ছুটিতে গিয়েই কিশোরীকে তুলে এনে বাল্যবিয়ের চেষ্টা, কিশোরকে কারাদণ্ড
jugantor
ছুটিতে গিয়েই কিশোরীকে তুলে এনে বাল্যবিয়ের চেষ্টা, কিশোরকে কারাদণ্ড

  কেন্দুয়া (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি  

৩১ মার্চ ২০২০, ২২:৩৩:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

মোহাম্মদ নাঈম

নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলায় এক কিশোরীকে তার বাড়ি থেকে তুলে এনে বাল্যবিয়ের আয়োজন করায় যুবককে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

কেন্দুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আল ইমরান রুহুল ইসলাম এ দণ্ড দেন।

এ সময় কেন্দুয়া সার্কেলের এএসপি মাহমুদুল হাসান ও কেন্দুয়া থানার ওসি মোহাম্মদ রাশেদুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত ওই বর হলেন মোহাম্মদ নাঈম (১৯)। তিনি উপজেলার আশুজিয়া ইউনিয়নের ভুগিয়া গ্রামের আজিজুল ইসলামের ছেলে।
কেন্দুয়া থানার ওসি মোহাম্মদ রাশেদুজ্জামান জানান, নাঈমকে মঙ্গলবার সকালে নেত্রকোনা জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

ইউএনও আল ইমরান রুহুল ইসলাম বলেন, মোহাম্মদ নাঈম ঢাকায় গার্মেন্টসে কাজ করত। ছুটিতে বাড়ি ফিরেই বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চেয়েছিল সে। কিন্তু মেয়েটির বয়স মাত্র ১৫ বছর। তাই সোমবার ভোরে একই উপজেলার রোয়াইলবাড়ি গ্রাম থেকে মেয়েটিকে নিজেদের বাড়িতে নিয়ে আসে বরপক্ষ।

তিনি বলেন, এ ঘটনার খবর পেয়ে ওইদিনই বেলা ১১টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে বাল্যবিয়ের আয়োজন করায় মোহাম্মদ নাঈমকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়।

ছুটিতে গিয়েই কিশোরীকে তুলে এনে বাল্যবিয়ের চেষ্টা, কিশোরকে কারাদণ্ড

 কেন্দুয়া (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি 
৩১ মার্চ ২০২০, ১০:৩৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মোহাম্মদ নাঈম
মোহাম্মদ নাঈম। ফাইল ছবি

নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলায় এক কিশোরীকে তার বাড়ি থেকে তুলে এনে বাল্যবিয়ের আয়োজন করায় যুবককে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

কেন্দুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আল ইমরান রুহুল ইসলাম এ দণ্ড দেন।

এ সময় কেন্দুয়া সার্কেলের এএসপি মাহমুদুল হাসান ও কেন্দুয়া থানার ওসি মোহাম্মদ রাশেদুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত ওই বর হলেন মোহাম্মদ নাঈম (১৯)। তিনি উপজেলার আশুজিয়া ইউনিয়নের ভুগিয়া গ্রামের আজিজুল ইসলামের ছেলে।
কেন্দুয়া থানার ওসি মোহাম্মদ রাশেদুজ্জামান জানান, নাঈমকে মঙ্গলবার সকালে নেত্রকোনা জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

ইউএনও আল ইমরান রুহুল ইসলাম বলেন, মোহাম্মদ নাঈম ঢাকায় গার্মেন্টসে কাজ করত। ছুটিতে বাড়ি ফিরেই বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চেয়েছিল সে। কিন্তু মেয়েটির বয়স মাত্র ১৫ বছর। তাই সোমবার ভোরে একই উপজেলার রোয়াইলবাড়ি গ্রাম থেকে মেয়েটিকে নিজেদের বাড়িতে নিয়ে আসে বরপক্ষ।

তিনি বলেন, এ ঘটনার খবর পেয়ে ওইদিনই বেলা ১১টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে বাল্যবিয়ের আয়োজন করায় মোহাম্মদ নাঈমকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস