করোনার কারণে বাবাকে শেষ দেখা হয়নি সানার

  বিনোদন ডেস্ক ০৬ এপ্রিল ২০২০, ১১:৩৩:২৬ | অনলাইন সংস্করণ

করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে দেশে দেশে চলছে লকডাউন। আন্তর্জাতিক সব ফ্লাইট বন্ধ।

এমন ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা ও লকডাউনের সময়ে অনেকেই দীর্ঘদিন ধরে প্রিয়জন ও পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করতে পারছেন না।

বলিউড সেলিব্রেটি ‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার’খ্যাত অভিনেত্রী সানা সাইদের বেলায় এর চেয়েও দুঃখজনক ঘটনা ঘটল।

করোনা পরিস্থিতির কারণে শেষবারের মতো বাবাকে দেখতে পারলেন না এই নায়িকা। বাবার আশীর্বাদের হাত শেষবারের মতো মাথায় ছোঁয়াতে পারলেন না।

বিনোদনভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বলিউড হাঙ্গামা জানিয়েছে, ভারতে চলমান ২১ দিনের লকডাউনের মাঝেই গত ২২ মার্চ অভিনেত্রী সানার বাবা উর্দু ভাষার কবি আবদুল আহাদ সাইদ মারা যান। কিন্তু সানা বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসে রয়েছেন। ফোনে বাবার মৃত্যুর খবর পেলেও আন্তর্জাতিক ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার কারণে ভারতে ফিরতে পারেননি এই অভিনেত্রী।
যে কারণে বাবার দাফনের সময়ও মা ও বোনদের শোকের সঙ্গী হতে পারেননি।

এমন হৃদয়বিদারক পরিস্থিতিতে পড়ার বিষয়ে সানা জানিয়েছেন, সেদিন সকাল ৭টায় বাবার মৃত্যুর সংবাদ পাই। কি করব, কিভাবে দেশে ফিরব সেই চিন্তা মাথায় ভর করে। কিন্তু কিছুই করার ছিল না আমার।

তিনি বলেন, আমি সেখানে শারীরিকভাবে উপস্থিত না থাকলেও আমার বোন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিনিয়ত আমাকে খবরাখবর জানাচ্ছিল।

বাবার মৃত্যু কারণ জানাতে গিয়ে সানা বলেন, বাবা ডায়াবেটিস রোগী ছিলেন। এ ছাড়া বার্ধক্যজনিত নানা অসুখে ভুগছিলেন। পরলোকে নিশ্চয়ই তিনি ভালো আছেন।

প্রসঙ্গত, ব্লকবাস্টার সুপারহিট ছবি‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’ সিনেমায় শাহরুখ খানের কন্যা অঞ্জলির ভূমিকায় অভিনয় করে ছোটবেলায়ই আলোচনায় এসেছিলেন সানা সাইদ। বড় হয়ে আলিয়া ভাট, বরুণ ধাওয়ান ও সিদ্ধার্থ মালহোত্রা অভিনীত ‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার’ সিনেমায় ফেরেন সানা।

 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত