বাড়ি ফিরতে গিয়ে ২০০ কিমি. হেঁটে রাস্তাতেই যুবকের মৃত্যু

  অনলাইন ডেস্ক ২৯ মার্চ ২০২০, ১৭:০৪:০৯ | অনলাইন সংস্করণ

ছবি সংগৃহীত

করোনাভাইরাস বিস্তার ঠেকাতে পুরো ভারত লকডাউনের আওতায় রয়েছে। এতে দেশজুড়ে বন্ধ রয়েছে ট্রেন, বাসসহ সবরকম পরিবহন। ফলে দিল্লি থেকে হেঁটেই ৩০০ কিলোমিটার দূরত্বে মধ্যপ্রদেশের মেরেনা জেলার বাড়ির উদ্দেশে রওয়ানা করেছেন ভারতীয় যুবক রণবীর সিং। ইতিমধ্যে ৩৮ বছরের ওই যুবক ২০০ কিলোমিটার পথ পাড়িও দিয়েছেন। তবে বাড়ির কাছে আসলেও তিনি শেষ পর্যন্ত বাড়ি পৗঁছতে পারেননি।

কলাকাতার প্রভাবশালী গণমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা জানায়, রণবীর সিং পেশায় একটি সংস্থার ডেলিভারি এজেন্ট। কিন্তু করোনাভাইরাসের প্রভাব বিস্তার ঠেকাতে লকডাউনের ঘোষণার পর থেকেই কাজ বন্ধ।

পুলিশ ও পরিবার জানায়, মাসের শেষদিকে তার হাতে টাকা-পয়সা তেমন ছিল না। আবার টাকা থাকলেও হোটেল, দোকানপাট বন্ধ হওয়ায় খাবার জোগাড় করাই কষ্টকর হয়ে পড়েছিল রণবীরের। ফলে হেঁটেই বাড়ি ফেরার সিদ্ধান্ত নেন।
পুলিশ জানায়, তীব্র গরমে দীর্ঘ পথ হাঁটার পর ক্লান্তির ফলে আগরার কাছে প্রথমে অসুস্থ হয়ে পড়েন রণবীর। স্থানীয় এক দোকানদার বিষয়টি লক্ষ্য করে তাকে চা-বিস্কুট খেতে দেন। কিছুটা সুস্থ বোধ করার পর আবার হাঁটতে শুরু করেন। কিন্তু বাড়ি থেকে ৮০ কিলোমিটার দূরে হৃদরোগে আক্রান্ত হন। রাস্তাতেই মৃত্যু হয় তার।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই যুবকের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। পরিবারের লোকজনকেও খবর দেয়া হয়েছে। ময়নাতদন্তের পর লাশ বাড়িতে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হবে।

লকডাউনের পর সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়েছেন ভ্রাম্যমাণ শ্রমিকরা। সব ধরনের যানবাহন বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর থেকে হেঁটেই কর্মস্থল থেকে বাড়ি ফিরছেন হাজার হাজার মানুষ। অনেকে পরিবার, শিশু-সন্তান নিয়েও ফিরছেন।
কংগ্রেস সংসদ সদস্য রাহুল গান্ধীসহ অনেক বিরোধীর অভিযোগ, আগাম প্রস্তুতি ছাড়াই লকডাউন ঘোষণা হয়েছে। তাদের দাবি, এর জেরেই মহাসংকটে পড়েছেন এ সব শ্রমিকশ্রেণির মানুষ।

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

আরও
 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত