ধামরাইয়ে ঠাণ্ডা ও শ্বাসকষ্টে ২ ব্যক্তির মৃত্যু, জনমনে আতঙ্ক

  ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি ২৭ মার্চ ২০২০, ২২:২৬:৫৪ | অনলাইন সংস্করণ

ঢাকার ধামরাইয়ে হাসপাতালে নেয়ার আগেই নিজ বাড়িতে ঠাণ্ডা ও শ্বাসকষ্টজনিত রোগে দুই ব্যক্তি মারা গেছেন। এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগকে অবহিত কিংবা লাশের কোনো পরীক্ষা নিরীক্ষা না করেই দাফন করা হয়েছে।

শুক্রবার উপজেলার সোমবাগ ইউনিয়নের বানেশ্বর গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে।

মৃত ব্যক্তিরা হলেন- উপজেলার বানেশ্বর গ্রামের পশ্চিম পাড়া এলাকার মো. লালমিয়া (৫০) ও একই গ্রামের পূর্বপাড়া এলাকার মো. মোগড় আলী (৫৫)।

তাদের মৃত্যুতে জনমনে চরম আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে বলে জানা গেছে। তাদের ধারণা মরণঘাতি ভাইরাস করোনায় আক্রান্ত হয়ে তারা মৃত্যুবরণ করেছেন। হাসপাতালে না নিয়ে গোপনে বাড়িতে রেখে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হচ্ছিল তাদের।

তবে পরিবারের সদস্যরা এলাকাবাসীর অভিযোগ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন দাবি করে বলেন, তারা পূর্বের রোগজনিত কারণে মারা গেছেন।

এলাকাবাসী জানায়, মো. লালমিয়া ঠাণ্ডা ও শ্বাসকষ্ট রোগে আক্রান্ত হন। তাকে হাসপাতালে নেয়ার আগেই তিনি বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে নিজ বাড়িতেই মারা যান। অপর ঘটনাটি ঘটে শুক্রবার বিকাল ৪টায় একই গ্রামের পূর্বপাড়া এলাকায়। সেখানকার মোগড় আলী নামে এক ব্যক্তি একই রোগে আক্রান্ত হন। তাকেও হাসপাতালে নেয়ার পূর্বে তিনিও মৃত্যুবরণ করেন।

এ ব্যাপারে অস্বাভাবিক মৃত্যুবরণকারী ওই দুই ব্যক্তির পরিবার জানায়, তাদের ঠাণ্ডা ও শ্বাসকষ্ট রোগ থাকলেও মূলত তারা এ কারণে মারা যায়নি। তারা দীর্ঘদিন ধরে ক্যান্সারসহ বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা বলেন, এ বিষয়ে কেউ আমাদের কাছে কোনো তথ্য জানায়নি। মারা গেলেই যে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যায় তা কিন্তু সঠিক নয়। মৃত্যু যেকোনো রোগেই হতে পারে। এরপরও বিষয়টি সম্পর্কে খোঁজখবর নিয়ে দেখা হবে।

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

আরও
 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত