে হোম কোয়ারেন্টিনে ব্যবস্থা করা হয়। রোগীদের নমুনা সংগ্রহ করে রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর) পাঠানো হবে বলেন ডা. মো. সোলায়মান মেহেদী।

তিনি যুগান্তরকে আরও বলেন, দিনাজপুরে এই প্রথম দুইজনকে আইসোলেশনে ভর্তি করা হয়েছে।

বিরামপুরে করোনা সন্দেহে শিশুর সঙ্গে সেকমো আইসোলেশনে

 বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি 
২৪ মার্চ ২০২০, ১০:২৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স
বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স

দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনাভাইরাস সন্দেহে আট বছর বয়সের এক শিশুকে ভর্তি করানো হয়েছে।

ওই শিশুটি জ্বর, সর্দি, শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়। তাকে সেবা দেয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসারকেও (সেকমো) আইসোলেশনে ভর্তি করা হয়েছে।

বিষয়টি যুগান্তরকে নিশ্চিত করেছেন বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. সোলায়মান মেহেদী।

মোবাইলে তিনি বলেন, সোমবার পার্শ্ববর্তী হাকিমপুর উপজেলা ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের শিশুটিকে বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে তার পরিবারের লোকজন। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার যে সব লক্ষণ রোগীর মধ্যে থাকা দরকার তার প্রায় সব কিছুই আছে শিশুটির মধ্যে।

তিনি বলেন, বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার (সেকমো) নিয়মিত রোগীদের চিকিৎসা দিচ্ছিলেন। এর মধ্যে মঙ্গলবার দুপুরে অসুস্থ হলে করোনাভাইরাস সন্দেহ হয়। তখন তাকেও আইসোলেশনে ভর্তি করা হয়।

একই সঙ্গে তার পরিবারের সব সদস্যকে হোম কোয়ারেন্টিনে ব্যবস্থা করা হয়। রোগীদের নমুনা সংগ্রহ করে রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর) পাঠানো হবে বলেন ডা. মো. সোলায়মান মেহেদী।

তিনি যুগান্তরকে আরও বলেন, দিনাজপুরে এই প্রথম দুইজনকে আইসোলেশনে ভর্তি করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস